ঢাকা ১০:৫৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টায় মামলা, স্বামী আটক

pc muradnagar, comilla copy

মো: মোশাররফ হোসেন মনিরঃ

রোজ শুক্রবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৫ ইং(মুরাদনগর বার্তা ডটকম)ঃ

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা ইউনয়নের শিমানারপাড় গ্রামে যৌতুক না দেওয়ায় সুমি আক্তার(২২) নামের গৃহবধুর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে হত্যার চেষ্টার ঘটনায় শুক্রবার দুপুরে মুরাদনগর থানায় একটি মামলা হয়েছে।

হত্যার চেষ্ঠার অভিযোগে পষন্ড স্বামী আলামিনকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে ঘটনার পরথেকে অন্য আসামীরা পলাতক রয়েছে।

দগ্ধ গৃহবধূ সুমি আক্তার (২২) ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে আই,সি,ইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই গৃহবধূর স্বামী আল-আমিনকে উপজেলার শিমানারপাড় গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার দুপুরে সুমির বাবা খোরশেদ আলম বাদি হয়ে ছয় জনের নাম উল্ল্যেখ করে হত্যার চেষ্ঠার অভিযোগে একটি মামলা করেন।
আসামীরা হলেন, স্বামী আল-আমীন(২৮), দেবর আশিক(১৮), শশুর নূরু মিয়া(৫৫), শাশুরি আয়শা বেগম(৫০), স্বামীর বোন মরিয়ম(৩৫) ও স্বামী মোস্তফা(৪০)।

বুধবার বাঙ্গরা ইউনিয়নের শিমানারপাড় গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

সুমির বাবা খোরশেদ আলম জানান, শশুর বাড়ির লোকেরা এর আগে বেশ কয়েকবার যতুকের জন্যন, আমার মেয়েকে মারধর করে। মেয়ের দিকে তাকিয়ে স্বামী বিদেশে যাওয়ার সময় পাচঁ লক্ষটাকা প্রধান করি। এর পর আরো টাকা দাবি করে। সেই টাকা নাদিতে পারায় আমার মেয়ের উপর এ পাশবিক নিয়ার্তন চালিয়ে হত্যা করার চেষ্ঠা করে।

মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: মিজানুর রহমান তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, স্বামী আল-আমিনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে শুক্রবার দুপুরে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। অন্য আসাীদের গ্রেফতারের অভিযান চলছে।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুরাদনগরে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

মুরাদনগরে গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টায় মামলা, স্বামী আটক

আপডেট সময় ০৯:৪২:২০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৫

pc muradnagar, comilla copy

মো: মোশাররফ হোসেন মনিরঃ

রোজ শুক্রবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৫ ইং(মুরাদনগর বার্তা ডটকম)ঃ

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা ইউনয়নের শিমানারপাড় গ্রামে যৌতুক না দেওয়ায় সুমি আক্তার(২২) নামের গৃহবধুর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে হত্যার চেষ্টার ঘটনায় শুক্রবার দুপুরে মুরাদনগর থানায় একটি মামলা হয়েছে।

হত্যার চেষ্ঠার অভিযোগে পষন্ড স্বামী আলামিনকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে ঘটনার পরথেকে অন্য আসামীরা পলাতক রয়েছে।

দগ্ধ গৃহবধূ সুমি আক্তার (২২) ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে আই,সি,ইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই গৃহবধূর স্বামী আল-আমিনকে উপজেলার শিমানারপাড় গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার দুপুরে সুমির বাবা খোরশেদ আলম বাদি হয়ে ছয় জনের নাম উল্ল্যেখ করে হত্যার চেষ্ঠার অভিযোগে একটি মামলা করেন।
আসামীরা হলেন, স্বামী আল-আমীন(২৮), দেবর আশিক(১৮), শশুর নূরু মিয়া(৫৫), শাশুরি আয়শা বেগম(৫০), স্বামীর বোন মরিয়ম(৩৫) ও স্বামী মোস্তফা(৪০)।

বুধবার বাঙ্গরা ইউনিয়নের শিমানারপাড় গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

সুমির বাবা খোরশেদ আলম জানান, শশুর বাড়ির লোকেরা এর আগে বেশ কয়েকবার যতুকের জন্যন, আমার মেয়েকে মারধর করে। মেয়ের দিকে তাকিয়ে স্বামী বিদেশে যাওয়ার সময় পাচঁ লক্ষটাকা প্রধান করি। এর পর আরো টাকা দাবি করে। সেই টাকা নাদিতে পারায় আমার মেয়ের উপর এ পাশবিক নিয়ার্তন চালিয়ে হত্যা করার চেষ্ঠা করে।

মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: মিজানুর রহমান তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, স্বামী আল-আমিনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে শুক্রবার দুপুরে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। অন্য আসাীদের গ্রেফতারের অভিযান চলছে।