ঢাকা ১২:২৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে আল-আমিন বারীয়া দরবার শরীফের মাহফিল সম্পন্ন

শামীম আহাম্মদ, মুরাদনগর:

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার দারোরা ইউনিয়নের নোয়াকান্দি আল-আমিন বারীয়া দরবার শরীফের ৩৪তম বার্ষিক ইছালে ছাওয়াব মাহফিল আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে গতকাল সম্পন্ন হয়েছে। মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করেন দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীল আলহাজ¦ মাওলানা অলী উল্লাহ সুলতানী।

মাহফিলে বয়ান করেন চট্টগ্রামস্থ বারীয়া দরবার শরীফের পীরজাদা আল্লামা সৈয়দ আবুল মোকারম নুরুল ইসলাম, আল্লামা হাফেজ মুফতী মুহাম্মদ মাসউদ রিজভী, মাওলানা জয়নাল আবেদীন সিরাজী, মাওলানা কাজী মোস্তফা হোসাইন, মাওলানা মফিজুল ইসলাম, মাওলানা কারী আব্দুল কাদির।

অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন দারোরা ইউপি চেয়ারম্যান শাহাজাহান বিএসসি ও উপজেলা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি হাবিবুর রহমান প্রমুখ। আখেরী মোনাজাতে নিজের ও আহল আওলাদের গুনাহ খাতা মাফির জন্য এবং দেশ-জাতির ইহকালীন ও পরকালীন কল্যাণ কামনা করা হয়।

মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের নৈকট্য লাভের আশায় মোনাজাতে কান্নার রোল পড়ে যায়। মহান আল্লাহর দরবারে কান্নাকাটি আর আল্লাহুম্মা আমিন ধ্বনিতে মাহফলি ও আশ-পাশের এলাকার পরিবেশ ছিল লক্ষণীয়।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগরে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

মুরাদনগরে আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে আল-আমিন বারীয়া দরবার শরীফের মাহফিল সম্পন্ন

আপডেট সময় ০৫:১৪:৫৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৯

শামীম আহাম্মদ, মুরাদনগর:

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার দারোরা ইউনিয়নের নোয়াকান্দি আল-আমিন বারীয়া দরবার শরীফের ৩৪তম বার্ষিক ইছালে ছাওয়াব মাহফিল আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে গতকাল সম্পন্ন হয়েছে। মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করেন দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীল আলহাজ¦ মাওলানা অলী উল্লাহ সুলতানী।

মাহফিলে বয়ান করেন চট্টগ্রামস্থ বারীয়া দরবার শরীফের পীরজাদা আল্লামা সৈয়দ আবুল মোকারম নুরুল ইসলাম, আল্লামা হাফেজ মুফতী মুহাম্মদ মাসউদ রিজভী, মাওলানা জয়নাল আবেদীন সিরাজী, মাওলানা কাজী মোস্তফা হোসাইন, মাওলানা মফিজুল ইসলাম, মাওলানা কারী আব্দুল কাদির।

অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন দারোরা ইউপি চেয়ারম্যান শাহাজাহান বিএসসি ও উপজেলা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি হাবিবুর রহমান প্রমুখ। আখেরী মোনাজাতে নিজের ও আহল আওলাদের গুনাহ খাতা মাফির জন্য এবং দেশ-জাতির ইহকালীন ও পরকালীন কল্যাণ কামনা করা হয়।

মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের নৈকট্য লাভের আশায় মোনাজাতে কান্নার রোল পড়ে যায়। মহান আল্লাহর দরবারে কান্নাকাটি আর আল্লাহুম্মা আমিন ধ্বনিতে মাহফলি ও আশ-পাশের এলাকার পরিবেশ ছিল লক্ষণীয়।