ঢাকা ১২:০৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে গাছ কাটা নিয়ে বিরোধের জেরে কৃষককে পিটিয়ে হত্যা

মুরাদনগর বার্তা ডেস্কঃ
কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলায় গাছ কাটা নিয়ে বিরোধের জের ধরে কালন মিয়া(৪৮) নামে এক কৃষককে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা।

নিহত কালন মিয়া উপজেলার নবগঠিত বাঙ্গরা বাজার থানার মোখলেসপুর গ্রামের মৃত. আ: রশিদ মিয়ার ছেলে।

বুধবার বিকেলে মোখলেসপুর গ্রামে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, বিকেল ৩টার দিকে কালন মিয়ার ঘরের চালার উপর পড়ে থাকা গাছের ডাল কাটতে গেলে প্রতিবেশী আব্দুর রউফ মিয়ার ছেলে নূরে আলম (১৬), মেয়ে কল্পনা (১৮), শান্তনা (১৭) ও স্ত্রী পারভীন (৪০) বাধা দেন। এ সময় কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে কালন মিয়াকে লাঠিপেটা করে। এ সময় কালন মিয়ার মেয়ে নাজমা আক্তার (১৮) ও ছেলে মহসীন (১৬) এগিয়ে এলে তাদেরকেও পিটিয়ে মারাত্মক আহত করা হয়। এতে নাজমার ডান পা ভেঙ্গে যায়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক কালন মিয়াকে মৃত ঘোষণা করেন।

অপর আহত নাজমা ও তার ভাই মহসীনকে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে বাঙ্গরা বাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওমি) মনোয়ার হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

মুরাদনগরে গাছ কাটা নিয়ে বিরোধের জেরে কৃষককে পিটিয়ে হত্যা

আপডেট সময় ০৫:৩৮:৩০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২ অগাস্ট ২০১৭
মুরাদনগর বার্তা ডেস্কঃ
কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলায় গাছ কাটা নিয়ে বিরোধের জের ধরে কালন মিয়া(৪৮) নামে এক কৃষককে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা।

নিহত কালন মিয়া উপজেলার নবগঠিত বাঙ্গরা বাজার থানার মোখলেসপুর গ্রামের মৃত. আ: রশিদ মিয়ার ছেলে।

বুধবার বিকেলে মোখলেসপুর গ্রামে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, বিকেল ৩টার দিকে কালন মিয়ার ঘরের চালার উপর পড়ে থাকা গাছের ডাল কাটতে গেলে প্রতিবেশী আব্দুর রউফ মিয়ার ছেলে নূরে আলম (১৬), মেয়ে কল্পনা (১৮), শান্তনা (১৭) ও স্ত্রী পারভীন (৪০) বাধা দেন। এ সময় কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে কালন মিয়াকে লাঠিপেটা করে। এ সময় কালন মিয়ার মেয়ে নাজমা আক্তার (১৮) ও ছেলে মহসীন (১৬) এগিয়ে এলে তাদেরকেও পিটিয়ে মারাত্মক আহত করা হয়। এতে নাজমার ডান পা ভেঙ্গে যায়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক কালন মিয়াকে মৃত ঘোষণা করেন।

অপর আহত নাজমা ও তার ভাই মহসীনকে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে বাঙ্গরা বাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওমি) মনোয়ার হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মামলার প্রস্তুতি চলছে।