রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
অ+
অ-

মুরাদনগরে স্কুলে অনুপস্থিত থাকায় চার শিক্ষককে বদলীর নির্দেশ

মো: নাজিম উদ্দিন, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার গাংগাটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের অনলাইন পরিদর্শনকালে চার শিক্ষককে যথাসময়ে বিদ্যালয়ে হাজির না থাকায় এবং দায়িত্ব অবহেলার দায়ে প্রশাসনিক বদলী ও বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য জেলা ও উপজেলা শিক্ষা অফিসকে নির্দেশ প্রদান করেছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের সহকারী সচিব মোহাম্মদ কামাল হোসেন এই নির্দেশ প্রদান করেন।

অভিযোগত শিক্ষকরা হলেন, গাংগাটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সেলিনা আক্তার খানম, সহকারী শিক্ষক মোসাম্মৎ রেহেনা আক্তার, মোসাম্মৎ ফেরদৌসি বেগম ও আলেকজান্ডার।

রবিবার বিকেলে এই অনলাইন পরিদর্শনের কপি উপজেলা শিক্ষা অফিসে পৌছায় বলে নিশ্চিত করেছে কয়েকটি বিশস্তসুত্র।

জানা যায়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের হাজিরা যাচাই ও পাঠদান মনিটরিং এবং শিক্ষার্থী উপস্থিতিসহ বিভিন্ন কারিকুলাম যাচাইয়ের লক্ষ্যে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয় থেকে গত ২৭শে অক্টোবর বৃহস্পতিবার অনলাইন ভিজিট চলাকালে মুরাদনগর উপজেলার গাংগাটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পরমতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কাগাতুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অনলাইন মনিটরিং করা হয়। এসময় পরমতলা ও কাগাতুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক হাজিরা , পাঠদান ও শিক্ষার্থী উপস্থিতি সন্তোষজনক হলেও গাংগাটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ চারজন শিক্ষক বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থাকেন এসময় বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী উপস্থিতির হার ছিলো ৫৪ শতাংশ যা মোটেও সন্তোষজনক ছিলো না। এছাড়াও বিদ্যালয়টির ওয়াশব্লক ব্যবহারের অনুপযোগী ছিলো বলেও উল্লেখ করা হয়।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ অনুপস্থিত চার শিক্ষককে তাৎক্ষনিক ভাবে প্রশাসনিক বদলী ও বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য কুমিল্লা জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ও মুরাদনগর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে নির্দেশ প্রদান করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের সহকারী সচিব মোহাম্মদ কামাল হোসেন

এব্যাপারে মুরাদনগর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ফওজিয়া আকতার বলেন, অনলাইন পরিদর্শনের বিষয়টি জানতে পেরেছি তবে এই বিষয়ে অফিসিয়াল কোন আদেশ এখনো পাইনি। অফিসিয়াল আদেশ পেলে জেলা স্যারের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এব্যাপারে কুমিল্লা জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুল মান্নানের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

print

আন্তর্জাতিক : আরো পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন