ঢাকা ০২:৫৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বৃষ্টি হলইে মুরাদনগর উপজেলা সাবরেজিষ্ট্রি সড়কে সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা

বেলাল উদ্দিন আহম্মদ, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

বৃষ্টি হলইে ভ্রু কুঁচকে যায় কুমিল্লা মুরাদনগর থানা ও নূরুন্নাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঝে অবস্থিত সাবরেজিষ্ট্রি সড়কটি দিয়ে যাতাতে করা লোকদের। কারণ বৃষ্টি হলইে এ সড়কটি জমে পানি। সামান্য বৃষ্টিতেই চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে রাস্তাটি। সড়কটি নিচু হওয়া  স্থায়ী জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। এ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিনই যাতায়ত করা হাজার হাজার মানুষ ও স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা মারাত্মকভাবে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। কিন্তু তা দেখার যেন কেউ নেই।

মুরাদনগর থানার দক্ষিন পাশে দেয়াল ঘেঁষা ও উপজেলা সদরের একমাত্র বালিকা বিদ্যালয় মুরাদনগর নূরুন্নাহার বালিকা বিদ্যালয় উত্তর পাশের দেয়া ঘেঁষা। দু’টি প্রতিষ্ঠানের মাঝ দিয়ে চলে গেছে সাবরেজিষ্ট্রি অফিসের সড়কটি। এতে রয়েছে বালিকা বিদ্যালয়ের রয়েছে প্রায় এক হাজার সাত শতাধিক শিক্ষার্থী। এর আশেপাশে রয়েছে আরো কয়েক হাজার লোকের বসবাস। এ রাস্তা দিয়ে আরো যাতায়ত করে মুরাদনগর ডি আর সরকারী হাই স্কুল, মুরাদনগর মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। সামান্য বৃষ্টিতেই হাটু সমান পানি জমে থাকে। বিশেষ করে মুরাদনগর নূরুন্নাহার বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রী ও সাবরেজিষ্ট্রি অফিসে যাতায়তকারীদের ভোগান্তির শেষ নেই। ছাত্রীদের বিদ্যালয়ে যাওয়া আসার সময় কাপড় চোপড় ভিজে যায়। ড্রেনেজ সিষ্টেম না থাকায় এ রাস্তার উপর পানি জমে থাকে। ভোগান্তির শিকার ছাত্র ছাত্রী ও এলাকার লোকজনের দাবী অচিরেই এ রাস্তাটি সংস্কার করে স্বস্থি ফিরিয়ে আনা হউক।

এ বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাসেলুল কাদের বলেন, বিষয়টি আমার জানেন না। তবে এ অবস্থা দেখে সংশ্লিষ্ট উপজেলা প্রকৌশলী ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করার নির্দেশ দেওয়া হবে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

বৃষ্টি হলইে মুরাদনগর উপজেলা সাবরেজিষ্ট্রি সড়কে সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা

আপডেট সময় ০৩:৫২:২৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ মার্চ ২০১৭
বেলাল উদ্দিন আহম্মদ, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

বৃষ্টি হলইে ভ্রু কুঁচকে যায় কুমিল্লা মুরাদনগর থানা ও নূরুন্নাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঝে অবস্থিত সাবরেজিষ্ট্রি সড়কটি দিয়ে যাতাতে করা লোকদের। কারণ বৃষ্টি হলইে এ সড়কটি জমে পানি। সামান্য বৃষ্টিতেই চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে রাস্তাটি। সড়কটি নিচু হওয়া  স্থায়ী জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। এ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিনই যাতায়ত করা হাজার হাজার মানুষ ও স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা মারাত্মকভাবে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। কিন্তু তা দেখার যেন কেউ নেই।

মুরাদনগর থানার দক্ষিন পাশে দেয়াল ঘেঁষা ও উপজেলা সদরের একমাত্র বালিকা বিদ্যালয় মুরাদনগর নূরুন্নাহার বালিকা বিদ্যালয় উত্তর পাশের দেয়া ঘেঁষা। দু’টি প্রতিষ্ঠানের মাঝ দিয়ে চলে গেছে সাবরেজিষ্ট্রি অফিসের সড়কটি। এতে রয়েছে বালিকা বিদ্যালয়ের রয়েছে প্রায় এক হাজার সাত শতাধিক শিক্ষার্থী। এর আশেপাশে রয়েছে আরো কয়েক হাজার লোকের বসবাস। এ রাস্তা দিয়ে আরো যাতায়ত করে মুরাদনগর ডি আর সরকারী হাই স্কুল, মুরাদনগর মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। সামান্য বৃষ্টিতেই হাটু সমান পানি জমে থাকে। বিশেষ করে মুরাদনগর নূরুন্নাহার বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রী ও সাবরেজিষ্ট্রি অফিসে যাতায়তকারীদের ভোগান্তির শেষ নেই। ছাত্রীদের বিদ্যালয়ে যাওয়া আসার সময় কাপড় চোপড় ভিজে যায়। ড্রেনেজ সিষ্টেম না থাকায় এ রাস্তার উপর পানি জমে থাকে। ভোগান্তির শিকার ছাত্র ছাত্রী ও এলাকার লোকজনের দাবী অচিরেই এ রাস্তাটি সংস্কার করে স্বস্থি ফিরিয়ে আনা হউক।

এ বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাসেলুল কাদের বলেন, বিষয়টি আমার জানেন না। তবে এ অবস্থা দেখে সংশ্লিষ্ট উপজেলা প্রকৌশলী ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করার নির্দেশ দেওয়া হবে।