ঢাকা ১০:৫৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে বিএনপির অর্ধশত নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

মো: মোশাররফ হোসেন মনিরঃ
 রোজ ০৯ জানুয়ারী ২০১৬ইং(মুরাদনগর বার্তা ডটকম):
কুমিল্লার মুরাদনগরে বিএনপিসহ বিরোধী নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে নতুন আরো একটি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার জামায়াতের হরতালের রাতে মুরাদনগর থানার এসআই জীবন চন্দ্র হাজারী বাদী হয়ে ২৮ নেতা-কর্মীর নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো ২৫/৩০ জনের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক আইনে মামলা করে পুলিশ।
সরেজমিনে গিয়ে যানা যায়, পুলিশ মুরাদনগর উপজেলা সদরের দক্ষিণ পাড়ায় মুরাদনগর-হোমনা রোডে লাঠিসোটা আগুন-ভাংচুরসহ যে ঘটনার উল্লেখ করে যে মামলা দায়ের করেছে, আদৌ সে ধরনের কোন ঘটনা সেদিন ঘটেনি। বিরোধী কর্মীদের হয়রানি করতেই এ মামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
মামলার আসামীরা হলেন, হাফেজ মোহাম্মদ আলী, মাহমুদুল হাসান, মাসুদ, ওমর আলী, ইলিয়াছ, সিরাজ মিয়া, নায়েব আলী, তকদির হোসেন, এনামুল, মায়নাজ, ইব্রাহীম, কবির, সোহেল, কাউসার, আউয়াল মাস্টার, ফারুক, রমিজ উদ্দিন, মাওলানা আউয়াল, ইকবাল, আবুল কাশেম মাস্টারসহ আরো অনেকে।
অভিযুক্ত একজন জানিয়েছেন, মুরাদনগরে ক্ষমতাসীনদলের আয়োজনে একটি দাওয়াত অনুষ্ঠান রয়েছে। এ অনুষ্ঠানে বেশি লোক জড়ো করতে কিছুদিন ধরেই বিরোধী নেতা-কর্মীদের হুমকি-ধামকি দেয়া হচ্ছে। পুলিশও গ্রামে গ্রামে গিয়ে ভয় দেখাচ্ছে। আয়োজকরা বলছে, যারা দাওয়াতে অংশ নেবে না, তাদের চিহ্নিত করা হবে। আর এজন্যই কাল্পনিক, বানোয়াট একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার আসামীদের অনেকেই সরাসরি রাজনীতির সাথেই জড়িত নন। গত একবছরে মুরাদনগরে বিরোধী নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজিসহ নানা অভিযোগে ১০/১২টি রাজনৈতিক মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। স্থানীয় এক নেতা বলেছেন, মুরাদনগর এখন বানোয়াট মামলার স্বর্গরাজ্য। এসব মামলাকে কেন্দ্র করে বাণিজ্য করার পাশাপাশি মামলা থেকে মুক্তি পেতে চাইলে স্থানীয় ক্ষমতাধর একজনের সাথে দেখা করার কথাও পুলিশের তরফ থেকে বলা হয় বলে অভিযোগ করেন তিনি।
এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, মামলাটির বিষয়ে তদন্ত চলছে, তদন্ত করে অভিযোক্তদের গ্রেফতার করা হবে।
ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

মুরাদনগর বাবুটিপাড়া ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতির ইন্তেকাল

মুরাদনগরে বিএনপির অর্ধশত নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

আপডেট সময় ০৬:২৫:৫০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৮ জানুয়ারী ২০১৬
মো: মোশাররফ হোসেন মনিরঃ
 রোজ ০৯ জানুয়ারী ২০১৬ইং(মুরাদনগর বার্তা ডটকম):
কুমিল্লার মুরাদনগরে বিএনপিসহ বিরোধী নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে নতুন আরো একটি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার জামায়াতের হরতালের রাতে মুরাদনগর থানার এসআই জীবন চন্দ্র হাজারী বাদী হয়ে ২৮ নেতা-কর্মীর নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো ২৫/৩০ জনের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক আইনে মামলা করে পুলিশ।
সরেজমিনে গিয়ে যানা যায়, পুলিশ মুরাদনগর উপজেলা সদরের দক্ষিণ পাড়ায় মুরাদনগর-হোমনা রোডে লাঠিসোটা আগুন-ভাংচুরসহ যে ঘটনার উল্লেখ করে যে মামলা দায়ের করেছে, আদৌ সে ধরনের কোন ঘটনা সেদিন ঘটেনি। বিরোধী কর্মীদের হয়রানি করতেই এ মামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
মামলার আসামীরা হলেন, হাফেজ মোহাম্মদ আলী, মাহমুদুল হাসান, মাসুদ, ওমর আলী, ইলিয়াছ, সিরাজ মিয়া, নায়েব আলী, তকদির হোসেন, এনামুল, মায়নাজ, ইব্রাহীম, কবির, সোহেল, কাউসার, আউয়াল মাস্টার, ফারুক, রমিজ উদ্দিন, মাওলানা আউয়াল, ইকবাল, আবুল কাশেম মাস্টারসহ আরো অনেকে।
অভিযুক্ত একজন জানিয়েছেন, মুরাদনগরে ক্ষমতাসীনদলের আয়োজনে একটি দাওয়াত অনুষ্ঠান রয়েছে। এ অনুষ্ঠানে বেশি লোক জড়ো করতে কিছুদিন ধরেই বিরোধী নেতা-কর্মীদের হুমকি-ধামকি দেয়া হচ্ছে। পুলিশও গ্রামে গ্রামে গিয়ে ভয় দেখাচ্ছে। আয়োজকরা বলছে, যারা দাওয়াতে অংশ নেবে না, তাদের চিহ্নিত করা হবে। আর এজন্যই কাল্পনিক, বানোয়াট একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার আসামীদের অনেকেই সরাসরি রাজনীতির সাথেই জড়িত নন। গত একবছরে মুরাদনগরে বিরোধী নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজিসহ নানা অভিযোগে ১০/১২টি রাজনৈতিক মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। স্থানীয় এক নেতা বলেছেন, মুরাদনগর এখন বানোয়াট মামলার স্বর্গরাজ্য। এসব মামলাকে কেন্দ্র করে বাণিজ্য করার পাশাপাশি মামলা থেকে মুক্তি পেতে চাইলে স্থানীয় ক্ষমতাধর একজনের সাথে দেখা করার কথাও পুলিশের তরফ থেকে বলা হয় বলে অভিযোগ করেন তিনি।
এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, মামলাটির বিষয়ে তদন্ত চলছে, তদন্ত করে অভিযোক্তদের গ্রেফতার করা হবে।