ঢাকা ০৭:০৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মারধর ও চুরির অভিযোগে ভিপি নুরসহ ২৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা

জাতীয় ডেস্ক:

মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীদের হত্যাচেষ্টার অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুরসহ ২৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। গতকাল বুধবার (২৫ ডিসেম্বর) রাতে শাহবাগ থানায় এই মামলা দায়ের করা হয়।

শাহবাগ থানার ডিউটি অফিসার এসআই জসীম উদ্দিন ইত্তেফাককে জানিয়েছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের ছাত্র সাব্বির হোসেন বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেছেন।

মামলায় অভিযোগে জানা যায়, ২৯ জন সহ আরও অজ্ঞাতনামা ২২ ডিসেম্বর দুপুর ১২টার সময় ১৫ থেকে ২০ জন লাঠি ও দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাতের ফলে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি আমিনুল ইসলামসহ ৮ জন গুরুতর জখম হন। এছাড়া তাদের মারপিটের সময় মানিব্যাগ, মোবাইল ও হাতঘড়ি ছিনিয়ে নেয় আসামিরা। এসময় গুরুতর আহত অবস্থায় অনেককে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করা হয়।

সাব্বিরের করা মারধর ও চুরির মামলায় অভিযুক্তরা হলেন- ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হাসান, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খান, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক এপিএম সোহেল, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মশিউর রহমান, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক আবু হানিফ, আমিনুল ইসলাম, তুহিন ফারাবী, মেহেদি হাসান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জমিস উদ্দিন হলের ছাত্র সালেহ উদ্দিন সিফাত, নাজমুল হাসান, আয়াতুল বেহেশতী, রবিউল হোসেন, আরিফুর রহমান। সাইফুল ইসলাম, আরিপুর রহমান।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগরে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

মারধর ও চুরির অভিযোগে ভিপি নুরসহ ২৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা

আপডেট সময় ০৭:২২:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০১৯

জাতীয় ডেস্ক:

মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীদের হত্যাচেষ্টার অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুরসহ ২৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। গতকাল বুধবার (২৫ ডিসেম্বর) রাতে শাহবাগ থানায় এই মামলা দায়ের করা হয়।

শাহবাগ থানার ডিউটি অফিসার এসআই জসীম উদ্দিন ইত্তেফাককে জানিয়েছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের ছাত্র সাব্বির হোসেন বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেছেন।

মামলায় অভিযোগে জানা যায়, ২৯ জন সহ আরও অজ্ঞাতনামা ২২ ডিসেম্বর দুপুর ১২টার সময় ১৫ থেকে ২০ জন লাঠি ও দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাতের ফলে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি আমিনুল ইসলামসহ ৮ জন গুরুতর জখম হন। এছাড়া তাদের মারপিটের সময় মানিব্যাগ, মোবাইল ও হাতঘড়ি ছিনিয়ে নেয় আসামিরা। এসময় গুরুতর আহত অবস্থায় অনেককে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করা হয়।

সাব্বিরের করা মারধর ও চুরির মামলায় অভিযুক্তরা হলেন- ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হাসান, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খান, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক এপিএম সোহেল, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মশিউর রহমান, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক আবু হানিফ, আমিনুল ইসলাম, তুহিন ফারাবী, মেহেদি হাসান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জমিস উদ্দিন হলের ছাত্র সালেহ উদ্দিন সিফাত, নাজমুল হাসান, আয়াতুল বেহেশতী, রবিউল হোসেন, আরিফুর রহমান। সাইফুল ইসলাম, আরিপুর রহমান।