ঢাকা ০৬:৫২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে তাহমিনাকে ব্রাকের পূনর্বাসন সহায়তা প্রদান

মো. হাবিবুর রহমান, বিশেস প্রতিনিধিঃ

‘সকল হাত এক করি-নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধ করি’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচীর অংশ হিসেবে যৌতুকের দাবিতে অঙ্গহানির শিকার মুরাদনগর উপজেলার আন্দিকুট ইউনিয়নের ফুলঘর গ্রামের মৃত আব্দুল মোতালিবের মেয়ে তানজিনা আক্তার তাহমিনাকে বুধবার বিকেলে পূনর্বাসন সহায়তা হিসেবে গরু প্রদান করেছে ব্রাক।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মুরাদনগর থানার ওসি (তদন্ত) এ.কে.এম ফজলুল কাদের চৌধুরী, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মমিনুল হক, প্রেসক্লাবের সভাপতি হাবিবুর রহমান, দেলোয়ার হোসেন মেম্বার, স্বপ্না বেগম মেম্বার, ব্রাক শিক্ষা প্রোগ্রামের ম্যানেজার জাকির হোসেন, ম্যানেজার (যক্ষা) তৌহিদুজ্জামান, ম্যানেজার (এইচ.এন.পি.পি) আশরাফ হোসেন, এলাকা ব্যবস্থাপক (দাবি) আব্দুর রশিদ, কর্মসূচী সংগঠক নাজমা সুলতানা ও কর্মসূচী সংগঠক (স্বাস্থ্য) সাইফুজ্জামান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ৩ লক্ষ টাকা যৌতুকের জন্য স্বামী ও তার পরিবারের লোকজনেরা তানজিনা আক্তার তাহমিনাকে প্রায়ই অত্যাচার-নির্যাতন করতো। ২০১৫ সালের ২১ অক্টোবর সকালে হাত-পা বেধেঁ ধারালো অস্ত্র দিয়ে তানজিনা আক্তার তাহমিনার দু’টি কান কেটে অঙ্গহানি করে দেয়। বিষয়টি জানতে পেরে তানজিনা আক্তার তাহমিনাকে আইনী সহায়তাসহ তাকে স্বাবলম্বী করার উদ্যোগ নেয় ব্রাক।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

মুরাদনগরে তাহমিনাকে ব্রাকের পূনর্বাসন সহায়তা প্রদান

আপডেট সময় ০৫:৫২:০১ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬
মো. হাবিবুর রহমান, বিশেস প্রতিনিধিঃ

‘সকল হাত এক করি-নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধ করি’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচীর অংশ হিসেবে যৌতুকের দাবিতে অঙ্গহানির শিকার মুরাদনগর উপজেলার আন্দিকুট ইউনিয়নের ফুলঘর গ্রামের মৃত আব্দুল মোতালিবের মেয়ে তানজিনা আক্তার তাহমিনাকে বুধবার বিকেলে পূনর্বাসন সহায়তা হিসেবে গরু প্রদান করেছে ব্রাক।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মুরাদনগর থানার ওসি (তদন্ত) এ.কে.এম ফজলুল কাদের চৌধুরী, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মমিনুল হক, প্রেসক্লাবের সভাপতি হাবিবুর রহমান, দেলোয়ার হোসেন মেম্বার, স্বপ্না বেগম মেম্বার, ব্রাক শিক্ষা প্রোগ্রামের ম্যানেজার জাকির হোসেন, ম্যানেজার (যক্ষা) তৌহিদুজ্জামান, ম্যানেজার (এইচ.এন.পি.পি) আশরাফ হোসেন, এলাকা ব্যবস্থাপক (দাবি) আব্দুর রশিদ, কর্মসূচী সংগঠক নাজমা সুলতানা ও কর্মসূচী সংগঠক (স্বাস্থ্য) সাইফুজ্জামান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ৩ লক্ষ টাকা যৌতুকের জন্য স্বামী ও তার পরিবারের লোকজনেরা তানজিনা আক্তার তাহমিনাকে প্রায়ই অত্যাচার-নির্যাতন করতো। ২০১৫ সালের ২১ অক্টোবর সকালে হাত-পা বেধেঁ ধারালো অস্ত্র দিয়ে তানজিনা আক্তার তাহমিনার দু’টি কান কেটে অঙ্গহানি করে দেয়। বিষয়টি জানতে পেরে তানজিনা আক্তার তাহমিনাকে আইনী সহায়তাসহ তাকে স্বাবলম্বী করার উদ্যোগ নেয় ব্রাক।