ঢাকা ১০:১৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে ইয়াবা সম্মাট নয়ন মিয়া কারাগারে

মো: হাবীবুর রহমান, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

মাদক মামলার পলাতক আসামী কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নের ভবানীপুর গ্রামের ইয়াবা সম্রাট নয়ন মিয়াকে (৩৫) শুক্রবার বিকেলে কুমিল্লার কেন্দ্রিয় কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে ইয়াবা খাওয়া অবস্থায় পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছিল। তার গ্রেফতারের সংবাদে এলাকার যুবক শ্রেণির অভিভাবকদের মধ্যে স্বস্তি ফিরে আসে।

পুলিশ জানায়, কিছুদিন পুর্বে মোচাগড়া গ্রামের ইয়াবাহ বিক্রেতা আলম মিয়াকে ১৬৫ পিছ ইয়াবাসহ গ্রেফতার করে। পুলিশ আলম মিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদ কালে ইয়াবা ব্যবসায় অর্থ যোগান দেওয়ার অভিযোগে ওই মামলায় ভবানীপুর গ্রামের নয়ন মিয়াকে আসামী করা হয়। ওই ঘটনায় এসআই জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে মুরাদনগর থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনের বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়। মুরাদনগর থানার এসআই বিল্লাল হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ইয়াবা খাওয়া অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাতে ভবানীপুর গ্রাম থেকে ওই মাদক মামলার পলাতক আসামী নয়ন মিয়াকে গ্রেফতার করে। সে ওই গ্রামের মৃত খোরশিদ মিয়ার ছেলে। ইয়াবা ব্যবসায় অর্থ যোগান দেয়া ছাড়াও নয়ন মিয়ার বিরুদ্ধে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কয়েমসহ মাদক খেয়ে মাতলামী করার অভিযোগ রয়েছে পুলিশের হাতে। পুলিশ তাকে গ্রেফতার করার জন্য চেষ্টা করছিল। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে নয়ন মিয়া জানায়, মোচাগড়া গ্রামের আক্তার হোসেন মেম্বারের সহযোগিতায় সে ইয়াবা ব্যবসা করে আসছে।

মুরাদনগর থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম বদিউজ্জামান জানান, মাদকমুক্ত মুরাদনগর গড়ার লক্ষে নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে মাদক মামলার পলাতক আসামী নয়ন মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার সহযোগিদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এ ধরণের অভিযান প্রতিদিনই অব্যাহত থাকবে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

মুরাদনগরে ইয়াবা সম্মাট নয়ন মিয়া কারাগারে

আপডেট সময় ০২:৩৩:৪২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১০ মার্চ ২০১৭
মো: হাবীবুর রহমান, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

মাদক মামলার পলাতক আসামী কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নের ভবানীপুর গ্রামের ইয়াবা সম্রাট নয়ন মিয়াকে (৩৫) শুক্রবার বিকেলে কুমিল্লার কেন্দ্রিয় কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে ইয়াবা খাওয়া অবস্থায় পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছিল। তার গ্রেফতারের সংবাদে এলাকার যুবক শ্রেণির অভিভাবকদের মধ্যে স্বস্তি ফিরে আসে।

পুলিশ জানায়, কিছুদিন পুর্বে মোচাগড়া গ্রামের ইয়াবাহ বিক্রেতা আলম মিয়াকে ১৬৫ পিছ ইয়াবাসহ গ্রেফতার করে। পুলিশ আলম মিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদ কালে ইয়াবা ব্যবসায় অর্থ যোগান দেওয়ার অভিযোগে ওই মামলায় ভবানীপুর গ্রামের নয়ন মিয়াকে আসামী করা হয়। ওই ঘটনায় এসআই জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে মুরাদনগর থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনের বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়। মুরাদনগর থানার এসআই বিল্লাল হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ইয়াবা খাওয়া অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাতে ভবানীপুর গ্রাম থেকে ওই মাদক মামলার পলাতক আসামী নয়ন মিয়াকে গ্রেফতার করে। সে ওই গ্রামের মৃত খোরশিদ মিয়ার ছেলে। ইয়াবা ব্যবসায় অর্থ যোগান দেয়া ছাড়াও নয়ন মিয়ার বিরুদ্ধে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কয়েমসহ মাদক খেয়ে মাতলামী করার অভিযোগ রয়েছে পুলিশের হাতে। পুলিশ তাকে গ্রেফতার করার জন্য চেষ্টা করছিল। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে নয়ন মিয়া জানায়, মোচাগড়া গ্রামের আক্তার হোসেন মেম্বারের সহযোগিতায় সে ইয়াবা ব্যবসা করে আসছে।

মুরাদনগর থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম বদিউজ্জামান জানান, মাদকমুক্ত মুরাদনগর গড়ার লক্ষে নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে মাদক মামলার পলাতক আসামী নয়ন মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার সহযোগিদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এ ধরণের অভিযান প্রতিদিনই অব্যাহত থাকবে।