ঢাকা ০৯:৪১ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে কলেজ ছাত্রী সম্ভ্রম বাঁচাতে চলন্ত অটোরিক্সা থেকে ঝাঁপ

মাহবুব আলম আরিফ:

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলায় বখাটের কাছ থেকে নিজের সম্ভ্রম বাঁচাতে চলন্ত সিএনজি চালিত অটোরিক্সা থেকে এক কলেজ ছাত্রী ঝাঁপ দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় পুলিশ দুই যুবককে আটক করেছে।

বুধবার বিকেলে উপজেলার বাখরাবাদ-পান্নারপুল রোডের ধামঘর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আটককৃতরা উপজেলার দারোরা গ্রামের রেনু মিয়ার ছেলে ইসমাইল হোসেন(২৭) ও একই গ্রামের মৃত নায়েব আলীর ছেলে (সিএনজি চালক) মোবারক হোসেন(২৮)।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার দারোরা বাজার থেকে সিএনজি করে কলেজের উদ্দেশ্যে যাওয়ার পথে কৌশলে উঠে পরে বখাটে ইসমাইল। পরে বাখারাবাদ-পান্নারপুল রোডের ধামঘর এলাকায় চলন্ত সিএনজিতে ওই কলেজ ছাত্রীকে ইসমাইল নানা ভাবে যৌন হয়রানির শুরু করে। এক পর্যায় সম্ভ্রমহানির চেষ্টা করলে নিজেকে বাঁচাতে কলেজ ছাত্রী চলন্ত সিএনজি থেকে ঝাঁপ দেয়। এসময় উপস্থিত স্থানীয় লোকজন বখাটে ইসমাইল ও তার সহযোগী সিএনজি চালক মোবারক হোসেনকে আটকে রেখে মুরাদনগর থানায় খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুই জনকে আটক করে মুরাদনগর থানায় নিয়ে আসে। পরে আহত ওই কলেজ ছাত্রীকে মুরাদনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।

মুরাদনগর থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম মনজুর আলম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আটককৃত বখাটে ইসমাইল ও তার সহযোগী সিএনজি চালক মোবারক হোসেনকে বৃহস্পতিবার দুপুরে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুরাদনগরে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

মুরাদনগরে কলেজ ছাত্রী সম্ভ্রম বাঁচাতে চলন্ত অটোরিক্সা থেকে ঝাঁপ

আপডেট সময় ১১:২৫:০৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০

মাহবুব আলম আরিফ:

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলায় বখাটের কাছ থেকে নিজের সম্ভ্রম বাঁচাতে চলন্ত সিএনজি চালিত অটোরিক্সা থেকে এক কলেজ ছাত্রী ঝাঁপ দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় পুলিশ দুই যুবককে আটক করেছে।

বুধবার বিকেলে উপজেলার বাখরাবাদ-পান্নারপুল রোডের ধামঘর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আটককৃতরা উপজেলার দারোরা গ্রামের রেনু মিয়ার ছেলে ইসমাইল হোসেন(২৭) ও একই গ্রামের মৃত নায়েব আলীর ছেলে (সিএনজি চালক) মোবারক হোসেন(২৮)।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার দারোরা বাজার থেকে সিএনজি করে কলেজের উদ্দেশ্যে যাওয়ার পথে কৌশলে উঠে পরে বখাটে ইসমাইল। পরে বাখারাবাদ-পান্নারপুল রোডের ধামঘর এলাকায় চলন্ত সিএনজিতে ওই কলেজ ছাত্রীকে ইসমাইল নানা ভাবে যৌন হয়রানির শুরু করে। এক পর্যায় সম্ভ্রমহানির চেষ্টা করলে নিজেকে বাঁচাতে কলেজ ছাত্রী চলন্ত সিএনজি থেকে ঝাঁপ দেয়। এসময় উপস্থিত স্থানীয় লোকজন বখাটে ইসমাইল ও তার সহযোগী সিএনজি চালক মোবারক হোসেনকে আটকে রেখে মুরাদনগর থানায় খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুই জনকে আটক করে মুরাদনগর থানায় নিয়ে আসে। পরে আহত ওই কলেজ ছাত্রীকে মুরাদনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।

মুরাদনগর থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম মনজুর আলম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আটককৃত বখাটে ইসমাইল ও তার সহযোগী সিএনজি চালক মোবারক হোসেনকে বৃহস্পতিবার দুপুরে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।