ঢাকা ১২:৫৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে জোড়া খুনের ঘটনায় ২ জনের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি:আরো ৩ জন কারাগারে

নাজিম উদ্দিন:

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলায় আলোচিত জোড়া হত্যাকান্ডের ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে ২দিনেরে রিমান্ড শেষে দুই আসামী আনিস মিয়া ও খোকন মিয়া। একই সাথে এ মামলার আরো তিন আসামী কুমিল্লার আদালতে আত্মসমর্পন করলে বিচারক তাদের কারাগারে প্রেরন করে।

রবিবার বিকেলে কুমিল্লার ৮নং আমলি আদালতের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিশেষ্ট্রটের বিচারক ফাহাদ বিন আমিন চৌধুরীরর কাছে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

আত্মসমর্পন কারিরা হলেন, উপজেলার রহিমপুর গ্রামের মৃত নব আলী ওরফে আড়াই মিয়ার ছেলে আলা উদ্দিন (৩৫), বাতেন মিয়ার ছেলে শাহআলম (৩২) ও রৌশন মিয়ার ছেলে আবু মুছা (২৭)।

জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার আটককৃত আসামী আনিস মিয়া ও খোকন মিয়াকে ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছিল। রিমান্ড থাকাকালে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তারা উক্ত ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে এবং ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেওয়ার ইচ্ছা পোষন করে রবিবার দুপুরে রিমান্ড শেষে আদালতে হাজির করা হলে আদালতে ২৬৪ ধারা জবানবন্দি প্রধান করে।

এ বিষয়টি মুরাদনগর থানার ওসি (তদন্ত) ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, আনিছ ও খোকনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হলে বিচারক ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। পলাতক অপর আসামীদের গ্রেফতার করার জন্য পুলিশ সর্বাত্মক চেষ্টা আব্যাহত আছে।

প্রসঙ্গত ১৮ এপ্রিল মঙ্গলবার রাতে আ’লীগের এক অংশের দু’গ্রুপের মধ্যে সংর্ঘষে কুপিয়ে আনিস ও ফারুক নামের দু’যুবককে কুপিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় একঅংশের নেতা ও ইউপি সদস্য আশ্ররাফুল ইসলাম বুধবার দুপুরে বাদী হয়ে কবির-আনিস গ্রুপের ২৯ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ২০/২৫ জনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেন।

 

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

মুরাদনগরে জোড়া খুনের ঘটনায় ২ জনের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি:আরো ৩ জন কারাগারে

আপডেট সময় ০৫:২৯:১১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৭
নাজিম উদ্দিন:

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলায় আলোচিত জোড়া হত্যাকান্ডের ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে ২দিনেরে রিমান্ড শেষে দুই আসামী আনিস মিয়া ও খোকন মিয়া। একই সাথে এ মামলার আরো তিন আসামী কুমিল্লার আদালতে আত্মসমর্পন করলে বিচারক তাদের কারাগারে প্রেরন করে।

রবিবার বিকেলে কুমিল্লার ৮নং আমলি আদালতের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিশেষ্ট্রটের বিচারক ফাহাদ বিন আমিন চৌধুরীরর কাছে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

আত্মসমর্পন কারিরা হলেন, উপজেলার রহিমপুর গ্রামের মৃত নব আলী ওরফে আড়াই মিয়ার ছেলে আলা উদ্দিন (৩৫), বাতেন মিয়ার ছেলে শাহআলম (৩২) ও রৌশন মিয়ার ছেলে আবু মুছা (২৭)।

জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার আটককৃত আসামী আনিস মিয়া ও খোকন মিয়াকে ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছিল। রিমান্ড থাকাকালে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তারা উক্ত ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে এবং ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেওয়ার ইচ্ছা পোষন করে রবিবার দুপুরে রিমান্ড শেষে আদালতে হাজির করা হলে আদালতে ২৬৪ ধারা জবানবন্দি প্রধান করে।

এ বিষয়টি মুরাদনগর থানার ওসি (তদন্ত) ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, আনিছ ও খোকনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হলে বিচারক ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। পলাতক অপর আসামীদের গ্রেফতার করার জন্য পুলিশ সর্বাত্মক চেষ্টা আব্যাহত আছে।

প্রসঙ্গত ১৮ এপ্রিল মঙ্গলবার রাতে আ’লীগের এক অংশের দু’গ্রুপের মধ্যে সংর্ঘষে কুপিয়ে আনিস ও ফারুক নামের দু’যুবককে কুপিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় একঅংশের নেতা ও ইউপি সদস্য আশ্ররাফুল ইসলাম বুধবার দুপুরে বাদী হয়ে কবির-আনিস গ্রুপের ২৯ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ২০/২৫ জনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেন।