ঢাকা ০৮:২২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে প্রধানমন্ত্রী বরাবর শিক্ষকদের স্মারকলিপি প্রদান

মো: নাজিম উদ্দিনঃ

মাধ্যমিক শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয় করনের লক্ষ্যে মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও রামচন্দ্রপুর রামকান্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: তাজুল ইসলাম ও সাধারন সম্পাদক মোচাগড়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: শাহ আলম মিয়ার নেতৃত্বে শিক্ষক নেতৃবৃন্দরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে স্মারক লিপি দেন।

স্মারক লিপিতে শিক্ষকগন লিখেছেন, দেশে বেসরকারি এমপিও-ভুক্ত মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাড়ে তিন লক্ষের মতো শিক্ষক-কর্মচারী মাধ্যমিক স্কুল স্তরের প্রায় এককোটি শিক্ষার্থীর মধ্যে ৯৭% এর পাঠদানে নিয়োজিত। তাঁরা আন্তরিক ভাবে দায়িত্ব পালন করে আসার পরও চাকরীর নিরাপত্তা, মর্যাদা, ও অনৈতিকভাবে চড়ম বৈষম্য ও অবহেলার শিকার। শিক্ষকগণ আরো লিখেছেন, শুধু শিক্ষকরাই যে বৈষ্যম্যের শিকার তা নয়, শিক্ষার্থীরাও নানান ভাবে বৈষম্যের শিকার। সরকারী স্কুলের একজন শিক্ষার্থীর জন্য সরকারের আর্থিক ব্যয় ৬৭৯৮ টাকা আর বেসরকারি স্কুলের একজন শিক্ষার্থীর জন্য ব্যয় হয় ১৯৪৮ টাকা। স্বাধীন সার্বভৌম দেশে শিক্ষকগণ মাধ্যমিক শিক্ষা ব্যাবস্থা জাতীয় করণের মধ্য দিয়ে এই বৈষম্যে থেকে পরিত্রাণ চায়।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন,ঘোড়াশাল আবদুল করিম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: দেলোয়ার হোসেন, জাঙ্গাল বাদশা মিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহনাজ বেগম, যাত্রাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: শফিকুল ইসলাম, আকাব্বরের নেসা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাসনা বেগমসহ আরো বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকগন উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

মুরাদনগরে প্রধানমন্ত্রী বরাবর শিক্ষকদের স্মারকলিপি প্রদান

আপডেট সময় ০৭:৫৪:১৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১০ মার্চ ২০১৭
মো: নাজিম উদ্দিনঃ

মাধ্যমিক শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয় করনের লক্ষ্যে মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও রামচন্দ্রপুর রামকান্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: তাজুল ইসলাম ও সাধারন সম্পাদক মোচাগড়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: শাহ আলম মিয়ার নেতৃত্বে শিক্ষক নেতৃবৃন্দরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে স্মারক লিপি দেন।

স্মারক লিপিতে শিক্ষকগন লিখেছেন, দেশে বেসরকারি এমপিও-ভুক্ত মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাড়ে তিন লক্ষের মতো শিক্ষক-কর্মচারী মাধ্যমিক স্কুল স্তরের প্রায় এককোটি শিক্ষার্থীর মধ্যে ৯৭% এর পাঠদানে নিয়োজিত। তাঁরা আন্তরিক ভাবে দায়িত্ব পালন করে আসার পরও চাকরীর নিরাপত্তা, মর্যাদা, ও অনৈতিকভাবে চড়ম বৈষম্য ও অবহেলার শিকার। শিক্ষকগণ আরো লিখেছেন, শুধু শিক্ষকরাই যে বৈষ্যম্যের শিকার তা নয়, শিক্ষার্থীরাও নানান ভাবে বৈষম্যের শিকার। সরকারী স্কুলের একজন শিক্ষার্থীর জন্য সরকারের আর্থিক ব্যয় ৬৭৯৮ টাকা আর বেসরকারি স্কুলের একজন শিক্ষার্থীর জন্য ব্যয় হয় ১৯৪৮ টাকা। স্বাধীন সার্বভৌম দেশে শিক্ষকগণ মাধ্যমিক শিক্ষা ব্যাবস্থা জাতীয় করণের মধ্য দিয়ে এই বৈষম্যে থেকে পরিত্রাণ চায়।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন,ঘোড়াশাল আবদুল করিম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: দেলোয়ার হোসেন, জাঙ্গাল বাদশা মিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহনাজ বেগম, যাত্রাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: শফিকুল ইসলাম, আকাব্বরের নেসা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাসনা বেগমসহ আরো বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকগন উপস্থিত ছিলেন।