ঢাকা ০২:৩২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিশ্বের ধনকুবেরদের তালিকায় বাংলাদেশের সালমান এফ রহমান

জাতীয় ডেস্কঃ
বাংলাদেশের মানুষের কাছে পরিচিত এক নাম সালমান এফ রহমান।বাংলাদেশ এক্সপোর্ট-ইমপোর্ট কোম্পানি (বেক্সিমকো) গ্রুপের কর্ণধার তিনি। বিশ্বের ধনী ব্যক্তিদের তালিকায় প্রথমবারের মতো কোনও বাংলাদেশি হিসেবে তিনি জায়গা করে নিয়েছেন।
বেইজিংভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান হুরুন গ্লোবাল-এর ওই তালিকার ২২৫৭ জন ধনকুবেরের মধ্যে তিনি রয়েছেন ১৬৮৫ নম্বরে। প্রকাশিত তালিকা অনুযায়ী, সালমান এফ রহমানের সম্পদের পরিমাণ ১৩০ কোটি ডলার।
সালমান এফ রহমান এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন, চীনা প্রতিষ্ঠান হুরুন গ্লোবাল এর বরাত দিয়ে প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়েছে আমার সম্পদের পরিমাণ ১৩০ কোটি ডলার। প্রতিষ্ঠানটি কিভাবে এই সম্পদের হিসাব করেছে তা আমার জানা নেই। সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদন অনুযায়ী বেক্সিমকো গ্রুপের নিট সম্পদের পরিমাণ এর কাছাকাছি হতে পারে। আমার ব্যক্তিগত সম্পদের পরিমাণ এটা নয়।
প্রসঙ্গত, ১৯৭২ সালে এ দেশে  বেক্সিমকো গ্রুপ যাত্রা শুরু করে। গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা সালমান এফ রহমান বর্তমানে বেক্সিমকো গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন। আশির দশকে ঔষধ শিল্পে বেসরকারি বিনিয়োগের সুযোগ সৃষ্টির পর বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসে বিনিয়োগ শুরু করে। পরে টেক্সটাইলস খাতেও আসে সাফল্য। ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণের পাশাপাশি পরবর্তী সময়ে সালমান এফ রহমান রাজনীতিতে সক্রিয় হন। তিনি বর্তমানে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার বেসরকারি খাত উন্নয়ন বিষয়ক উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করছেন।
মঙ্গলবার প্রকাশিত হুরুন গ্লোবাল-এর ওই তালিকায় স্থান পেয়েছেন ৬৮টি দেশের শীর্ষ ধনী ব্যক্তিরা। তালিকার শীর্ষ তিনজনই যুক্তরাষ্ট্রের। মাইক্রোসফটের প্রধান বিল গেটস এ বছরও বিশ্বের সবচেয়ে ধনী হিসেবে তালিকার শীর্ষে জায়গা করে নিয়েছেন। তার সম্পদের পরিমাণ আট হাজার ১০০ কোটি ডলার বলে তালিকায় উল্লেখ করা হয়েছে।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও রয়েছেন ওই তালিকায়। তার অবস্থান ৩৯৫ নম্বরে। ট্রাম্পের সম্পদের পরিমাণ ৪৫০ কোটি ডলার বলে ওই তালিকায় উল্লেখ করা হয়েছে।
হুরুন গ্লোবাল-এর ওয়েবসাইটে বলা হয়, ওই তালিকার দুই-তৃতীয়াংশ ব্যক্তিই নিজের চেষ্টায় অগাধ সম্পদের মালিক হয়েছেন। অপরদিকে, এক-তৃতীয়াংশ ধনকুবের পারিবারিক সূত্রে সম্পদ লাভ করেছেন। উল্লেখ্য, গত ছয় বছর ধরে হুরুন গ্লোবাল বিশ্বের ধনকুবেরদের তালিকা প্রকাশ করে আসছে।
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

বিশ্বের ধনকুবেরদের তালিকায় বাংলাদেশের সালমান এফ রহমান

আপডেট সময় ০৩:৪১:২৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ মার্চ ২০১৭
জাতীয় ডেস্কঃ
বাংলাদেশের মানুষের কাছে পরিচিত এক নাম সালমান এফ রহমান।বাংলাদেশ এক্সপোর্ট-ইমপোর্ট কোম্পানি (বেক্সিমকো) গ্রুপের কর্ণধার তিনি। বিশ্বের ধনী ব্যক্তিদের তালিকায় প্রথমবারের মতো কোনও বাংলাদেশি হিসেবে তিনি জায়গা করে নিয়েছেন।
বেইজিংভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান হুরুন গ্লোবাল-এর ওই তালিকার ২২৫৭ জন ধনকুবেরের মধ্যে তিনি রয়েছেন ১৬৮৫ নম্বরে। প্রকাশিত তালিকা অনুযায়ী, সালমান এফ রহমানের সম্পদের পরিমাণ ১৩০ কোটি ডলার।
সালমান এফ রহমান এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন, চীনা প্রতিষ্ঠান হুরুন গ্লোবাল এর বরাত দিয়ে প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়েছে আমার সম্পদের পরিমাণ ১৩০ কোটি ডলার। প্রতিষ্ঠানটি কিভাবে এই সম্পদের হিসাব করেছে তা আমার জানা নেই। সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদন অনুযায়ী বেক্সিমকো গ্রুপের নিট সম্পদের পরিমাণ এর কাছাকাছি হতে পারে। আমার ব্যক্তিগত সম্পদের পরিমাণ এটা নয়।
প্রসঙ্গত, ১৯৭২ সালে এ দেশে  বেক্সিমকো গ্রুপ যাত্রা শুরু করে। গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা সালমান এফ রহমান বর্তমানে বেক্সিমকো গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন। আশির দশকে ঔষধ শিল্পে বেসরকারি বিনিয়োগের সুযোগ সৃষ্টির পর বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসে বিনিয়োগ শুরু করে। পরে টেক্সটাইলস খাতেও আসে সাফল্য। ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণের পাশাপাশি পরবর্তী সময়ে সালমান এফ রহমান রাজনীতিতে সক্রিয় হন। তিনি বর্তমানে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার বেসরকারি খাত উন্নয়ন বিষয়ক উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করছেন।
মঙ্গলবার প্রকাশিত হুরুন গ্লোবাল-এর ওই তালিকায় স্থান পেয়েছেন ৬৮টি দেশের শীর্ষ ধনী ব্যক্তিরা। তালিকার শীর্ষ তিনজনই যুক্তরাষ্ট্রের। মাইক্রোসফটের প্রধান বিল গেটস এ বছরও বিশ্বের সবচেয়ে ধনী হিসেবে তালিকার শীর্ষে জায়গা করে নিয়েছেন। তার সম্পদের পরিমাণ আট হাজার ১০০ কোটি ডলার বলে তালিকায় উল্লেখ করা হয়েছে।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও রয়েছেন ওই তালিকায়। তার অবস্থান ৩৯৫ নম্বরে। ট্রাম্পের সম্পদের পরিমাণ ৪৫০ কোটি ডলার বলে ওই তালিকায় উল্লেখ করা হয়েছে।
হুরুন গ্লোবাল-এর ওয়েবসাইটে বলা হয়, ওই তালিকার দুই-তৃতীয়াংশ ব্যক্তিই নিজের চেষ্টায় অগাধ সম্পদের মালিক হয়েছেন। অপরদিকে, এক-তৃতীয়াংশ ধনকুবের পারিবারিক সূত্রে সম্পদ লাভ করেছেন। উল্লেখ্য, গত ছয় বছর ধরে হুরুন গ্লোবাল বিশ্বের ধনকুবেরদের তালিকা প্রকাশ করে আসছে।