ঢাকা ১১:১৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে পাওনা টাকা দাবি করায় ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে জখম

আবুল খায়ের, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার মুরাদনগরে পাওনা টাকা দাবি করায় হাজী শামীম নামে এক ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে জখম করেছে সন্ত্রাসীরা। বুধবার দুপুরে উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানা এলাকার খামারগাও গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গুরুতর আহত ওই ব্যবসায়ীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়ে জড়িত এক সন্ত্রাসীকে আটক করেছে।

অভিযোগে জানা যায়, মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানা এলাকার খামারগাও গ্রামের ব্যবসায়ী মেসার্স মদিনা স্টোরের মালিক হাজী শামীম একই গ্রামের মিদন মিয়ার ছেলে কালুর কাছে পাওনা টাকা দাবি করে। আহত ওই ব্যবসায়ী জানান, বুধবার দুপুরে কালুর কাছে প্রায় ৩ বছর আগের বকেয়া ১৫ হাজার টাকা চাইলে সে ক্ষীপ্ত হয়ে উঠে। পরে কালু, একরাম, মামুন, সেলিম, দ্বীন ইসলামসহ একদল সন্ত্রাসী এসে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালায়। এ সময় সন্ত্রাসীরা আর কোন সময় টাকা চাইবিনা, এ টাকা আর দেয়া দেয়া হবেনা বলে রাম দা দিয়ে অকতর্কিত ভাবে আমাকে কুপিয়ে জখম করে। খবর পেয়ে বাঙ্গরা থানা পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায় এবং সন্ত্রাসী একরাম হোসেন কে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় স্থানীয় ব্যবসায়ীদৈর মাঝে চরম আতংক বিরাজ করছে।

বাঙ্গরা থানার ওসি মনোয়ার হোসেন বলেন, ব্যবসায়ীকে হামলার ঘটনায় জড়িতরা অত্যন্ত খারাপ প্রকৃতির লোক, একজনকে ঘটনাস্থল থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে বাকীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগরে পাওনা টাকা দাবি করায় ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে জখম

আপডেট সময় ০৭:১৯:২৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭
আবুল খায়ের, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার মুরাদনগরে পাওনা টাকা দাবি করায় হাজী শামীম নামে এক ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে জখম করেছে সন্ত্রাসীরা। বুধবার দুপুরে উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানা এলাকার খামারগাও গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গুরুতর আহত ওই ব্যবসায়ীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়ে জড়িত এক সন্ত্রাসীকে আটক করেছে।

অভিযোগে জানা যায়, মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানা এলাকার খামারগাও গ্রামের ব্যবসায়ী মেসার্স মদিনা স্টোরের মালিক হাজী শামীম একই গ্রামের মিদন মিয়ার ছেলে কালুর কাছে পাওনা টাকা দাবি করে। আহত ওই ব্যবসায়ী জানান, বুধবার দুপুরে কালুর কাছে প্রায় ৩ বছর আগের বকেয়া ১৫ হাজার টাকা চাইলে সে ক্ষীপ্ত হয়ে উঠে। পরে কালু, একরাম, মামুন, সেলিম, দ্বীন ইসলামসহ একদল সন্ত্রাসী এসে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালায়। এ সময় সন্ত্রাসীরা আর কোন সময় টাকা চাইবিনা, এ টাকা আর দেয়া দেয়া হবেনা বলে রাম দা দিয়ে অকতর্কিত ভাবে আমাকে কুপিয়ে জখম করে। খবর পেয়ে বাঙ্গরা থানা পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায় এবং সন্ত্রাসী একরাম হোসেন কে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় স্থানীয় ব্যবসায়ীদৈর মাঝে চরম আতংক বিরাজ করছে।

বাঙ্গরা থানার ওসি মনোয়ার হোসেন বলেন, ব্যবসায়ীকে হামলার ঘটনায় জড়িতরা অত্যন্ত খারাপ প্রকৃতির লোক, একজনকে ঘটনাস্থল থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে বাকীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।