ঢাকা ১১:২৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে মাদক ব্যবসায়ী সাজিয়ে পুলিশে দেওয়ার পায়তারার অভিযোগ

মো: আবুল খায়ের, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলার কামাল্লা গ্রামে জমি দখলের উদ্দেশ্যে আরমান হোসেন নামের ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট ইঞ্জিনিয়ারিং টেকনোলজিতে (এনআইইটি) বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়–য়া এক ছাত্রকে মাদক ব্যবসায়ী বানিয়ে পুলিশে সোপর্দের পায়তারা চলছে এমন অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় প্রভাবশালী একটি চক্রের বিরুদ্ধে।

সে নিজ গ্রামের মাদক ও অস্ত্র বিক্রেতা বলে তার বাড়িঘর ভাংচুর করা হয় বলে অভিযোগ করেন ওই ছাত্র। এদিকে ওই ছাত্রের মা নাসিমা বেগম বাদী হযে ছেলেকে রক্ষার জন্য ও বাড়িঘর ভাংচুরের ঘটনায় শনিবার রাতে মুরাদনগর থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

অভিযোগে জানা যায়, মুরাদনগর উপজেলার কামাল্লা গ্রামের আবুল বাসার মুন্সির ছেলে আরমান হোসেন ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট ইঞ্জিনিয়ারিং টেকনোলজিতে অধ্যয়ন করছেন। সম্প্রতি ওই শিক্ষার্থীর পরিবারের কিছু সম্পত্তি বেদখলের লক্ষ্যে বেশ কয়েকটি মামলার আসামী আক্তার হোসেন মুন্সি ও মেহেদি হাসান ও মেজবাহ উদ্দিনের নেতৃত্বে একটি চক্র নানাভাবে পায়তারা করে আসছে। এরই মধ্যে গত ৩১ জানুয়ারি আরমানের ঘরে কিছু ইয়াবা  রেখে কামাল্লা গ্রামে বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ একজন মাদক ব্যবসায়ী অবস্থান করছে বলে কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশকে খবর দেয় ওই চক্রটি। এতে ডিবির এসআই আশিকুর রহমান এলাকায় গিয়ে ওই ছাত্রকে আটক করলেও পরোক্ষনে ঘটনাটি সাজানো নাটক জানতে পেরে ওই ছাত্রকে ছেড়ে দেয়।
আরমান হোসেন অভিযোগ করে জানান, ডিবি পুলিশ চলে যাওয়ার পর ওই চক্রটি তার বাড়ি-ঘরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুরসহ লুটপাট করে স্থানীয় ঐ চক্রটি। বর্তমানে ওই চক্রটি মাদক ও অস্ত্র বিক্রেতা বানিয়ে তাকে হয়রানীর চেষ্টা করছে বলেও অভিযোগ করা হয়।

এ ঘটনায় শনিবার রাতে ওই শিক্ষার্থীর মা নাসিমা আক্তার বাদী হয়ে মুরাদনগর থানায় ৩ জন এজহার নামীয়সহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে।

ডিবি’র এসআই আশিকুর রহমান জানান, ইয়াবা রেখে মিথ্যা খবর দিয়ে আরমান হোসেন নামে এক ছাত্রকে ধরিয়ে দিতে চেয়েছিল একটি চক্র। বর্তমানে ওই চক্রটিকে আটক করার জন্য চেষ্টা চলছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

মুরাদনগরে মাদক ব্যবসায়ী সাজিয়ে পুলিশে দেওয়ার পায়তারার অভিযোগ

আপডেট সময় ০২:৫৫:০০ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৭
মো: আবুল খায়ের, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলার কামাল্লা গ্রামে জমি দখলের উদ্দেশ্যে আরমান হোসেন নামের ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট ইঞ্জিনিয়ারিং টেকনোলজিতে (এনআইইটি) বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়–য়া এক ছাত্রকে মাদক ব্যবসায়ী বানিয়ে পুলিশে সোপর্দের পায়তারা চলছে এমন অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় প্রভাবশালী একটি চক্রের বিরুদ্ধে।

সে নিজ গ্রামের মাদক ও অস্ত্র বিক্রেতা বলে তার বাড়িঘর ভাংচুর করা হয় বলে অভিযোগ করেন ওই ছাত্র। এদিকে ওই ছাত্রের মা নাসিমা বেগম বাদী হযে ছেলেকে রক্ষার জন্য ও বাড়িঘর ভাংচুরের ঘটনায় শনিবার রাতে মুরাদনগর থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

অভিযোগে জানা যায়, মুরাদনগর উপজেলার কামাল্লা গ্রামের আবুল বাসার মুন্সির ছেলে আরমান হোসেন ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট ইঞ্জিনিয়ারিং টেকনোলজিতে অধ্যয়ন করছেন। সম্প্রতি ওই শিক্ষার্থীর পরিবারের কিছু সম্পত্তি বেদখলের লক্ষ্যে বেশ কয়েকটি মামলার আসামী আক্তার হোসেন মুন্সি ও মেহেদি হাসান ও মেজবাহ উদ্দিনের নেতৃত্বে একটি চক্র নানাভাবে পায়তারা করে আসছে। এরই মধ্যে গত ৩১ জানুয়ারি আরমানের ঘরে কিছু ইয়াবা  রেখে কামাল্লা গ্রামে বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ একজন মাদক ব্যবসায়ী অবস্থান করছে বলে কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশকে খবর দেয় ওই চক্রটি। এতে ডিবির এসআই আশিকুর রহমান এলাকায় গিয়ে ওই ছাত্রকে আটক করলেও পরোক্ষনে ঘটনাটি সাজানো নাটক জানতে পেরে ওই ছাত্রকে ছেড়ে দেয়।
আরমান হোসেন অভিযোগ করে জানান, ডিবি পুলিশ চলে যাওয়ার পর ওই চক্রটি তার বাড়ি-ঘরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুরসহ লুটপাট করে স্থানীয় ঐ চক্রটি। বর্তমানে ওই চক্রটি মাদক ও অস্ত্র বিক্রেতা বানিয়ে তাকে হয়রানীর চেষ্টা করছে বলেও অভিযোগ করা হয়।

এ ঘটনায় শনিবার রাতে ওই শিক্ষার্থীর মা নাসিমা আক্তার বাদী হয়ে মুরাদনগর থানায় ৩ জন এজহার নামীয়সহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে।

ডিবি’র এসআই আশিকুর রহমান জানান, ইয়াবা রেখে মিথ্যা খবর দিয়ে আরমান হোসেন নামে এক ছাত্রকে ধরিয়ে দিতে চেয়েছিল একটি চক্র। বর্তমানে ওই চক্রটিকে আটক করার জন্য চেষ্টা চলছে।