ঢাকা ০৩:৪২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে এক শিক্ষক পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

আবুল কালাম আজাদ ভূইয়া, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

রোজ বুধবার, ১৩ মে ২০১৫ ইং (মুরাদনগর বার্তা ডটকম):

মুরাদনগর উপজেলা সদরে অবস্থিত ডি,আর সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো: মোসলেহ্ উদ্দিনের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র মূলক নানান অপপ্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করে। গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় শিক্ষক মো: মোসলেহ্ উদ্দিনের মুরাদনগরস্থ বাসভবনে প্রথম স্ত্রী সাবেরা সুলতানা, ২য় স্ত্রী তামান্না আক্তার, বড়ভাই মাওলানা আলমগীর হোসেন, ছোট ভাই প্রফেসর গিয়াস উদ্দিনসহ তার পরিবারের সকল সদস্য বৃন্দের উপস্থিতে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত সম্মেলন শিক্ষক মো: মোসলেহ্ উদ্দিন বলেন তার প্রথম স্ত্রী সাবেরা সুলতানার অনুমতিক্রমে গত ৪ই মে ১৫ইং তারিখে নোয়াকান্দি গ্রামের দুলাল মিয়ার প্রথম কন্যা তামান্না আক্তার(১৯)’র সাথে পারিবারিক ভাবে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতে ও ধর্মীয় বিধি মোতাবেক দ্বিতীয় বারের মত বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। নিবন্ধন অনুযায়ী কন্যার জন্ম সাল ১৯৯৫ হলেও তার দ্বিতীয় স্ত্রী কিশোরী বলে একটি মহল তার বিরুদ্বে অপপ্রচার চালাচ্ছে যা অদৌ সত্য নয়।

তিনি আরও বলেন স্থানীয় প্রশাসন অনেক যাচাই করেও তামান্নাকে কিশোরী প্রমান করতে পারেনি।  পরে তাকে একটি রাজনৈতিক দলের কর্মী হিসেবে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে কুমিল্লা কারাগারে প্রেরন করেন। ৭ইমে ১৫ইং তারিখে তিনি জামিনে মুক্তি পান।

তিনি কোন রাজনৈতিক দলের কোন কর্মী নন জানিয়ে তিনি বলেন আমি সরকারী কর্মচারী আমি কোন রাজনৈতিক দলের কর্মী নই, আমি পূর্বেও কোন রাজনৈতিক দলের সাথে যুক্ত ছিলাম না এখনও নেই জানিয়ে তার বিরুদ্ধে সকল প্রকার ষড়যন্ত্র ও মিথ্যা অপপ্রচারের তীব্র প্রতিবাদ জানান।

ট্যাগস

মুরাদনগরে এক শিক্ষক পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

আপডেট সময় ০৮:৩৯:১১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৩ মে ২০১৫

আবুল কালাম আজাদ ভূইয়া, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

রোজ বুধবার, ১৩ মে ২০১৫ ইং (মুরাদনগর বার্তা ডটকম):

মুরাদনগর উপজেলা সদরে অবস্থিত ডি,আর সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো: মোসলেহ্ উদ্দিনের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র মূলক নানান অপপ্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করে। গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় শিক্ষক মো: মোসলেহ্ উদ্দিনের মুরাদনগরস্থ বাসভবনে প্রথম স্ত্রী সাবেরা সুলতানা, ২য় স্ত্রী তামান্না আক্তার, বড়ভাই মাওলানা আলমগীর হোসেন, ছোট ভাই প্রফেসর গিয়াস উদ্দিনসহ তার পরিবারের সকল সদস্য বৃন্দের উপস্থিতে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত সম্মেলন শিক্ষক মো: মোসলেহ্ উদ্দিন বলেন তার প্রথম স্ত্রী সাবেরা সুলতানার অনুমতিক্রমে গত ৪ই মে ১৫ইং তারিখে নোয়াকান্দি গ্রামের দুলাল মিয়ার প্রথম কন্যা তামান্না আক্তার(১৯)’র সাথে পারিবারিক ভাবে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতে ও ধর্মীয় বিধি মোতাবেক দ্বিতীয় বারের মত বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। নিবন্ধন অনুযায়ী কন্যার জন্ম সাল ১৯৯৫ হলেও তার দ্বিতীয় স্ত্রী কিশোরী বলে একটি মহল তার বিরুদ্বে অপপ্রচার চালাচ্ছে যা অদৌ সত্য নয়।

তিনি আরও বলেন স্থানীয় প্রশাসন অনেক যাচাই করেও তামান্নাকে কিশোরী প্রমান করতে পারেনি।  পরে তাকে একটি রাজনৈতিক দলের কর্মী হিসেবে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে কুমিল্লা কারাগারে প্রেরন করেন। ৭ইমে ১৫ইং তারিখে তিনি জামিনে মুক্তি পান।

তিনি কোন রাজনৈতিক দলের কোন কর্মী নন জানিয়ে তিনি বলেন আমি সরকারী কর্মচারী আমি কোন রাজনৈতিক দলের কর্মী নই, আমি পূর্বেও কোন রাজনৈতিক দলের সাথে যুক্ত ছিলাম না এখনও নেই জানিয়ে তার বিরুদ্ধে সকল প্রকার ষড়যন্ত্র ও মিথ্যা অপপ্রচারের তীব্র প্রতিবাদ জানান।