ঢাকা ০৮:২০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে চাচার হাতে ভাতিজা খুন

মো: মোশাররফ হোসেন মনিরঃ

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানা এলাকায় জমি সংক্রান্ত জেরে চাচার হাতে ভাতিজা খুনের ঘটনার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় চাচা ও চাচিকে আটক করে বুধবার দুপুরে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রেরন করেছে বাঙ্গরা বাজার থানা পুলিশ।

নিহত ভাতিজা কাউছার (৫৩) উপজেলার  বলিঘর গ্রামের মৃত দারু মিয়ার ছেলে।

আটককৃতরা হলো, চাচা রুক্কু মিয়া (৫৫) ও চাচি ফিরোজা বেগম (৫৩)।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় চাচা-ভাতিজার মধ্যে জগরায় ভাতিজা আহত হলে বিকেলে চিকিৎসাদিন অবস্থায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

জানা যায, উপজেলার বলিঘর গ্রামে মঙ্গলবার সকালে জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটি হলে চাচা রুক্কু মিয়া সাবল দিয়ে ভাতিজা কাউছারের মাথায় আঘাত করে জখম করে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করালে চিকিৎসাদিন অবস্থায় মঙ্গলবার বিকেলেই তার মৃত্যু হয়।

পরে নিহতের মা পিয়ারা বেগম বাদী হয়ে রুক্কু মিয়াসহ তার স্ত্রী ও পাচঁ সন্তানের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করলে বাঙ্গরা বাজার থানার এসআই মৈা: আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাতে রুক্কু মিয়াসহ স্ত্রীকে আটক করে।

এ বিষয়ে বাঙ্গরাবাজার থানার (ওসি) মনোয়ার হোসেন জানান, অভিযোগের বিত্তিতে নিহতের চাচা ও চাচিকে আটক করে বুধবার দুপুরে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। অভিযোগক্তদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

মুরাদনগরে চাচার হাতে ভাতিজা খুন

আপডেট সময় ০২:২২:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ৪ অক্টোবর ২০১৭
মো: মোশাররফ হোসেন মনিরঃ

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানা এলাকায় জমি সংক্রান্ত জেরে চাচার হাতে ভাতিজা খুনের ঘটনার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় চাচা ও চাচিকে আটক করে বুধবার দুপুরে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রেরন করেছে বাঙ্গরা বাজার থানা পুলিশ।

নিহত ভাতিজা কাউছার (৫৩) উপজেলার  বলিঘর গ্রামের মৃত দারু মিয়ার ছেলে।

আটককৃতরা হলো, চাচা রুক্কু মিয়া (৫৫) ও চাচি ফিরোজা বেগম (৫৩)।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় চাচা-ভাতিজার মধ্যে জগরায় ভাতিজা আহত হলে বিকেলে চিকিৎসাদিন অবস্থায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

জানা যায, উপজেলার বলিঘর গ্রামে মঙ্গলবার সকালে জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটি হলে চাচা রুক্কু মিয়া সাবল দিয়ে ভাতিজা কাউছারের মাথায় আঘাত করে জখম করে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করালে চিকিৎসাদিন অবস্থায় মঙ্গলবার বিকেলেই তার মৃত্যু হয়।

পরে নিহতের মা পিয়ারা বেগম বাদী হয়ে রুক্কু মিয়াসহ তার স্ত্রী ও পাচঁ সন্তানের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করলে বাঙ্গরা বাজার থানার এসআই মৈা: আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাতে রুক্কু মিয়াসহ স্ত্রীকে আটক করে।

এ বিষয়ে বাঙ্গরাবাজার থানার (ওসি) মনোয়ার হোসেন জানান, অভিযোগের বিত্তিতে নিহতের চাচা ও চাচিকে আটক করে বুধবার দুপুরে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। অভিযোগক্তদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।