ঢাকা ০৯:০৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে গান বাজানোকে কেন্দ্র করে হামলা ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ, নারীসহ আহত ৫

মো: নাজিম উদ্দিনঃ

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার জাহাপুর ইউনিয়নের দরিকান্দি গ্রামে বড় স্পীকারে গান বাজানোকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত বুধবার সন্ধ্যায় এই হামলার ঘটনা ঘটে। এঘটনায় ২নারীসহ ৫জন আহত হয়।

আহতরা হলেন, দরিকান্দি গ্রামের কামাল হোসেনের ছেলে মহিউদ্দিন, দিগীরপাড় গ্রামের আলমগীর হোসেনের স্ত্রী নাজমা বেগম ও তার দুই ছেলে তপু এবং মাহিন ও দরিকান্দি গ্রামের আলা উদ্দিনের স্ত্রী জাহানারা বেগম।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, মুরাদনগর উপজেলার জাহাপুর ইউনিয়নের দরিকান্দি গ্রামের শহিদ মিয়ার বাড়ীতে ৫ই সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সাউন্ডবক্স স্পীকারে উচ্চশব্দে গান বাজানোকে কেন্দ্র করে প্রতিবেশি কামাল মিয়ার ছেলে মহিউদ্দিনের সাথে শহিদ মিয়ার ছেলে পারভেজ ও মোস্তফার বাকবিতন্ডা হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে পারভেজ ও মোস্তফা মিলে মহিউদ্দিনকে মারধর করে। মারধরের ঘটনাটি স্থানীয়রা তাৎক্ষনিক মীমাংসা করে দিলেও এর জের ধরে পরদিন ৬ই সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় শহিদ মিয়ার ছেলে পারভেজ, মোস্তফা ও মুর্শিদ মিয়ার ছেলে মহিউদ্দিন, মোখলেছ ও রহিমের নেতৃত্বে ০৮/১০জনের একটি সন্ত্রাসীদল দেশীয় অস্ত্র নিয়ে কামাল মিয়ার বাড়ীতে হামলা চালায়। হামলাকারীরা কামাল মিয়ার ছেলে মহিউদ্দিনের মাথায় এবং নাজমা বেগমের শরীরে ও তপুর মাথায় ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। এসময় তাদের বাচাতে এসে মাহিন ও জাহানারা বেগম আহত হয়। হামলাকারীরা ঘরের বেড়া,দরজা ও জানালা ভাংচুর করে। এসময় নারীদেরকে শ্লীলতাহানি করা হয় বলেও অভিযোগে জানা যায়।

আহদের শোর-চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাদের উদ্ধার করে মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

মুরাদনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএম বদিউজ্জামান বলেন, হামলার ঘটনায় উভয়পক্ষই লিখিত ভাবে থানায় অভিযোগ করেছে। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

মুরাদনগরে গান বাজানোকে কেন্দ্র করে হামলা ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ, নারীসহ আহত ৫

আপডেট সময় ০৩:৪৯:৪৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭
মো: নাজিম উদ্দিনঃ

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার জাহাপুর ইউনিয়নের দরিকান্দি গ্রামে বড় স্পীকারে গান বাজানোকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত বুধবার সন্ধ্যায় এই হামলার ঘটনা ঘটে। এঘটনায় ২নারীসহ ৫জন আহত হয়।

আহতরা হলেন, দরিকান্দি গ্রামের কামাল হোসেনের ছেলে মহিউদ্দিন, দিগীরপাড় গ্রামের আলমগীর হোসেনের স্ত্রী নাজমা বেগম ও তার দুই ছেলে তপু এবং মাহিন ও দরিকান্দি গ্রামের আলা উদ্দিনের স্ত্রী জাহানারা বেগম।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, মুরাদনগর উপজেলার জাহাপুর ইউনিয়নের দরিকান্দি গ্রামের শহিদ মিয়ার বাড়ীতে ৫ই সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সাউন্ডবক্স স্পীকারে উচ্চশব্দে গান বাজানোকে কেন্দ্র করে প্রতিবেশি কামাল মিয়ার ছেলে মহিউদ্দিনের সাথে শহিদ মিয়ার ছেলে পারভেজ ও মোস্তফার বাকবিতন্ডা হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে পারভেজ ও মোস্তফা মিলে মহিউদ্দিনকে মারধর করে। মারধরের ঘটনাটি স্থানীয়রা তাৎক্ষনিক মীমাংসা করে দিলেও এর জের ধরে পরদিন ৬ই সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় শহিদ মিয়ার ছেলে পারভেজ, মোস্তফা ও মুর্শিদ মিয়ার ছেলে মহিউদ্দিন, মোখলেছ ও রহিমের নেতৃত্বে ০৮/১০জনের একটি সন্ত্রাসীদল দেশীয় অস্ত্র নিয়ে কামাল মিয়ার বাড়ীতে হামলা চালায়। হামলাকারীরা কামাল মিয়ার ছেলে মহিউদ্দিনের মাথায় এবং নাজমা বেগমের শরীরে ও তপুর মাথায় ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। এসময় তাদের বাচাতে এসে মাহিন ও জাহানারা বেগম আহত হয়। হামলাকারীরা ঘরের বেড়া,দরজা ও জানালা ভাংচুর করে। এসময় নারীদেরকে শ্লীলতাহানি করা হয় বলেও অভিযোগে জানা যায়।

আহদের শোর-চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাদের উদ্ধার করে মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

মুরাদনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএম বদিউজ্জামান বলেন, হামলার ঘটনায় উভয়পক্ষই লিখিত ভাবে থানায় অভিযোগ করেছে। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।