ঢাকা ০৭:৩৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে দপ্তরী কাম প্রহরী নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ

মো: নাজিম উদ্দিন:

১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৫ ইং (মুরাদনগর বার্তা ডটকম):

মুরাদনগর উপজেলার চাপিতলা (উত্তর) সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী  কাম প্রহরী’র নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগের পরিপেক্ষিতে তদন্ত কমিটি তৈরী হলেও তদন্ত না করে নিয়োগ প্রক্রিয়াটি প্রশাসন বাতিল করায় জনমনে বিরুপ প্রতিক্রিয়ার সঞ্চয় হয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার চাপিতলা (উত্তর) সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে দপ্তরী কাম প্রহরী নিয়োগের জন্য গত বছরের ২৭ নভেম্বর বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এতে ৫টি আবেদনপত্র জমা পড়ে। নিয়োগ কার্যক্রম সম্পূর্ন  করার জন্য অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সুপ্রিয়া ভৌমিক, উপজেলা সহ:শিক্ষা অফিসার জান্নাতুল খুলদ ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রফিকুল ইসলামকে সভাপতি করে ৩ সদস্য বিশিষ্ট নিয়োগ কমিটি গঠন করেন উপজেলা শিক্ষা অফিস। কমিটি ৫টি আবেদনপত্র যাচাই-বাছাই শেষে মো:     শাহ আলম সরকারের আবেদন বিধি মোতাবেক না হওয়া ও অপর প্রার্থী মো:শাহ পরানের জাতীয়তা সনদ ইস্যুর তারিখ আবেদনপত্র জমাদানের শেষ দিনের পরে হওয়ায় ২টি আবেদনপত্র বাতিল করেন। নিয়োগ কমিটি বাছাইয়ে উত্তীর্ন হওয়া ৩টি আবেদনের রির্পোট তৈরী করে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবর জমা দেয়ার চেষ্টা করলেও কোন এক অজ্ঞাত কারনে সেই রির্পোটটি গ্রহন করছেন না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নিয়োগ প্রার্থী জানান, তারিখ জটিলতায় বাতিল হওয়া মো:শাহ পরানের আবেদনপত্রটি গ্রহন করার জন্য একটি প্রভাবশালী মহল উৎকোচের মাধ্যমে নিয়োগ প্রক্রিয়াটিকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেন।

এ ব্যাপারে চাপিতলা (উত্তর) সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সুপ্রিয়া ভৌমিক এর সত্যতা স্বীকার করে বলেন, একটি মহলের অপচেষ্টায় অত্র বিদ্যালয়ের নিয়োগ প্রক্রিয়াটির কোন অগ্রগতি হচ্ছে না।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এ, এন, এম মাহবুব আলম জানান,এ নিয়োগ প্রক্রিয়াটির অভিযোগের পরিপেক্ষিতে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত করে বিষয়টি দেখা হবে।এখন এ নিয়োগ প্রক্রিয়াটি বাতিল করা হয়েছে। নতুন পরিপত্র অনুযায়ী পুনরায় আবার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হবে।

ট্যাগস

মুরাদনগরে দপ্তরী কাম প্রহরী নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ

আপডেট সময় ০৮:২০:১২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

মো: নাজিম উদ্দিন:

১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৫ ইং (মুরাদনগর বার্তা ডটকম):

মুরাদনগর উপজেলার চাপিতলা (উত্তর) সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী  কাম প্রহরী’র নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগের পরিপেক্ষিতে তদন্ত কমিটি তৈরী হলেও তদন্ত না করে নিয়োগ প্রক্রিয়াটি প্রশাসন বাতিল করায় জনমনে বিরুপ প্রতিক্রিয়ার সঞ্চয় হয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার চাপিতলা (উত্তর) সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে দপ্তরী কাম প্রহরী নিয়োগের জন্য গত বছরের ২৭ নভেম্বর বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এতে ৫টি আবেদনপত্র জমা পড়ে। নিয়োগ কার্যক্রম সম্পূর্ন  করার জন্য অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সুপ্রিয়া ভৌমিক, উপজেলা সহ:শিক্ষা অফিসার জান্নাতুল খুলদ ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রফিকুল ইসলামকে সভাপতি করে ৩ সদস্য বিশিষ্ট নিয়োগ কমিটি গঠন করেন উপজেলা শিক্ষা অফিস। কমিটি ৫টি আবেদনপত্র যাচাই-বাছাই শেষে মো:     শাহ আলম সরকারের আবেদন বিধি মোতাবেক না হওয়া ও অপর প্রার্থী মো:শাহ পরানের জাতীয়তা সনদ ইস্যুর তারিখ আবেদনপত্র জমাদানের শেষ দিনের পরে হওয়ায় ২টি আবেদনপত্র বাতিল করেন। নিয়োগ কমিটি বাছাইয়ে উত্তীর্ন হওয়া ৩টি আবেদনের রির্পোট তৈরী করে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবর জমা দেয়ার চেষ্টা করলেও কোন এক অজ্ঞাত কারনে সেই রির্পোটটি গ্রহন করছেন না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নিয়োগ প্রার্থী জানান, তারিখ জটিলতায় বাতিল হওয়া মো:শাহ পরানের আবেদনপত্রটি গ্রহন করার জন্য একটি প্রভাবশালী মহল উৎকোচের মাধ্যমে নিয়োগ প্রক্রিয়াটিকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেন।

এ ব্যাপারে চাপিতলা (উত্তর) সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সুপ্রিয়া ভৌমিক এর সত্যতা স্বীকার করে বলেন, একটি মহলের অপচেষ্টায় অত্র বিদ্যালয়ের নিয়োগ প্রক্রিয়াটির কোন অগ্রগতি হচ্ছে না।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এ, এন, এম মাহবুব আলম জানান,এ নিয়োগ প্রক্রিয়াটির অভিযোগের পরিপেক্ষিতে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত করে বিষয়টি দেখা হবে।এখন এ নিয়োগ প্রক্রিয়াটি বাতিল করা হয়েছে। নতুন পরিপত্র অনুযায়ী পুনরায় আবার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হবে।