ঢাকা ০২:৫৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে মাদ্রাসায় গাছ কর্তনের অভিযোগে তদন্ত কমিটি গঠন

মো: আজিজুর রহমান রনি, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার দারোরা ইউনিয়নের কাজিয়াতল দক্ষিন পাড়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা প্রাঙ্গন থেকে প্রশাসনের কোন প্রকান অনুমতি ছাড়া গাছ পরিচালনা পরিসদের সদস্যরা কর্তন করার অভিযোগে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মনসুর উদ্দিন দুই সদস্যের তদন্ত কমিটি ঘটনের সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন।

সদস্যরা হলেন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রতন কুমার সাহা ও মুরাদনগর উপজেলা বন বিভাগের কর্মকর্তা মো. মাহবুবুর রহমান।

জানা যায়, গত বুধবার রাতে বন বিভাগের ‘জেলা কমিটি ও উপজেলা প্রশাসন কমিটির কোন প্রকার অনুমতি ছাড়া উপজেলার কাজিয়াতল দক্ষিন পাড়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা প্রাঙ্গন থেকে ৩০ বছরের পরাতন ১৫টি মেহগনি ও ৭টি রেইন্ট্রিসহ মোট ২২ টি গাছ কর্তন করে মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদ কমিটি।
এদিকে, গাছগুলো কর্তনের ফলে মাদ্রাসার সৌদর্য ও পরিবেশ নষ্ট হয়েছে বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে শিক্ষার্থী ও স্থানীয়রা।

এ বিষয়ে কাজিয়াতল দক্ষিন পাড়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার আবদুস ছোবহান জানান, মাদ্রাসার উন্নয়নের জন্য গাছ কাটা হয়েছে। তিনি আরও জানান, মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গাছগুলো কাটা হয়েছে।

কুমিল্লা বন বিভাগীগের মুরাদনগর উপজেলা বন কর্মকর্তা মো. মাহবুবুর রহমান জানিয়েছেন, তাদের কাছে এ বিষয়ে কোনো অনুমতি নেওয়া হয়নি। অনুমতি চেয়ে আবেদনও করা হয়নাই।

এ বিষয়ে মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মনসুর উদ্দিন জানান, গাছ কাটার অভিযোগ পেয়েছি। দু’সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাদেরকে তিনদিনের মধ্যে এ বিষয়ে তদন্ত করে রিপোর্ট প্রদানের জন্য বলা হয়েছে। রির্পোট পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ট্যাগস

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

মুরাদনগরে মাদ্রাসায় গাছ কর্তনের অভিযোগে তদন্ত কমিটি গঠন

আপডেট সময় ০৯:৪৯:২৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬
মো: আজিজুর রহমান রনি, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার দারোরা ইউনিয়নের কাজিয়াতল দক্ষিন পাড়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা প্রাঙ্গন থেকে প্রশাসনের কোন প্রকান অনুমতি ছাড়া গাছ পরিচালনা পরিসদের সদস্যরা কর্তন করার অভিযোগে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মনসুর উদ্দিন দুই সদস্যের তদন্ত কমিটি ঘটনের সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন।

সদস্যরা হলেন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রতন কুমার সাহা ও মুরাদনগর উপজেলা বন বিভাগের কর্মকর্তা মো. মাহবুবুর রহমান।

জানা যায়, গত বুধবার রাতে বন বিভাগের ‘জেলা কমিটি ও উপজেলা প্রশাসন কমিটির কোন প্রকার অনুমতি ছাড়া উপজেলার কাজিয়াতল দক্ষিন পাড়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা প্রাঙ্গন থেকে ৩০ বছরের পরাতন ১৫টি মেহগনি ও ৭টি রেইন্ট্রিসহ মোট ২২ টি গাছ কর্তন করে মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদ কমিটি।
এদিকে, গাছগুলো কর্তনের ফলে মাদ্রাসার সৌদর্য ও পরিবেশ নষ্ট হয়েছে বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে শিক্ষার্থী ও স্থানীয়রা।

এ বিষয়ে কাজিয়াতল দক্ষিন পাড়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার আবদুস ছোবহান জানান, মাদ্রাসার উন্নয়নের জন্য গাছ কাটা হয়েছে। তিনি আরও জানান, মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গাছগুলো কাটা হয়েছে।

কুমিল্লা বন বিভাগীগের মুরাদনগর উপজেলা বন কর্মকর্তা মো. মাহবুবুর রহমান জানিয়েছেন, তাদের কাছে এ বিষয়ে কোনো অনুমতি নেওয়া হয়নি। অনুমতি চেয়ে আবেদনও করা হয়নাই।

এ বিষয়ে মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মনসুর উদ্দিন জানান, গাছ কাটার অভিযোগ পেয়েছি। দু’সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাদেরকে তিনদিনের মধ্যে এ বিষয়ে তদন্ত করে রিপোর্ট প্রদানের জন্য বলা হয়েছে। রির্পোট পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।