ঢাকা ১০:৩১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে দুর্ধর্ষ ডাকাতি, ৩০ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট

মো: নাজিম উদ্দিনঃ

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার জাহাপুর ইউনিয়নের সাতমোড়া ও শুশুন্ডা গ্রামের দু’বাড়ীতে শনিবার মধ্যরাতে দূধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এসময় সশস্ত্র ডাকাত দল নগদ টাকা, স্বর্নালঙ্কার, মোটরসাইকেলসহ প্রায় ৩০লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করেছে বলে জানা যায়।

স্থানীয় সুত্র জানায়, উপজেলার সাতমোড়া গ্রামের মৃত আবু মূছা সরকারের বাড়ীতে শনিবার দিবাগত রাত ১টায় দিকে সশস্ত্র ডাকাত দল আক্রমন করে ৩টি গেইট ভেঙ্গে বাড়ীর ভেতরে ডুকে আলমারির তালা ভেঙ্গে নগদ ২লক্ষ টাকা, ৩০ভরি স্বর্নালংকার ও ১টি মোটরসাইকেল লুট করে নিয়ে যায়। এসময় বাধা প্রধান করায় মহিলাদের মারধর করে ডাকাত দলের সদস্যরা।

এরপর ডাকাত দল হানা দেয় শুশুন্ডা গ্রামের এক প্রবাশীর বাড়ীতে।  সেখানে হানা দিয়ে ডাকাত দল নগদটাকা, স্বর্নালংকার ও প্রসাধনী সামগ্রীসহ ১০লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুটেনেয়।

এদিকে এলাকায় ডাকাতির প্রবণতা অত্যাধিক বেড়ে যাওয়ার স্থানীয়দের মধ্যে থানা পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন ওঠেছে। এর আগেও গত শুক্রবার রাতে জাহাপুর গ্রামে প্রায় ১০ বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

এব্যাপারে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, ডাকাতির খবর শুনে পুলিশ পাঠিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। এখনো লিখিত কোন অভিযোগ পাইনি। লিখিত অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুরাদনগরে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

মুরাদনগরে দুর্ধর্ষ ডাকাতি, ৩০ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট

আপডেট সময় ১১:৫৯:৫৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১২ জুন ২০১৬

মো: নাজিম উদ্দিনঃ

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার জাহাপুর ইউনিয়নের সাতমোড়া ও শুশুন্ডা গ্রামের দু’বাড়ীতে শনিবার মধ্যরাতে দূধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এসময় সশস্ত্র ডাকাত দল নগদ টাকা, স্বর্নালঙ্কার, মোটরসাইকেলসহ প্রায় ৩০লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করেছে বলে জানা যায়।

স্থানীয় সুত্র জানায়, উপজেলার সাতমোড়া গ্রামের মৃত আবু মূছা সরকারের বাড়ীতে শনিবার দিবাগত রাত ১টায় দিকে সশস্ত্র ডাকাত দল আক্রমন করে ৩টি গেইট ভেঙ্গে বাড়ীর ভেতরে ডুকে আলমারির তালা ভেঙ্গে নগদ ২লক্ষ টাকা, ৩০ভরি স্বর্নালংকার ও ১টি মোটরসাইকেল লুট করে নিয়ে যায়। এসময় বাধা প্রধান করায় মহিলাদের মারধর করে ডাকাত দলের সদস্যরা।

এরপর ডাকাত দল হানা দেয় শুশুন্ডা গ্রামের এক প্রবাশীর বাড়ীতে।  সেখানে হানা দিয়ে ডাকাত দল নগদটাকা, স্বর্নালংকার ও প্রসাধনী সামগ্রীসহ ১০লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুটেনেয়।

এদিকে এলাকায় ডাকাতির প্রবণতা অত্যাধিক বেড়ে যাওয়ার স্থানীয়দের মধ্যে থানা পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন ওঠেছে। এর আগেও গত শুক্রবার রাতে জাহাপুর গ্রামে প্রায় ১০ বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

এব্যাপারে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, ডাকাতির খবর শুনে পুলিশ পাঠিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। এখনো লিখিত কোন অভিযোগ পাইনি। লিখিত অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।