ঢাকা ০৮:৪১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে পাওনা টাকা না দেওয়া বাড়ীঘরে হামলা ও ভাংচুড়

রায়হান চৌধুরী, স্টাফ রির্টা, মুরাদনগরঃ

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলায় পাওনা টাকা না দেওয়ায় বাড়ী-ঘরে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুড় ও লোটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় দুই জন আহত হয়েছে।

বুধবার দুপুরে উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নের মোচাগড়া দক্ষিন পাড়া এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, কালু মিয়ার স্ত্রী ছেনোয়ারা বেগম (৫০) ও সন্তান সুমন মিয়া (৩০)। আহত দুজন মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার মোচাগড়া দক্ষিন পাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল বারু মিয়ার ছেলে কালু মিয়া তার সন্তানকে বিদেশে পাঠানোর জন্য প্রায় তিন বছর পূর্বে পাশের বাড়ীর বারু মিযার ছেলে জহাঙ্গীর আলমের কাছে থকে ৮০ হাজার টাকা হাওলাদ নেয়। এর মধ্যে ২০ হাজার টাকা পরিশোদ করে কালু মিয়া। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে গ্রাম্য সাঁিলশে সিদ্ধান্ত হয় আগামী ১০ এপ্রিলের মধ্যে পরিশোধ কওে দেওয়ার। এ গ্রাম্য বৈঠকের সিদ্ধান্তকে না মেনে গত বুধবার দুপুরে জহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে ৮/১০ জনের একদল সন্ত্রাসী কালু মিয়ার বাড়ী-ঘর ভাংচুড় ও লুটপাট চালায়। এ সময় ছেনোয়ারা ও সুমনকে মারধর করে। এবং বাড়ীঘর আগুন দিয়ে জালিয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে যায়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে হাসপাতালা ভর্তি করা হয়।

এ বিষয়ে কালু মিয়া বাদী হয়ে মুরাদনগর থানায় এশটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে এসআই আবুল কাষেমের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘঁনার স্থল পরিদর্শন করে।

এ বিষয়ে অভিযোগের তদন্ত কর্মকর্তা ও মুরাদনগর থানার এসআই আবুল কাষেম জানান, এ বিষযটির এশটি অভিযোগ পেয়ে ঘটনার স্থল পরিদশৃন করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত শেষে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগরে পাওনা টাকা না দেওয়া বাড়ীঘরে হামলা ও ভাংচুড়

আপডেট সময় ১২:৩৯:২১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ মে ২০১৭
রায়হান চৌধুরী, স্টাফ রির্টা, মুরাদনগরঃ

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলায় পাওনা টাকা না দেওয়ায় বাড়ী-ঘরে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুড় ও লোটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় দুই জন আহত হয়েছে।

বুধবার দুপুরে উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নের মোচাগড়া দক্ষিন পাড়া এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, কালু মিয়ার স্ত্রী ছেনোয়ারা বেগম (৫০) ও সন্তান সুমন মিয়া (৩০)। আহত দুজন মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার মোচাগড়া দক্ষিন পাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল বারু মিয়ার ছেলে কালু মিয়া তার সন্তানকে বিদেশে পাঠানোর জন্য প্রায় তিন বছর পূর্বে পাশের বাড়ীর বারু মিযার ছেলে জহাঙ্গীর আলমের কাছে থকে ৮০ হাজার টাকা হাওলাদ নেয়। এর মধ্যে ২০ হাজার টাকা পরিশোদ করে কালু মিয়া। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে গ্রাম্য সাঁিলশে সিদ্ধান্ত হয় আগামী ১০ এপ্রিলের মধ্যে পরিশোধ কওে দেওয়ার। এ গ্রাম্য বৈঠকের সিদ্ধান্তকে না মেনে গত বুধবার দুপুরে জহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে ৮/১০ জনের একদল সন্ত্রাসী কালু মিয়ার বাড়ী-ঘর ভাংচুড় ও লুটপাট চালায়। এ সময় ছেনোয়ারা ও সুমনকে মারধর করে। এবং বাড়ীঘর আগুন দিয়ে জালিয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে যায়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে হাসপাতালা ভর্তি করা হয়।

এ বিষয়ে কালু মিয়া বাদী হয়ে মুরাদনগর থানায় এশটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে এসআই আবুল কাষেমের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘঁনার স্থল পরিদর্শন করে।

এ বিষয়ে অভিযোগের তদন্ত কর্মকর্তা ও মুরাদনগর থানার এসআই আবুল কাষেম জানান, এ বিষযটির এশটি অভিযোগ পেয়ে ঘটনার স্থল পরিদশৃন করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত শেষে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।