ঢাকা ০২:০৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু

মো: মোশাররফ হোসেন মনিরঃ

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলায় শিউলি আক্তার (২০) নামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃতু হয়েছে।

মৃত্যু শিউলি আক্তার উপজেলার শ্রীকাইল ইউনিয়নের পিপড়িয়াকান্দার আবু নাছিরে স্ত্রী।

শুক্রবার ভোর সকালে পিপড়িয়াকান্দা স্বামীর বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রায় তিন বছর পূর্বে উপজেলার কামাল্লা ইউনিয়নের আসানপুর গ্রামের প্রবাসী আউয়াল মিয়ার মেয়ের সাথে পিপড়িয়াকান্দার শহিদ মেম্বারের ছেলে আবু নাছিরের সাথে বিয়ে হয়। এ তিন বছরে তাদের সংসারে এক বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। অনেক দিন থেকে স্বামী নেশা করে অনেক রাত্র করে বাড়ী ফেরা শুরু করে। এ বিষয়ে স্ত্রী শিউলি জানতে চাইলেই তা নিয়ে কথা কাটা কাটি হতো। এ বিষয়কে কেন্দ্র করে কিছু দিন পূর্ব থেকে শিউলির স্বামী ও শশুর বাড়ীর লোকেরা তাকে বিভিন্ন ভাবে নির্যাতন করে আসছিল।

শিউলির চাচা আবু হানিফ অভিযোগ করে বলেন, শিউলিকে শশুর বাড়িরর লোকেরাই তাকে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেওয়ার চেষ্ঠা করছে। শিশুলির ভোর সকালে মৃত্যু হলেও স্বামীর বাড়ীর লোকজন আমাদেও খবর দেয়নি। এই গ্রামের এক লোক সকাল ৯টায় আমাদেও খবর দেয়। শিউলির নাকে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। নাক দিয়ে রক্ত পরছে। তিনি আরো বলেন মামলার প্রস্তুতি চলছে।
এ বিষয়ে বাঙ্গরা বাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, এ বিষয়ে আমরা অবহিত নই। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

মুরাদনগরে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু

আপডেট সময় ০৩:৫৭:২৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৭
মো: মোশাররফ হোসেন মনিরঃ

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলায় শিউলি আক্তার (২০) নামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃতু হয়েছে।

মৃত্যু শিউলি আক্তার উপজেলার শ্রীকাইল ইউনিয়নের পিপড়িয়াকান্দার আবু নাছিরে স্ত্রী।

শুক্রবার ভোর সকালে পিপড়িয়াকান্দা স্বামীর বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রায় তিন বছর পূর্বে উপজেলার কামাল্লা ইউনিয়নের আসানপুর গ্রামের প্রবাসী আউয়াল মিয়ার মেয়ের সাথে পিপড়িয়াকান্দার শহিদ মেম্বারের ছেলে আবু নাছিরের সাথে বিয়ে হয়। এ তিন বছরে তাদের সংসারে এক বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। অনেক দিন থেকে স্বামী নেশা করে অনেক রাত্র করে বাড়ী ফেরা শুরু করে। এ বিষয়ে স্ত্রী শিউলি জানতে চাইলেই তা নিয়ে কথা কাটা কাটি হতো। এ বিষয়কে কেন্দ্র করে কিছু দিন পূর্ব থেকে শিউলির স্বামী ও শশুর বাড়ীর লোকেরা তাকে বিভিন্ন ভাবে নির্যাতন করে আসছিল।

শিউলির চাচা আবু হানিফ অভিযোগ করে বলেন, শিউলিকে শশুর বাড়িরর লোকেরাই তাকে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেওয়ার চেষ্ঠা করছে। শিশুলির ভোর সকালে মৃত্যু হলেও স্বামীর বাড়ীর লোকজন আমাদেও খবর দেয়নি। এই গ্রামের এক লোক সকাল ৯টায় আমাদেও খবর দেয়। শিউলির নাকে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। নাক দিয়ে রক্ত পরছে। তিনি আরো বলেন মামলার প্রস্তুতি চলছে।
এ বিষয়ে বাঙ্গরা বাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, এ বিষয়ে আমরা অবহিত নই। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।