ঢাকা ০৮:১৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে গৃহবধুকে পাশবিক নির্যাতন

pc muradnagar comilla anika

মো: মোশাররফ হোসেন মনির, হোসেন মনিরঃ

০১ মে ২০১৫ ইং(মুরাদনগর বার্তা ডটকম):

মুরাদনগর উপজেলার আকাবপুর ইউনিয়নের কড়ইবাড়ী গ্রামে এক গৃহবধূকে পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
জানা যায়,বৃহস্পতিবার রাতে পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামীর অবর্তমানে কড়ইবাড়ী গ্রামের রাসেল মিঞার স্ত্রী আনিকা বেগম(২৭)কে শাশুড়ী ননদসহ স্বামীর বাড়ীর স্বজনরা মিলে পাশবিক নির্যাতন চালায়।

গৃহবধু আনিকা অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘদিন যাবত শশুর বাড়ির লোকজন তাকে অমানবিক নির্যাতন করে আসছিলো। সে জানায়, বৃহসপতিবার রাতে পুর্বের ন্যায় আমার শাশুড়ী রুবী বেগম ননদ রুমা আক্তার নানী শাশুড়ী রোকেয়া বেগম বেদড়ক লাঠি পেটা করে ও গরম লোহার রড দিয়ে ছেকা দিয়ে আমাকে গুরতর জখম করে। হামলায় ওই গৃহবধূ অচেতন হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ দিকে ওই গৃহবধুর স্বামীকে ১৫দিন আগে স্বামীর বাড়ীর স্বজনরা বাড়ী থেকে তুলে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ করা হয়।  দীর্ঘ ১৫দিন অতিবাহিত হলেও এখনো স্বামীর কোন সন্ধান পায়নি আনিকা। এনিয়ে ওই গৃহবধূ চরম শংকায় রয়েছে। এ ব্যাপারে আনিকা হামলায় জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা প্রস্তুতি নিচ্ছে।

মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  (ওসি) মিজানুনিুর রহমান জানান, থানায় কেহ লিখিত ভাবে অভিযোগ করেনি, অভিযোগ পেলে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ট্যাগস

মুরাদনগরে গৃহবধুকে পাশবিক নির্যাতন

আপডেট সময় ০৫:১৩:৩২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ মে ২০১৫

pc muradnagar comilla anika

মো: মোশাররফ হোসেন মনির, হোসেন মনিরঃ

০১ মে ২০১৫ ইং(মুরাদনগর বার্তা ডটকম):

মুরাদনগর উপজেলার আকাবপুর ইউনিয়নের কড়ইবাড়ী গ্রামে এক গৃহবধূকে পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
জানা যায়,বৃহস্পতিবার রাতে পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামীর অবর্তমানে কড়ইবাড়ী গ্রামের রাসেল মিঞার স্ত্রী আনিকা বেগম(২৭)কে শাশুড়ী ননদসহ স্বামীর বাড়ীর স্বজনরা মিলে পাশবিক নির্যাতন চালায়।

গৃহবধু আনিকা অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘদিন যাবত শশুর বাড়ির লোকজন তাকে অমানবিক নির্যাতন করে আসছিলো। সে জানায়, বৃহসপতিবার রাতে পুর্বের ন্যায় আমার শাশুড়ী রুবী বেগম ননদ রুমা আক্তার নানী শাশুড়ী রোকেয়া বেগম বেদড়ক লাঠি পেটা করে ও গরম লোহার রড দিয়ে ছেকা দিয়ে আমাকে গুরতর জখম করে। হামলায় ওই গৃহবধূ অচেতন হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ দিকে ওই গৃহবধুর স্বামীকে ১৫দিন আগে স্বামীর বাড়ীর স্বজনরা বাড়ী থেকে তুলে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ করা হয়।  দীর্ঘ ১৫দিন অতিবাহিত হলেও এখনো স্বামীর কোন সন্ধান পায়নি আনিকা। এনিয়ে ওই গৃহবধূ চরম শংকায় রয়েছে। এ ব্যাপারে আনিকা হামলায় জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা প্রস্তুতি নিচ্ছে।

মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  (ওসি) মিজানুনিুর রহমান জানান, থানায় কেহ লিখিত ভাবে অভিযোগ করেনি, অভিযোগ পেলে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।