ঢাকা ০৩:০৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে স্ত্রী হত্যার অভিযোগে স্বামী আটক

বেলাল উদ্দিন আহম্মদ, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

পরকীয়া প্রেমের কারনে এক সংসার ভেঙ্গে আরেক সংসারে এসেও শেষ রক্ষা হল না লাইলী আক্তারের(২৭)। সুখের আশায় নতুন ভাবে জীবন শুরু করার আশায় স্বামীর সংসারে এসে হোচট খায় লাইলী। সে জানতে পারে তার স্বামী আরেকটি বিয়ে করেছে । সেই সংসারে ছেলে মেয়ে ও রয়েছে। পারিবারিক কলহের কারনে লাইলী বুধবার মধ্যরাতে আতœহত্যা করেছে বলে লাইলীর স্বামীর বাড়ির লোকজন জানায়। লাইলীর লাশকে সামনে রেখে স্বামীর বাড়ির লোকজন লাইলীর বাপের বাড়ির লোকজনের সাথে আপোষ করার চেষ্টা করে। দিনভর দফায় দফায় রফা করার চেষ্টা করেও যখন ব্যর্থ হয়। এ রহস্য জনক ঘটনায় পুলিশ লাইলীর স্বামী ফারুককে গ্রেফতার করেছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মুরাদনগর থানা পুলিশ খবর পেয়ে এসআই জীবন হাজারীর নেতৃত্বে একদল পুলিশ উপজেলার জাহাপুর ইউনিয়নের দড়িকান্দি গ্রামের স্বামীর বাড়ী থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।
নিহত লাইলী উপজেলার মুরাদনগর ইউনিয়নের করিমপুর গ্রামের মৃত ছালাম মিয়ার মেয়ে।

স্বামীর বাড়ির লোকজন আতœহত্যার কথা বললেও এলাকায় গুঞ্জন রয়েছে স্বামী ফারক(৩২) তাকে হত্যা করেছে। বিষয়টি তাৎক্ষনিক ভাবে থানা পুলিশকে না জানানোয় এর পেছনে রহস্য রয়েছে বলে স্থানীলা মনে করছে। কেউ বলছে বিষ খেয়েছে আবার কেউ বলছে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আতœহত্যা করেছে। এ কারনে বিষয়টিকে রহস্যময় করে তুলেছে।

এ বিষয়ে লাইলীর ভাই মোরশেদ বাদী হয়ে আতœহত্যার প্ররোচনা করার অভিযোগ এনে মুরাদনগর থানায় বৃহস্পতিবার রাতে একটি মামলা করেন।

এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: মিজানুর রহমান বলেন পারিবারিক কলহের কারনে লাইলী আতœহত্যা করে থাকতে পারে তবে ময়না তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর বিষয়টি বুঝা যাবে। স্বামী ফারুককে গ্রেফতার করে শুক্রবার দুপুরে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রের করা হয়েছে।।

ট্যাগস

মুরাদনগরে স্ত্রী হত্যার অভিযোগে স্বামী আটক

আপডেট সময় ০৬:৩২:১৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ অক্টোবর ২০১৬
বেলাল উদ্দিন আহম্মদ, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

পরকীয়া প্রেমের কারনে এক সংসার ভেঙ্গে আরেক সংসারে এসেও শেষ রক্ষা হল না লাইলী আক্তারের(২৭)। সুখের আশায় নতুন ভাবে জীবন শুরু করার আশায় স্বামীর সংসারে এসে হোচট খায় লাইলী। সে জানতে পারে তার স্বামী আরেকটি বিয়ে করেছে । সেই সংসারে ছেলে মেয়ে ও রয়েছে। পারিবারিক কলহের কারনে লাইলী বুধবার মধ্যরাতে আতœহত্যা করেছে বলে লাইলীর স্বামীর বাড়ির লোকজন জানায়। লাইলীর লাশকে সামনে রেখে স্বামীর বাড়ির লোকজন লাইলীর বাপের বাড়ির লোকজনের সাথে আপোষ করার চেষ্টা করে। দিনভর দফায় দফায় রফা করার চেষ্টা করেও যখন ব্যর্থ হয়। এ রহস্য জনক ঘটনায় পুলিশ লাইলীর স্বামী ফারুককে গ্রেফতার করেছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মুরাদনগর থানা পুলিশ খবর পেয়ে এসআই জীবন হাজারীর নেতৃত্বে একদল পুলিশ উপজেলার জাহাপুর ইউনিয়নের দড়িকান্দি গ্রামের স্বামীর বাড়ী থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।
নিহত লাইলী উপজেলার মুরাদনগর ইউনিয়নের করিমপুর গ্রামের মৃত ছালাম মিয়ার মেয়ে।

স্বামীর বাড়ির লোকজন আতœহত্যার কথা বললেও এলাকায় গুঞ্জন রয়েছে স্বামী ফারক(৩২) তাকে হত্যা করেছে। বিষয়টি তাৎক্ষনিক ভাবে থানা পুলিশকে না জানানোয় এর পেছনে রহস্য রয়েছে বলে স্থানীলা মনে করছে। কেউ বলছে বিষ খেয়েছে আবার কেউ বলছে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আতœহত্যা করেছে। এ কারনে বিষয়টিকে রহস্যময় করে তুলেছে।

এ বিষয়ে লাইলীর ভাই মোরশেদ বাদী হয়ে আতœহত্যার প্ররোচনা করার অভিযোগ এনে মুরাদনগর থানায় বৃহস্পতিবার রাতে একটি মামলা করেন।

এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: মিজানুর রহমান বলেন পারিবারিক কলহের কারনে লাইলী আতœহত্যা করে থাকতে পারে তবে ময়না তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর বিষয়টি বুঝা যাবে। স্বামী ফারুককে গ্রেফতার করে শুক্রবার দুপুরে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রের করা হয়েছে।।