ঢাকা ০৮:৪৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে ২য় শ্রেণীতে পড়–য়া দুই সহপাঠি শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ

মাহবুব আলম আরিফ, বিশেষ প্রতিনিধি:

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলা সদর ইউনিয়নের ডুমুরিয়া গ্রামে ২য় শ্রেণীতে পড়–ুয়া দুই সহপাঠি শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে সুমন মিয়া(২৯) নামের স্থানীয় এক বখাটে যুবকের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনায় এক শিশুর মা বাদী হয়ে মুরাদনগর থানায় মামলা দায়ের করেন।

অভিযুক্ত ধর্ষক সুমন মিয়া (২৯) উপজেলা সদর ইউনিয়নের ডুমুরিয়া গ্রামের সিদ্দিক মিয়ার ছেলে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, তার মেয়ে(৭) ও তার স্বামীর ভাগ্নি(৮) স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ে ২য় শ্রেণীর ছাত্রী। বুধবার বিকেলে তার মেয়ে, ভাগ্নি ও পাশের বাড়ীর সমবয়সী এক শিশু অভিযুক্ত সুমনের বাড়ীর পাশে খেলা করছিলো। সুমন কৌশলে ওই তিন শিশুকে পাশের বাড়ীর একটি ঘরে নিয়ে গিয়ে প্রথমে তার ভাগ্নিকে পরে তার মেয়েকে ধর্ষন করে এবং সাথে থাকা শিশুটিকে ঘটনাটি কাউকে না বলার জন্য দশ টাকা দিয়ে সুমন ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। পরে রাতে মেয়ে ও ভাগ্নি এ বিষয়ে তার মাকে জানালে তার মা পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে মুরাদনগর থানায় এসে অভিযুক্ত সুমন মিয়ার বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম মনজুর আলম বলেন, এ ঘটনায় শিশুটির মা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে। অভিযুক্ত সুমন মিয়াকে ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যহত রয়েছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুরাদনগরে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

মুরাদনগরে ২য় শ্রেণীতে পড়–য়া দুই সহপাঠি শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ

আপডেট সময় ০৬:৪৫:৩১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯

মাহবুব আলম আরিফ, বিশেষ প্রতিনিধি:

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলা সদর ইউনিয়নের ডুমুরিয়া গ্রামে ২য় শ্রেণীতে পড়–ুয়া দুই সহপাঠি শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে সুমন মিয়া(২৯) নামের স্থানীয় এক বখাটে যুবকের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনায় এক শিশুর মা বাদী হয়ে মুরাদনগর থানায় মামলা দায়ের করেন।

অভিযুক্ত ধর্ষক সুমন মিয়া (২৯) উপজেলা সদর ইউনিয়নের ডুমুরিয়া গ্রামের সিদ্দিক মিয়ার ছেলে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, তার মেয়ে(৭) ও তার স্বামীর ভাগ্নি(৮) স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ে ২য় শ্রেণীর ছাত্রী। বুধবার বিকেলে তার মেয়ে, ভাগ্নি ও পাশের বাড়ীর সমবয়সী এক শিশু অভিযুক্ত সুমনের বাড়ীর পাশে খেলা করছিলো। সুমন কৌশলে ওই তিন শিশুকে পাশের বাড়ীর একটি ঘরে নিয়ে গিয়ে প্রথমে তার ভাগ্নিকে পরে তার মেয়েকে ধর্ষন করে এবং সাথে থাকা শিশুটিকে ঘটনাটি কাউকে না বলার জন্য দশ টাকা দিয়ে সুমন ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। পরে রাতে মেয়ে ও ভাগ্নি এ বিষয়ে তার মাকে জানালে তার মা পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে মুরাদনগর থানায় এসে অভিযুক্ত সুমন মিয়ার বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম মনজুর আলম বলেন, এ ঘটনায় শিশুটির মা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে। অভিযুক্ত সুমন মিয়াকে ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যহত রয়েছে।