ঢাকা ০২:২৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগর বার্তায় সংবাদ প্রকাশের পর মুরাদনগরে আর্সি নদীতে নির্মাণ করা বাঁধ অপসারন

মো: মোশাররফ হোসেন মনির:

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার আকবপুর ইউনিয়নের ঘোড়াশাল গ্রামের মেটংঘর-শ্রীকাইল সড়কের পুরাতন ব্রিজের পাশের আর্সি নদীতে নির্মান করা বাঁধ অবশেষে অপসারন করা হয়েছে। গত ৩০ এপ্রিল “মুরাদনগরে আর্সি নদীতে বাধঁ নির্মাণ করে কৃষিজমির মাটি নিচ্ছে ইটভাটায়” এ শিরোনামে মুরাদনগর বার্তা টোয়েন্টিফোর ডটকমে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এতে বিষয়টি নজরে আসে জেলা প্রশাসক ও উপজেলা প্রশাসনের। এসময় ঘটনাস্থলে সংশ্লিষ্ট কাউকে না পাওয়ায় শাস্তির আওতায় আনা সম্ভব হয়নি তবে পানি উন্নয়ন বোর্ড মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

শনিবার সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিফাত উদ্দিনে নির্দেশনায় কুমিল্লা পানি উন্নয়ন বোর্ড ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ এই বাঁধ অপসারন করেন।

জানা যায়, উপজেলার আকবপুর ইউনিয়নের ঘোড়াশাল গ্রামের মেটংঘর-শ্রীকাইল সড়কের পুরাতন ব্রিজের পাশের আর্সি নদীতে বাধঁ নির্মা করে ফসলি জমিতে ভেকু মেশিন বসিয়ে ২৫ থেকে ৩০ ফুট গর্ত করে মাটি কেটে পাশের সততা বিক্র ফিল্ড নামক একটি ইটভাটা নিচ্ছিল একটি ক্ষমতাধর প্রভাবশালী মহল। এতে করে হুমকিতে পড়েঠে ঐ ইউনিয়নসহ আশে পাশের বেশ কয়েকটি ইউনিয়নের অধিকাংশ ফসলি জমি।

এই নিয়ে দেশের প্রথম সারির গণমাধ্যাম মুরাদনগর বার্তা টোয়েন্টিফোর ডটকমসহ বেশকিছু গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হওয়ার পর টনক নড়ে মুরাদনগর উপজেলা প্রশাসনের। শনিবার (৪ মে) সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিফাত উদ্দিনে নির্দেশনায় কুমিল্লা পানি উন্নয়ন বোর্ড ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ এই বাঁধ অপসারণ করেন। এদিকে সংবাদ প্রকাশের পর নদীর বাঁধ অপসারণ হওয়ায় কৃষকদের মাঝে আনন্দ ছড়িয়ে পড়ে।

এ বিষয়ে মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিফাত উদ্দিনে বলেন, আর্সি নদীর বাঁধ অপসারণের মাধ্যমে পানি প্রবাহ স্বাভাবিক করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে কাউকে না পাওয়ার কাউকে শাস্তির আওতায় আনতে পারিনি। ভূমি খেকোদের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে এবং কুমিল্লা পানি উন্নয়ন বোর্ড শিগগিরই মামলার করা প্রস্তুতি নিচ্ছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

মুরাদনগর বার্তায় সংবাদ প্রকাশের পর মুরাদনগরে আর্সি নদীতে নির্মাণ করা বাঁধ অপসারন

আপডেট সময় ০৭:৫৮:২৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৪ মে ২০২৪

মো: মোশাররফ হোসেন মনির:

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার আকবপুর ইউনিয়নের ঘোড়াশাল গ্রামের মেটংঘর-শ্রীকাইল সড়কের পুরাতন ব্রিজের পাশের আর্সি নদীতে নির্মান করা বাঁধ অবশেষে অপসারন করা হয়েছে। গত ৩০ এপ্রিল “মুরাদনগরে আর্সি নদীতে বাধঁ নির্মাণ করে কৃষিজমির মাটি নিচ্ছে ইটভাটায়” এ শিরোনামে মুরাদনগর বার্তা টোয়েন্টিফোর ডটকমে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এতে বিষয়টি নজরে আসে জেলা প্রশাসক ও উপজেলা প্রশাসনের। এসময় ঘটনাস্থলে সংশ্লিষ্ট কাউকে না পাওয়ায় শাস্তির আওতায় আনা সম্ভব হয়নি তবে পানি উন্নয়ন বোর্ড মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

শনিবার সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিফাত উদ্দিনে নির্দেশনায় কুমিল্লা পানি উন্নয়ন বোর্ড ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ এই বাঁধ অপসারন করেন।

জানা যায়, উপজেলার আকবপুর ইউনিয়নের ঘোড়াশাল গ্রামের মেটংঘর-শ্রীকাইল সড়কের পুরাতন ব্রিজের পাশের আর্সি নদীতে বাধঁ নির্মা করে ফসলি জমিতে ভেকু মেশিন বসিয়ে ২৫ থেকে ৩০ ফুট গর্ত করে মাটি কেটে পাশের সততা বিক্র ফিল্ড নামক একটি ইটভাটা নিচ্ছিল একটি ক্ষমতাধর প্রভাবশালী মহল। এতে করে হুমকিতে পড়েঠে ঐ ইউনিয়নসহ আশে পাশের বেশ কয়েকটি ইউনিয়নের অধিকাংশ ফসলি জমি।

এই নিয়ে দেশের প্রথম সারির গণমাধ্যাম মুরাদনগর বার্তা টোয়েন্টিফোর ডটকমসহ বেশকিছু গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হওয়ার পর টনক নড়ে মুরাদনগর উপজেলা প্রশাসনের। শনিবার (৪ মে) সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিফাত উদ্দিনে নির্দেশনায় কুমিল্লা পানি উন্নয়ন বোর্ড ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ এই বাঁধ অপসারণ করেন। এদিকে সংবাদ প্রকাশের পর নদীর বাঁধ অপসারণ হওয়ায় কৃষকদের মাঝে আনন্দ ছড়িয়ে পড়ে।

এ বিষয়ে মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিফাত উদ্দিনে বলেন, আর্সি নদীর বাঁধ অপসারণের মাধ্যমে পানি প্রবাহ স্বাভাবিক করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে কাউকে না পাওয়ার কাউকে শাস্তির আওতায় আনতে পারিনি। ভূমি খেকোদের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে এবং কুমিল্লা পানি উন্নয়ন বোর্ড শিগগিরই মামলার করা প্রস্তুতি নিচ্ছে।