ঢাকা ১১:১৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভারতের উত্তরাখণ্ড সীমান্তে চীন সেনার অনুপ্রবেশ

প্রবাস ডেস্কঃ
ভারতের উত্তরাখণ্ডের বারাহোটি সীমান্তে ৫০ জন চীনা সেনা অনুপ্রবেশ করেছিল বলে দাবি করেছে ভারতীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। গত ২৫ জুলাই সকাল ৯টায় প্রবেশ করে তারা দুই ঘণ্টা অবস্থান করে।
ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দাবি করে, উত্তরাখণ্ডে ভারত-চীন সীমান্তের বারাহোটির ১ কিলোমিটার পর্যন্ত অনুপ্রবেশ করে চীনা সেনারা। সেখানে তারা রাখালকে গরু নিয়ে সরে যেতে নির্দেশ দেয়। গত বছরের জুলাই মাসে এমন অনুপ্রবেশের ঘটনা ঘটেছে। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এমন অনুপ্রবেশের ঘটনা অনেক ঘটেছে কারণ দুই পক্ষের লাইন অব একচুয়াল কন্ট্রোল (ভারত-চীন সীমান্ত) সম্পর্কে ভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি রয়েছে।
চলতি বছর অবশ্য এমন এক সময়ে ঘটলো যখন সিকিম সীমান্তে গত এক মাস ধরে মুখোমুখি অবস্থানে আছে ভারত-চীন সেনাবাহিনী যা ১৯৬২ যুদ্ধের পরে সর্বোচ্চ। চীনের দাবি গত জুনে ভারত সেনাবাহিনী তাদের ডংলাং উপত্যকায় রাস্তা নির্মাণে বাধা দেয়। ভূটান এই উপত্যকাকে ডোকলাম বলে মনে করে এবং নিজস্ব ভূখণ্ডের অংশ দাবি করে। ভারতের দাবি এই উপত্যকায় চীনের রাস্তা নির্মাণ ভারতের জন্য গুরুতর নিরাপত্তা ঝুঁকি কারণ এতে চীন সরাসরি উত্তর পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশগুলোর সঙ্গে সংযোগস্থাপনকারী সংবেদনশীল ‘চিকেন নেক’ এলাকায় অনুপ্রবেশের সুযোগ পাবে।
বারাহোটিতে চীনা সেনা অনুপ্রবেশের দুই দিন পরে ভারতের নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল বেইজিং সফর করে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংসহ চীনা নেতৃত্বের সঙ্গে দেখা করেন। তার বৈঠকে এই বিষয়ে উত্তেজনা কমেনি বলেই মনে করা হচ্ছে। এনডিটিভি।
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

ভারতের উত্তরাখণ্ড সীমান্তে চীন সেনার অনুপ্রবেশ

আপডেট সময় ০১:৫৪:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩১ জুলাই ২০১৭
প্রবাস ডেস্কঃ
ভারতের উত্তরাখণ্ডের বারাহোটি সীমান্তে ৫০ জন চীনা সেনা অনুপ্রবেশ করেছিল বলে দাবি করেছে ভারতীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। গত ২৫ জুলাই সকাল ৯টায় প্রবেশ করে তারা দুই ঘণ্টা অবস্থান করে।
ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দাবি করে, উত্তরাখণ্ডে ভারত-চীন সীমান্তের বারাহোটির ১ কিলোমিটার পর্যন্ত অনুপ্রবেশ করে চীনা সেনারা। সেখানে তারা রাখালকে গরু নিয়ে সরে যেতে নির্দেশ দেয়। গত বছরের জুলাই মাসে এমন অনুপ্রবেশের ঘটনা ঘটেছে। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এমন অনুপ্রবেশের ঘটনা অনেক ঘটেছে কারণ দুই পক্ষের লাইন অব একচুয়াল কন্ট্রোল (ভারত-চীন সীমান্ত) সম্পর্কে ভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি রয়েছে।
চলতি বছর অবশ্য এমন এক সময়ে ঘটলো যখন সিকিম সীমান্তে গত এক মাস ধরে মুখোমুখি অবস্থানে আছে ভারত-চীন সেনাবাহিনী যা ১৯৬২ যুদ্ধের পরে সর্বোচ্চ। চীনের দাবি গত জুনে ভারত সেনাবাহিনী তাদের ডংলাং উপত্যকায় রাস্তা নির্মাণে বাধা দেয়। ভূটান এই উপত্যকাকে ডোকলাম বলে মনে করে এবং নিজস্ব ভূখণ্ডের অংশ দাবি করে। ভারতের দাবি এই উপত্যকায় চীনের রাস্তা নির্মাণ ভারতের জন্য গুরুতর নিরাপত্তা ঝুঁকি কারণ এতে চীন সরাসরি উত্তর পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশগুলোর সঙ্গে সংযোগস্থাপনকারী সংবেদনশীল ‘চিকেন নেক’ এলাকায় অনুপ্রবেশের সুযোগ পাবে।
বারাহোটিতে চীনা সেনা অনুপ্রবেশের দুই দিন পরে ভারতের নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল বেইজিং সফর করে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংসহ চীনা নেতৃত্বের সঙ্গে দেখা করেন। তার বৈঠকে এই বিষয়ে উত্তেজনা কমেনি বলেই মনে করা হচ্ছে। এনডিটিভি।