ঢাকা ১২:১০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাঞ্ছারামপুরে স্কুলছাত্রী নিজের প্রাণ বিসর্জন দিয়ে ভাইয়ের মেয়েকে বাঁচালো!

ফয়সল আহমেদ খান, বাঞ্ছারামপুর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) থেকেঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে আজ সকালে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান দেখার জন্য রিক্সায় করে বড়ভাই ফজর আলীর মেয়ে আদিবাকে নিয়ে পৌর এলাকার বাশগাড়ি গ্রামের দিনমজুর হক মিয়ার ৮ম শ্রেনীতে পড়–য়া খাদিজা আক্তার নামে ছাত্রী অনুষ্ঠানস্থল আসার পথে ইট বোঝাই পাওয়ার ট্রিলারের চাপায় ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারায়।

রিক্সা চালক মোতালেব জানায় ইট বোঝাই পাওয়ার ট্রিলারটি আমার গাড়িকে ধাক্কা দিলে ছিটকে পড়ে যায় যাত্রী খাদিজা।তার কোলে ছিলো ছোট শিশু। ভাইয়ের মেয়ে।

খাদিজা ভাইয়ের মেয়েকে কোল থেকে ছিটকে দূরে ঠেলে দিলে সে নিজেই গাড়ির নীচে চাপা পড়ে।তার মাথায় সজোরে আঘাত করলে রক্তে ভেসে যায় রাস্তা।পথচারীরা দ্রুত বাঞ্ছারামপুর সদর হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক ছাত্রীটিকে মৃত ঘোষনা করে।

অন্যদিকে,বড়ভাইয়ের মেয়ে আদিবাকে, খাদিজা প্রাণে বাচালেও তার গালে বেশ বড় রকমের আঘাত লেগেছে বলে জানা গেছে। বাঞ্ছারামপুর হাসপাতালের চিকিৎসক এম্বুলেন্সে করে ঢাকায় পাঠায়।মেধাবী ছাত্রী খাদিজার অকাল মৃত্যূতে এলাকাসহ তার স্কুলে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

বাঞ্ছারামপুরে স্কুলছাত্রী নিজের প্রাণ বিসর্জন দিয়ে ভাইয়ের মেয়েকে বাঁচালো!

আপডেট সময় ০২:৫৫:১২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ মার্চ ২০১৮
ফয়সল আহমেদ খান, বাঞ্ছারামপুর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) থেকেঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে আজ সকালে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান দেখার জন্য রিক্সায় করে বড়ভাই ফজর আলীর মেয়ে আদিবাকে নিয়ে পৌর এলাকার বাশগাড়ি গ্রামের দিনমজুর হক মিয়ার ৮ম শ্রেনীতে পড়–য়া খাদিজা আক্তার নামে ছাত্রী অনুষ্ঠানস্থল আসার পথে ইট বোঝাই পাওয়ার ট্রিলারের চাপায় ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারায়।

রিক্সা চালক মোতালেব জানায় ইট বোঝাই পাওয়ার ট্রিলারটি আমার গাড়িকে ধাক্কা দিলে ছিটকে পড়ে যায় যাত্রী খাদিজা।তার কোলে ছিলো ছোট শিশু। ভাইয়ের মেয়ে।

খাদিজা ভাইয়ের মেয়েকে কোল থেকে ছিটকে দূরে ঠেলে দিলে সে নিজেই গাড়ির নীচে চাপা পড়ে।তার মাথায় সজোরে আঘাত করলে রক্তে ভেসে যায় রাস্তা।পথচারীরা দ্রুত বাঞ্ছারামপুর সদর হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক ছাত্রীটিকে মৃত ঘোষনা করে।

অন্যদিকে,বড়ভাইয়ের মেয়ে আদিবাকে, খাদিজা প্রাণে বাচালেও তার গালে বেশ বড় রকমের আঘাত লেগেছে বলে জানা গেছে। বাঞ্ছারামপুর হাসপাতালের চিকিৎসক এম্বুলেন্সে করে ঢাকায় পাঠায়।মেধাবী ছাত্রী খাদিজার অকাল মৃত্যূতে এলাকাসহ তার স্কুলে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।