ঢাকা ০৭:৪৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগর চাপিতলা অজিফা খাতুন উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা পরষদ কমিটির নির্বাচন বর্জন

আরিফুল ইসলাম, স্টাফ রির্পোটার, মুরাদনগরঃ

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার চাপিতলা অজিফা খাতুন উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে জোরপূর্বক ভোট প্রদান এবং এজেন্ট বের করে দেওয়া সহ ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ এনে শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় চাপিতলা বাজারে এক সংবাদ সংম্মেলনের মাধ্যমে ভোট বর্জন করেন ৪নং ব্যালট অভিভাবক প্রতিনিধি প্রার্থী মোঃ রেজাউল করিম ভূইয়া।

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করে সাংবাদিকদের মোঃ রেজাউল করিম ভূইয়া বলেন, সকাল ৯টায় ভোট গ্রহন শুরু হওয়ার ৩ঘন্টার পর কিছু বহিবরাগত সন্ত্রাসী গুলি করে হত্যার ভয় দেখিয়ে আমার এজেন্টদের কে বের করে দিয়ে অবৈধ ভাবে ভোট কাটে এবং ছোট ছোটছেলেদের দিয়ে জাল ভোট প্রদান করেন , এই ঘটনায় দায়িত্বরত প্রিজাইডিং অফিসার ও মুরাদনগর মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রতন কুমার সাহাকে মৌখিক অভিযোগ করেলেও তিনি কোন প্রদক্ষেপ নেয়নি। তাই অমি অসহায় হয়ে ভোট বর্জন করেছি। এসময় উপস্থিত ছিলেন, এজেন্ট মোঃ শামসুল হক, মোঃ মোর্শেদ মিয়া, আবুল কালাম সহ একাধিক ভোটার সমর্থক।

প্রিজাইডিং অফিসার ও মুরাদনগর উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রতন কুমার সাহা জানান, ভোট কেন্দ্রে জাল ভোট কিংবা কোন অপ্রিতিকার ঘটনা ঘটেনি, সকাল ৯ টা থেকে ৪টা পর্যন্ত শান্তিপূর্ন ভাবে ভোট গ্রহন হয়েছে। তবে ভোট গ্রহন চলাকালে আমাকে কোন প্রার্থী অভিযোগ করেনি এবং ভোট কেন্দ্র থেকে কোন প্রার্থী বের হয়ে গিয়ে ভোট বর্জন করেছে তা আমাকে জানায়নি। তবে ভোট বর্জনের লিখিত কোন অভিযোগ ও পাইনি।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

মুরাদনগর বাবুটিপাড়া ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতির ইন্তেকাল

মুরাদনগর চাপিতলা অজিফা খাতুন উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা পরষদ কমিটির নির্বাচন বর্জন

আপডেট সময় ১২:২৩:২৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৬
আরিফুল ইসলাম, স্টাফ রির্পোটার, মুরাদনগরঃ

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার চাপিতলা অজিফা খাতুন উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে জোরপূর্বক ভোট প্রদান এবং এজেন্ট বের করে দেওয়া সহ ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ এনে শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় চাপিতলা বাজারে এক সংবাদ সংম্মেলনের মাধ্যমে ভোট বর্জন করেন ৪নং ব্যালট অভিভাবক প্রতিনিধি প্রার্থী মোঃ রেজাউল করিম ভূইয়া।

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করে সাংবাদিকদের মোঃ রেজাউল করিম ভূইয়া বলেন, সকাল ৯টায় ভোট গ্রহন শুরু হওয়ার ৩ঘন্টার পর কিছু বহিবরাগত সন্ত্রাসী গুলি করে হত্যার ভয় দেখিয়ে আমার এজেন্টদের কে বের করে দিয়ে অবৈধ ভাবে ভোট কাটে এবং ছোট ছোটছেলেদের দিয়ে জাল ভোট প্রদান করেন , এই ঘটনায় দায়িত্বরত প্রিজাইডিং অফিসার ও মুরাদনগর মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রতন কুমার সাহাকে মৌখিক অভিযোগ করেলেও তিনি কোন প্রদক্ষেপ নেয়নি। তাই অমি অসহায় হয়ে ভোট বর্জন করেছি। এসময় উপস্থিত ছিলেন, এজেন্ট মোঃ শামসুল হক, মোঃ মোর্শেদ মিয়া, আবুল কালাম সহ একাধিক ভোটার সমর্থক।

প্রিজাইডিং অফিসার ও মুরাদনগর উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রতন কুমার সাহা জানান, ভোট কেন্দ্রে জাল ভোট কিংবা কোন অপ্রিতিকার ঘটনা ঘটেনি, সকাল ৯ টা থেকে ৪টা পর্যন্ত শান্তিপূর্ন ভাবে ভোট গ্রহন হয়েছে। তবে ভোট গ্রহন চলাকালে আমাকে কোন প্রার্থী অভিযোগ করেনি এবং ভোট কেন্দ্র থেকে কোন প্রার্থী বের হয়ে গিয়ে ভোট বর্জন করেছে তা আমাকে জানায়নি। তবে ভোট বর্জনের লিখিত কোন অভিযোগ ও পাইনি।