ঢাকা ১২:৪৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে ”লাঠিয়ার বিল” নিয়ে মিথ্যা মামলা করায় জনরোশে রেনুমিয়া

OLYMPUS DIGITAL CAMERA

মো: মোশাররফ হোসেন মনিরঃ

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলার সদর ইউনিয়নের পাচকিত্তা দড়িকান্দির লাঠিয়র বিল দখল নিতে দড়িকান্দি গ্রামে ভাড়া করা সন্ত্রাসীদের দিয়ে হামলা চালিয়ে বাড়ীঘর ভাংচুড় ও লুটপাট করেও খান্ত হয়নি এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী রেনু মিয়া। এ ঘটনার পর তার স্ত্রী রহিমা আক্তারকে বাদী করে কুমিল্লার আদালতে হয়রানিমূলক একটি মামলা করেন স্থানীয়দের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষাভ ও উত্তেজনা দেখা দিয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার পাচকিত্তা দড়িকান্দি গ্রামের লাঠিয়ার বিল দখল নিতে গত (২০ নভেম্বর) রেনু মিয়ার নেতৃত্বে ৩০/৪০ জনের একদল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে দড়িকান্দি গ্রামের লোকজনের বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুড় ও লুটপাট করে। এ সময় ৬জনকে কুপিয়ে আহত করে। পরবর্তিতে সন্ত্রাসীরা জানাযার নামাযেও হামলা চালালে মুসল্লিরা  সন্ত্রাসীদের দাওয়া করে ৪ জন সন্ত্রাসীকে আটক করে পুলিশে দেয়। এ ঘটনায় জেলা ছাত্রলীগের লাইব্রেরী ও পাঠাগার সম্পাদক শরিফ হোসেন বাদী হয়ে দ্রুত বিচার আইনে মুরাদনগর থানায় একটি মামলা করেন। ঐ ঘটনার মূল হোতা সন্ত্রাসী রেনু মিয়া দ্রুত বিচার আইনের মামলাকে প্রভাহিত করার হীন উর্দ্দেশ্যে মামলার বাদী  ও স্বাক্ষীদের বিরুদ্ধে স্ত্রীকে দিয়ে মিথ্যা মামলা করে। এত এলাকায় ক্ষুভ ও উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। এতে করে এলাকায় আবারও দূর্ঘটনার আশঙ্কা করছে স্থানীয়রা। এ ঘটনায় স্থানীয় আ’লীগের নেতারা তীভ্র নিন্দা জানান।

এ বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের লাইব্রেরী ও পাঠাগার সম্পাদক শরিফ হোসেন অভিযোগ করে বলেন, রেনু মিয়া এক জন এলাকায় চিহ্নিত সন্ত্রাসী। সে ভারা করে সন্ত্রাসী এনে আমার বাড়ীঘরসহ এলাকায় হামলা চালিয়ে লুটপাট চালিয়েছে। দ্রুত বিচার আইনের মামলাকে প্রবাহিত করার জন্য সে তার স্ত্রীকে বাদী করে আদালতে একটি মিথ্যা মামলা করেছে।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

মুরাদনগরে ”লাঠিয়ার বিল” নিয়ে মিথ্যা মামলা করায় জনরোশে রেনুমিয়া

আপডেট সময় ০২:৩১:৫৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর ২০১৬
মো: মোশাররফ হোসেন মনিরঃ

কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলার সদর ইউনিয়নের পাচকিত্তা দড়িকান্দির লাঠিয়র বিল দখল নিতে দড়িকান্দি গ্রামে ভাড়া করা সন্ত্রাসীদের দিয়ে হামলা চালিয়ে বাড়ীঘর ভাংচুড় ও লুটপাট করেও খান্ত হয়নি এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী রেনু মিয়া। এ ঘটনার পর তার স্ত্রী রহিমা আক্তারকে বাদী করে কুমিল্লার আদালতে হয়রানিমূলক একটি মামলা করেন স্থানীয়দের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষাভ ও উত্তেজনা দেখা দিয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার পাচকিত্তা দড়িকান্দি গ্রামের লাঠিয়ার বিল দখল নিতে গত (২০ নভেম্বর) রেনু মিয়ার নেতৃত্বে ৩০/৪০ জনের একদল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে দড়িকান্দি গ্রামের লোকজনের বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুড় ও লুটপাট করে। এ সময় ৬জনকে কুপিয়ে আহত করে। পরবর্তিতে সন্ত্রাসীরা জানাযার নামাযেও হামলা চালালে মুসল্লিরা  সন্ত্রাসীদের দাওয়া করে ৪ জন সন্ত্রাসীকে আটক করে পুলিশে দেয়। এ ঘটনায় জেলা ছাত্রলীগের লাইব্রেরী ও পাঠাগার সম্পাদক শরিফ হোসেন বাদী হয়ে দ্রুত বিচার আইনে মুরাদনগর থানায় একটি মামলা করেন। ঐ ঘটনার মূল হোতা সন্ত্রাসী রেনু মিয়া দ্রুত বিচার আইনের মামলাকে প্রভাহিত করার হীন উর্দ্দেশ্যে মামলার বাদী  ও স্বাক্ষীদের বিরুদ্ধে স্ত্রীকে দিয়ে মিথ্যা মামলা করে। এত এলাকায় ক্ষুভ ও উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। এতে করে এলাকায় আবারও দূর্ঘটনার আশঙ্কা করছে স্থানীয়রা। এ ঘটনায় স্থানীয় আ’লীগের নেতারা তীভ্র নিন্দা জানান।

এ বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের লাইব্রেরী ও পাঠাগার সম্পাদক শরিফ হোসেন অভিযোগ করে বলেন, রেনু মিয়া এক জন এলাকায় চিহ্নিত সন্ত্রাসী। সে ভারা করে সন্ত্রাসী এনে আমার বাড়ীঘরসহ এলাকায় হামলা চালিয়ে লুটপাট চালিয়েছে। দ্রুত বিচার আইনের মামলাকে প্রবাহিত করার জন্য সে তার স্ত্রীকে বাদী করে আদালতে একটি মিথ্যা মামলা করেছে।