ঢাকা ১১:৩৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে পাওনা টাকা চাওয়ায় বাড়ী-ঘরে হামলা ও লুটপাট

মুরাদনগর বার্তা ডেস্কঃ

কুমিল্লার মুরাদনগরে হওলাদের পাওনা টাকা চাওয়ায় বাড়ী-ঘরে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ৩ জনকে পিটিয়ে আহত কওে সন্ত্রসীরা।

আহতরা হলেন, রুহুল আমিন, মোসা: নার্গিস আক্তার ও মোসা: লিজা আক্তার।

বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার নবীপুর পশ্চিম ইউনিয়নের শিবানীপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, শিবানীপুর গ্রামের মৃত বজলুর রহমানের ছেলে এরশাদুল করিমের কাছ থেকে ভাড়াটিয়া ও পাশবর্তী দেবীদ্বার উপজেলার সুবিল গ্রামের মৃত বজলু মিয়ার ছেলে রুহুল আমিন ২০১৩ সালে টাকা হাওলাদ নেয় সেই টাকা অনেক দিন থেকে না দেওয়ায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে রুহুল আমিনের ভারাটিয়া বাসায় গিয়ে এরশাদ তার পাওনা টাকা চাইলে টাকা না দিয়ে তাকে মারদর করে ও সাথে থাকা কর্মরত ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের বকেয়া কালেকশন করা টাকা লুটে নেয়। এ বিষয়ে মুরাদনগর থানায় অভিযোগ করার জন্য প্রস্তুতি নিলে এ সময় রুহুল আমিন, মনছুর মিয়া, জাহাঙ্গীর আলম, ইকবাল হোসেনের নেতৃত্বে ১৫/১৬ জনের একদল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বাড়ী ঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে নগদ অর্থ ও স্বর্নালংকার লুটপাট করে নিয়ে যায়। এ সময় পিটিয়ে ৩ জনকে আহত করে। আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

রুহুল আমিন বাদী হয়ে চার জনের নাম উল্লোখসহ অজ্ঞাতনা ১২ জনের বিরুদ্ধে শুক্রবার দুপুরে মুরাদনগর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুরাদনগরে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

মুরাদনগরে পাওনা টাকা চাওয়ায় বাড়ী-ঘরে হামলা ও লুটপাট

আপডেট সময় ০৯:৫২:২১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১ জুলাই ২০১৬
মুরাদনগর বার্তা ডেস্কঃ

কুমিল্লার মুরাদনগরে হওলাদের পাওনা টাকা চাওয়ায় বাড়ী-ঘরে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ৩ জনকে পিটিয়ে আহত কওে সন্ত্রসীরা।

আহতরা হলেন, রুহুল আমিন, মোসা: নার্গিস আক্তার ও মোসা: লিজা আক্তার।

বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার নবীপুর পশ্চিম ইউনিয়নের শিবানীপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, শিবানীপুর গ্রামের মৃত বজলুর রহমানের ছেলে এরশাদুল করিমের কাছ থেকে ভাড়াটিয়া ও পাশবর্তী দেবীদ্বার উপজেলার সুবিল গ্রামের মৃত বজলু মিয়ার ছেলে রুহুল আমিন ২০১৩ সালে টাকা হাওলাদ নেয় সেই টাকা অনেক দিন থেকে না দেওয়ায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে রুহুল আমিনের ভারাটিয়া বাসায় গিয়ে এরশাদ তার পাওনা টাকা চাইলে টাকা না দিয়ে তাকে মারদর করে ও সাথে থাকা কর্মরত ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের বকেয়া কালেকশন করা টাকা লুটে নেয়। এ বিষয়ে মুরাদনগর থানায় অভিযোগ করার জন্য প্রস্তুতি নিলে এ সময় রুহুল আমিন, মনছুর মিয়া, জাহাঙ্গীর আলম, ইকবাল হোসেনের নেতৃত্বে ১৫/১৬ জনের একদল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বাড়ী ঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে নগদ অর্থ ও স্বর্নালংকার লুটপাট করে নিয়ে যায়। এ সময় পিটিয়ে ৩ জনকে আহত করে। আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

রুহুল আমিন বাদী হয়ে চার জনের নাম উল্লোখসহ অজ্ঞাতনা ১২ জনের বিরুদ্ধে শুক্রবার দুপুরে মুরাদনগর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।