ঢাকা ০২:১৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে যুবলীগের বর্ধিত সভা পন্ড, দু’গ্রুপের হাতাহাতি ভাংচুর

মুরাদনগর বার্তা ডেস্কঃ

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানা আওয়ামী যুবলীগের নবগঠিত কমিটির প্রথম বর্ধিত সভায় দু’গ্রুপের হাতাহাতি ও হামলা-ভাংচুরে পন্ড হয়ে গেছে। এ সময় উভয়পক্ষের কমপক্ষে ৬ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে বাঙ্গরা বাজার থানা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, বাঙ্গরা বাজার থানা আওয়ামীলীগ নেতা তৌফিক সিদ্দিকী, আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল্লাহ নজরুল, যুবলীগ নেতা জালাল উদ্দিন, রফিক মিয়া ও শেখ মনির প্রমুখ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আওয়ামী লীগের বাঙ্গরা বাজার থানা কার্যালয়ে নবগঠিত যুবলীগের আহবায়ক কমিটি প্রথম বর্ধিত সভা সকাল সাড়ে ১১টায় শুরু হয়। সভা শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পরই থানা কমিটিতে স্থান না পাওয়ায় বাঙ্গরা পূর্ব ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ডাক্তার বিল্লাল হোসেন ও সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা এরশাদ মিয়া গ্রুপের সাথে নবগঠিত কমিটির নেতাদের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। পরে বাঙ্গরা বাজার থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

জানা যায়, কিছু দিন আগে জেলা কমিটিকে পাশ কাটিয়ে বাঙ্গরা বাজার থানা আওয়ামী যুবলীগের আহবায়ক কমিটি অনুমোদন দেয় কেন্দ্রিয় কমিটি। যুবলীগের পদে থাকা এবং পদ প্রত্যাশিরা উক্ত কমিটিকে প্রত্যাখান করে আসছিল। এ ঘটনাটিকে কেন্দ্র করেই এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে মুরাদনগর উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক সফিকুর রহমান ছবি জানান, এতদিন আমরা যারা যুবলীগ করেছি আমাদেরকে না জানিয়ে কোন প্রকার সম্মেলন ছাড়াই হুট করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমেপ্রচার করা হয় কেন্দ্র নতুন কমিটি অনুমদন করেছে। সেই কমিটি দেওয়ার পর থেকেই পদবঞ্চিতদের মধ্যে ক্ষোভের বহি:প্রকাশ দেখা যাচ্ছে।

বাঙ্গরা বাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনোয়ার হোসেন জানান, যুবলীগের বর্ধিত সভায় দাওয়াত দেওয়া না দেওয়া নিয়ে সামান্য হাতাহাতি হয়েছে। পরে দু’পক্ষকে থানায় ডেকে এনে সমাধান করে দেওয়া হয়েছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

মুরাদনগরে যুবলীগের বর্ধিত সভা পন্ড, দু’গ্রুপের হাতাহাতি ভাংচুর

আপডেট সময় ০৪:৪৬:০২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১২ মে ২০১৮

মুরাদনগর বার্তা ডেস্কঃ

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানা আওয়ামী যুবলীগের নবগঠিত কমিটির প্রথম বর্ধিত সভায় দু’গ্রুপের হাতাহাতি ও হামলা-ভাংচুরে পন্ড হয়ে গেছে। এ সময় উভয়পক্ষের কমপক্ষে ৬ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে বাঙ্গরা বাজার থানা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, বাঙ্গরা বাজার থানা আওয়ামীলীগ নেতা তৌফিক সিদ্দিকী, আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল্লাহ নজরুল, যুবলীগ নেতা জালাল উদ্দিন, রফিক মিয়া ও শেখ মনির প্রমুখ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আওয়ামী লীগের বাঙ্গরা বাজার থানা কার্যালয়ে নবগঠিত যুবলীগের আহবায়ক কমিটি প্রথম বর্ধিত সভা সকাল সাড়ে ১১টায় শুরু হয়। সভা শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পরই থানা কমিটিতে স্থান না পাওয়ায় বাঙ্গরা পূর্ব ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ডাক্তার বিল্লাল হোসেন ও সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা এরশাদ মিয়া গ্রুপের সাথে নবগঠিত কমিটির নেতাদের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। পরে বাঙ্গরা বাজার থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

জানা যায়, কিছু দিন আগে জেলা কমিটিকে পাশ কাটিয়ে বাঙ্গরা বাজার থানা আওয়ামী যুবলীগের আহবায়ক কমিটি অনুমোদন দেয় কেন্দ্রিয় কমিটি। যুবলীগের পদে থাকা এবং পদ প্রত্যাশিরা উক্ত কমিটিকে প্রত্যাখান করে আসছিল। এ ঘটনাটিকে কেন্দ্র করেই এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে মুরাদনগর উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক সফিকুর রহমান ছবি জানান, এতদিন আমরা যারা যুবলীগ করেছি আমাদেরকে না জানিয়ে কোন প্রকার সম্মেলন ছাড়াই হুট করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমেপ্রচার করা হয় কেন্দ্র নতুন কমিটি অনুমদন করেছে। সেই কমিটি দেওয়ার পর থেকেই পদবঞ্চিতদের মধ্যে ক্ষোভের বহি:প্রকাশ দেখা যাচ্ছে।

বাঙ্গরা বাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনোয়ার হোসেন জানান, যুবলীগের বর্ধিত সভায় দাওয়াত দেওয়া না দেওয়া নিয়ে সামান্য হাতাহাতি হয়েছে। পরে দু’পক্ষকে থানায় ডেকে এনে সমাধান করে দেওয়া হয়েছে।