ঢাকা ১১:০৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরের দৌলতপুর দরবার শরীফের ৬০’তম বার্ষিক মাহফিল

মো: হাবীবুর রহমান, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলার দৌলতপুর দরবার শরীফের ৬০’তম বার্ষিক ইছালে ছাওয়াব মাহফিল বৃহস্পতিবার সকালে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে।

দেশ ও জাতির ইহকাল ও পরকালীন কল্যাণ কামনা করে মোনজাত পরিচালনা করেন দরবার শরীফের পীর আলহাজ্ব মাওলানা ইয়াকুব আলী। বুধবার বাদ আছর থেকে শুরু হওয়া মাহফিলে অধ্যক্ষ মাওলানা নাইমুর রহমানের উপস্থাপনায় বয়ান করেন সউদী আরবের মাওলানা রফিকুল ইসলাম ফরাজী, নাগাইশ দরবার শরীফের পীর মাওলানা মোস্তাক আহমেদ ফয়েজী, মাওলানা তাজুল ইসলাম চাদপুরী, বি-বাড়িয়ার মাওলানা রমজান আলী আশেকী, গাজীপুরের মাওলানা আব্দুল গাফফার, কুমিল্লার মাওলানা নুরুল্লাহ আনোয়ারী, মাওলানা আব্দুল করিম মমিম, মাওলানা শরীফ হাবিবুর রহমান যুক্তিবাদী ও মাওলানা খলিলুর রহমান প্রমুখ।

আখেরী মোনাজাতে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের ঢল নামে। মহান আল্লাহরাব্বুল আলামীনের নৈকট্য লাভের আশায় প্রত্যন্ত এলাকা থেকে আল্লাহ ভীরু ও রাসূলপ্রেমিকগণ হাজির হন মাহফিলে। নিজের ও আহল আওলাদের গুনাহ খাতা মাফির জন্য এবং দেশ-জাতির ইহকাল ও পরকালীন সার্বিক কল্যাণ কামনা করে অনুষ্ঠিত আখেরী মুনাজাতে কান্নার রোল পড়ে যায়। আল্লাহ পাকের দরবারে মোনাজাতের কান্নাকাটি আর আল্লাহুম্মা আমিন আমিন ধ্বনিতে মাহফলি এলাকা এবং আশ-পাশের পরিবেশ ছিল লক্ষণীয়।

এ সময় দৌলতপুর দরবার এবং এর আশপাশের এলাকায় এক অভূতপূর্ব দৃশ্যের অবতারণা হয়। মোনাজাত চলাকালে মুসল্ল¬ীদের আমিন আমিন ধ্বনির মাধ্যমে বাংলাদেশ ও মুসলিম উম্মাহর শান্তি-সমৃদ্ধি কামনা করেন। এতে দরবারের আশিকীন, যাকেরীন, মুহিব্বীন ও খলিফাবৃন্দসহ দেশ-বিদেশের অসংখ্য ওলামায়ে কেরাম, দেশ-বরেণ্য পীর-মাশায়েখগণসহ সামাজিক ও বিভিন্ন পেশাজীবীর লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

মুরাদনগরের দৌলতপুর দরবার শরীফের ৬০’তম বার্ষিক মাহফিল

আপডেট সময় ০১:৫৬:২৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ ফেব্রুয়ারী ২০১৭
মো: হাবীবুর রহমান, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলার দৌলতপুর দরবার শরীফের ৬০’তম বার্ষিক ইছালে ছাওয়াব মাহফিল বৃহস্পতিবার সকালে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে।

দেশ ও জাতির ইহকাল ও পরকালীন কল্যাণ কামনা করে মোনজাত পরিচালনা করেন দরবার শরীফের পীর আলহাজ্ব মাওলানা ইয়াকুব আলী। বুধবার বাদ আছর থেকে শুরু হওয়া মাহফিলে অধ্যক্ষ মাওলানা নাইমুর রহমানের উপস্থাপনায় বয়ান করেন সউদী আরবের মাওলানা রফিকুল ইসলাম ফরাজী, নাগাইশ দরবার শরীফের পীর মাওলানা মোস্তাক আহমেদ ফয়েজী, মাওলানা তাজুল ইসলাম চাদপুরী, বি-বাড়িয়ার মাওলানা রমজান আলী আশেকী, গাজীপুরের মাওলানা আব্দুল গাফফার, কুমিল্লার মাওলানা নুরুল্লাহ আনোয়ারী, মাওলানা আব্দুল করিম মমিম, মাওলানা শরীফ হাবিবুর রহমান যুক্তিবাদী ও মাওলানা খলিলুর রহমান প্রমুখ।

আখেরী মোনাজাতে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের ঢল নামে। মহান আল্লাহরাব্বুল আলামীনের নৈকট্য লাভের আশায় প্রত্যন্ত এলাকা থেকে আল্লাহ ভীরু ও রাসূলপ্রেমিকগণ হাজির হন মাহফিলে। নিজের ও আহল আওলাদের গুনাহ খাতা মাফির জন্য এবং দেশ-জাতির ইহকাল ও পরকালীন সার্বিক কল্যাণ কামনা করে অনুষ্ঠিত আখেরী মুনাজাতে কান্নার রোল পড়ে যায়। আল্লাহ পাকের দরবারে মোনাজাতের কান্নাকাটি আর আল্লাহুম্মা আমিন আমিন ধ্বনিতে মাহফলি এলাকা এবং আশ-পাশের পরিবেশ ছিল লক্ষণীয়।

এ সময় দৌলতপুর দরবার এবং এর আশপাশের এলাকায় এক অভূতপূর্ব দৃশ্যের অবতারণা হয়। মোনাজাত চলাকালে মুসল্ল¬ীদের আমিন আমিন ধ্বনির মাধ্যমে বাংলাদেশ ও মুসলিম উম্মাহর শান্তি-সমৃদ্ধি কামনা করেন। এতে দরবারের আশিকীন, যাকেরীন, মুহিব্বীন ও খলিফাবৃন্দসহ দেশ-বিদেশের অসংখ্য ওলামায়ে কেরাম, দেশ-বরেণ্য পীর-মাশায়েখগণসহ সামাজিক ও বিভিন্ন পেশাজীবীর লোকজন উপস্থিত ছিলেন।