ঢাকা ০৭:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে ছাত্রলীগ কর্মী মৃত্যুর ঘটনায় শতাধিক ছাত্রদল নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

মো: হাবিবুর রহমান, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলায় টেন্ডার জমা নিয়ে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের সংঘর্ষে গুলির আগাতে ছাত্রলীগ কর্মী মৃত্যুর ঘটনায় ছাত্রদলের  শতাধিক নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টায় উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো: রুহুল আমীন বাদী হয়ে উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপ্পু, সাধারন সম্পাদক মো: সোহাগ খানঁ, কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রদলের সমাজকল্যান বিষয়ক সম্পাদক মো: রকিববিন হাছানসহ ১৫ জনের নাম উল্ল্যেখসহ অজ্ঞাত আরো ৮৫ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা করেন।

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো: রুহুল আমীন বলেন, ছাত্রদলের চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা  দীর্ঘ দিন থেকে নানা অপরাদ কর্মকান্ড করে আসছে। পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে কোন প্রকার প্রদক্ষে না নেওয়া তারা আজ বেপরোয়া হয়ে  ছাত্রলীগ ও যুবলীগের সাথে মিশে আমাদের এক কর্মীকে গুলি করে হত্যা করে। আমরা ছাত্রদলের আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। অন্যথায় উপজেলা ছাত্রলীগ বৃহত্তরর আন্দোলনের হুমকি প্রদান করেন।

এ দিকে আজ ছাত্রলীগ কর্মীর মরদেহ ময়না তদন্ত শেষে মেটংঘর নিজ গ্রামের নিজ বাড়িতে দাফন করা হয়েছে। এ সময় আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগসহ বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন|

এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, ছাত্রলীগ কর্মী হত্যার ঘটনায় জড়িতদের আটকে র‌্যাব ও পুলিশ যৌথ ভাবে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে। কাউকে ছাড় দেওয়া হবেনা।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

মুরাদনগরে ছাত্রলীগ কর্মী মৃত্যুর ঘটনায় শতাধিক ছাত্রদল নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

আপডেট সময় ০১:২৯:৪৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ জুন ২০১৬
মো: হাবিবুর রহমান, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলায় টেন্ডার জমা নিয়ে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের সংঘর্ষে গুলির আগাতে ছাত্রলীগ কর্মী মৃত্যুর ঘটনায় ছাত্রদলের  শতাধিক নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টায় উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো: রুহুল আমীন বাদী হয়ে উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপ্পু, সাধারন সম্পাদক মো: সোহাগ খানঁ, কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রদলের সমাজকল্যান বিষয়ক সম্পাদক মো: রকিববিন হাছানসহ ১৫ জনের নাম উল্ল্যেখসহ অজ্ঞাত আরো ৮৫ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা করেন।

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো: রুহুল আমীন বলেন, ছাত্রদলের চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা  দীর্ঘ দিন থেকে নানা অপরাদ কর্মকান্ড করে আসছে। পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে কোন প্রকার প্রদক্ষে না নেওয়া তারা আজ বেপরোয়া হয়ে  ছাত্রলীগ ও যুবলীগের সাথে মিশে আমাদের এক কর্মীকে গুলি করে হত্যা করে। আমরা ছাত্রদলের আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। অন্যথায় উপজেলা ছাত্রলীগ বৃহত্তরর আন্দোলনের হুমকি প্রদান করেন।

এ দিকে আজ ছাত্রলীগ কর্মীর মরদেহ ময়না তদন্ত শেষে মেটংঘর নিজ গ্রামের নিজ বাড়িতে দাফন করা হয়েছে। এ সময় আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগসহ বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন|

এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, ছাত্রলীগ কর্মী হত্যার ঘটনায় জড়িতদের আটকে র‌্যাব ও পুলিশ যৌথ ভাবে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে। কাউকে ছাড় দেওয়া হবেনা।