ঢাকা ০৩:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বুড়িচংয়ে ইজিবাইক চালককে হত্যা

স্টাফ রির্পোটার, কুমিল্লাঃ

কুমিল্লা বুড়িচং উপজেলার গোবিন্দপুর ঈদগাহ সংলগ্ন বাঁশঝাড় থেকে তুষার মিয়া (২০) নামে এক ইজিবাইক চালকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ হত্যাকাণ্ডেরে ঘটনায় আশিকুর রহমান বাপ্পি নামে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ২টায় সদর ও বুড়িচং উপজেলার সীমান্ত সংলগ্ন ভরাসার বাজারের ঈদগাহ কবরস্থানের পাশ থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

তুষার মিয়া কুমিল্লা সদরের পশ্চিম মাঝিগাছার বাগান বাড়ির গোলাপ মিয়ার ছেলে। তিনি গত ৫ মাস আগে বিয়ে করেছিলো। আর আটক আশিকুর রহমান বাপ্পি কুমিল্লা সদরের বাসিন্দা।

নিহতের পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, জেলার সদর উপজেলার পাচঁথুবী ইউনিয়নের পশ্চিম মাঝিগাছা (বাগানবাড়ী) গ্রামের মো. গোলাপ শেখের ছেলে মো. তুষার শেখ বুধবার সকাল সাড়ে ৮টায় ইজিবাইকসহ বাড়ি থেকে বের হয়। দুপুরে ও রাতে বাড়ি ফিরে না আসায় পরিবারের লোকজন সম্ভাব্য বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান লাভে ব্যর্থ হয়। পরে সকালে কোতয়ালী থানায় নিখোঁজ জিডি করতে যায় তাঁর পরিবার।

এদিকে বুধবার রাতে কুমিল্লা চকবাজার একটি গ্যারেজ দুই যুবক একটি ইজি বাইক বিক্রয় করতে যায়। এ সময় গ্যারেজের লোকজন ইজি বাইকটি চিনতে পেরে এর প্রকৃত চালকের কথা জিজ্ঞাসা করে।

এ সময় যুবকদের কথাবার্তা সন্দেহ হলে গ্যারেজের লোকজন তাদের আটক করে কোতয়ালী থানা পুলিশে খবর দেয়। পরে কোতয়ালী থানা পুলিশ দুই যুবককে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

আটককৃত দুই যুবক হলো- সদর উপজেলার কাপ্তান বাজার এলাকার মৃত আলমগীর হোসেনের ছেলে আসিফ ওরফে বাপ্পি (২৪), চান্দিনা থানাধীন শাংশার গ্রামের মৃত বদর উদ্দিনের ছেলে আনোয়ার হোসেন ওরফে হৃদয় (২৪)। পুলিশ রাতে আটককৃত দুই যুবককে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করলে তাঁরা স্বীকার করে ইজি বাইক চালককে হত্যা করে লাশ নির্জন স্থানে ফেলে দিয়ে ইজি বাইকটি বিক্রির জন্য নিয়ে আসে।

এ ঘটনার সাথে মামুন নামে আরো একজন জড়িত আছে। পুলিশ আটককৃতদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী আজ বৃহস্পতিবার দুপুর প্রায় ২টায় জেলার বুড়িচং উপজেলার ষোলনল ইউনিয়নের গোবিন্দপুর ঈদাগাহ এর পূর্ব-দক্ষিণ পাশে নির্জন একটি বাঁশঝাড়ের হাত বাঁধা ও গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় নিহত যুবকের লাশ উদ্ধার করে। নিহত তুষার শেখ গত ৬/৭ মাস পূর্বে পার্শ্ববর্তী এলাকায় বিয়ে করেন।

এ ঘটনায় সঙ্গে জড়িত মামুন প্রকাশ্যে মিন্টুকে (২৮) পুলিশ গ্রেপ্তার করে। সে হবিগঞ্জ জেলার আজমিরিগঞ্জ থানাধীন আজিমনগর গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ছেলে।

এ ব্যাপারে বুড়িচং থানার অফিসার ইনচার্জ মনোজ কুমার দে বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, হত্যার সঙ্গে জড়িত তিন আসামিকে কোতয়ালী থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। এ বিষয়ে বুড়িচং থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

বুড়িচংয়ে ইজিবাইক চালককে হত্যা

আপডেট সময় ০৭:০৪:৩২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৭
স্টাফ রির্পোটার, কুমিল্লাঃ

কুমিল্লা বুড়িচং উপজেলার গোবিন্দপুর ঈদগাহ সংলগ্ন বাঁশঝাড় থেকে তুষার মিয়া (২০) নামে এক ইজিবাইক চালকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ হত্যাকাণ্ডেরে ঘটনায় আশিকুর রহমান বাপ্পি নামে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ২টায় সদর ও বুড়িচং উপজেলার সীমান্ত সংলগ্ন ভরাসার বাজারের ঈদগাহ কবরস্থানের পাশ থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

তুষার মিয়া কুমিল্লা সদরের পশ্চিম মাঝিগাছার বাগান বাড়ির গোলাপ মিয়ার ছেলে। তিনি গত ৫ মাস আগে বিয়ে করেছিলো। আর আটক আশিকুর রহমান বাপ্পি কুমিল্লা সদরের বাসিন্দা।

নিহতের পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, জেলার সদর উপজেলার পাচঁথুবী ইউনিয়নের পশ্চিম মাঝিগাছা (বাগানবাড়ী) গ্রামের মো. গোলাপ শেখের ছেলে মো. তুষার শেখ বুধবার সকাল সাড়ে ৮টায় ইজিবাইকসহ বাড়ি থেকে বের হয়। দুপুরে ও রাতে বাড়ি ফিরে না আসায় পরিবারের লোকজন সম্ভাব্য বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান লাভে ব্যর্থ হয়। পরে সকালে কোতয়ালী থানায় নিখোঁজ জিডি করতে যায় তাঁর পরিবার।

এদিকে বুধবার রাতে কুমিল্লা চকবাজার একটি গ্যারেজ দুই যুবক একটি ইজি বাইক বিক্রয় করতে যায়। এ সময় গ্যারেজের লোকজন ইজি বাইকটি চিনতে পেরে এর প্রকৃত চালকের কথা জিজ্ঞাসা করে।

এ সময় যুবকদের কথাবার্তা সন্দেহ হলে গ্যারেজের লোকজন তাদের আটক করে কোতয়ালী থানা পুলিশে খবর দেয়। পরে কোতয়ালী থানা পুলিশ দুই যুবককে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

আটককৃত দুই যুবক হলো- সদর উপজেলার কাপ্তান বাজার এলাকার মৃত আলমগীর হোসেনের ছেলে আসিফ ওরফে বাপ্পি (২৪), চান্দিনা থানাধীন শাংশার গ্রামের মৃত বদর উদ্দিনের ছেলে আনোয়ার হোসেন ওরফে হৃদয় (২৪)। পুলিশ রাতে আটককৃত দুই যুবককে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করলে তাঁরা স্বীকার করে ইজি বাইক চালককে হত্যা করে লাশ নির্জন স্থানে ফেলে দিয়ে ইজি বাইকটি বিক্রির জন্য নিয়ে আসে।

এ ঘটনার সাথে মামুন নামে আরো একজন জড়িত আছে। পুলিশ আটককৃতদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী আজ বৃহস্পতিবার দুপুর প্রায় ২টায় জেলার বুড়িচং উপজেলার ষোলনল ইউনিয়নের গোবিন্দপুর ঈদাগাহ এর পূর্ব-দক্ষিণ পাশে নির্জন একটি বাঁশঝাড়ের হাত বাঁধা ও গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় নিহত যুবকের লাশ উদ্ধার করে। নিহত তুষার শেখ গত ৬/৭ মাস পূর্বে পার্শ্ববর্তী এলাকায় বিয়ে করেন।

এ ঘটনায় সঙ্গে জড়িত মামুন প্রকাশ্যে মিন্টুকে (২৮) পুলিশ গ্রেপ্তার করে। সে হবিগঞ্জ জেলার আজমিরিগঞ্জ থানাধীন আজিমনগর গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ছেলে।

এ ব্যাপারে বুড়িচং থানার অফিসার ইনচার্জ মনোজ কুমার দে বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, হত্যার সঙ্গে জড়িত তিন আসামিকে কোতয়ালী থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। এ বিষয়ে বুড়িচং থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।