ঢাকা ০৫:৫৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগর সদর ইউপি নির্বাচন ৩১ অক্টোবর

আবুল খায়ের, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

মুরাদনগর সদর ইউপি নির্বাচন ৩১ অক্টোবর সুপ্রিম কোর্টের আপির বিভাগের রায়ে অবশেষে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলা সদর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। আগামী ৩১ অক্টোবর এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

সোমবার নির্বাচন কমিশন থেকে এ সক্রান্ত নির্দেশনা জেলার মুরাদনগর উপজেলা নির্বাচন অফিস ও থানা পুলিশের কাছে এসে পৌছে।

জানা যায়, চলতি বছরের ৪ জুন মুরাদনগর উপজেলা সদর ইউপির নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা থাকলেও চুড়ান্ত মুহর্তে এসে ১জুন মুরাদনগর পৌরসভার সীমানা সংক্রান্ত জটিলতার উল্লেখ করে ওই ইউপির চেয়ারম্যান মোস্তাক আহাম্মেদ মাসুদ হাইকোর্টে একটি রিট পিটিশন দায়ের করেন। ওই রিট পিটিশনের প্রেক্ষিতে হাইকোর্ট মুরাদনগর সদর ইউপির নির্বাচন ৪ সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেন। পরে ২ জুন মোস্তাক আহাম্মেদ মাসুদের রিটের বিপরীতে সদর ইউপির আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী মো: ছফিউল্লাহ ভুইয়া সুপ্রিম কোর্টে আপিল করেন। ৯ জুন আপিল বিভাগ ওই ইউপির নির্বাচন অনুষ্ঠানে কোন আইগত জটিলতা নেই বলে রায় প্রদান করেন। ২৭ জুন আপিল বিভাগের রায়ের কপি নির্বাচন কমিশনে পৌছে দেয়া হয়। পরে ২৫ সেপ্টেম্বর রোববার বিকেলে নির্বাচন কমিশন মুরাদনগর সদর ইউপির নির্বাচন অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত গ্রহন করে জেলা নির্বাচন অফিসকে চিঠি দেয়। গতকাল এ চিঠি উপজেলা নির্বাচন অফিস ও থানা পুলিশের কাছে এসে পৌছায়। চিঠিতে বলা হয় চলতি বছরের ১ জুন হাইকোর্টের নির্দেশে যেখানে গিয়ে নির্বাচন স্থগিত হয়েছে সেখান থেকেই নির্বাচনী প্রক্রিয়া শুরু করতে হবে। এজন্য নতুন করে কোন তফসিল কিংবা কোন অন্যান্য কার্যক্রমের প্রয়োজন নেই।

উল্লেখ্য: মুরাদনগর সদর ইউপি নির্বাচনে আ’লীগ থেকে ছফিউল্লাহ ভুইয়া ও বিএনপি থেকে মোল্লা মজিবুল হক মনোনয়ন লাভ করে নির্বাচনের অংশ গ্রহন করেন।

ট্যাগস

মুরাদনগর সদর ইউপি নির্বাচন ৩১ অক্টোবর

আপডেট সময় ০২:৫০:৫৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬
আবুল খায়ের, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

মুরাদনগর সদর ইউপি নির্বাচন ৩১ অক্টোবর সুপ্রিম কোর্টের আপির বিভাগের রায়ে অবশেষে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলা সদর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। আগামী ৩১ অক্টোবর এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

সোমবার নির্বাচন কমিশন থেকে এ সক্রান্ত নির্দেশনা জেলার মুরাদনগর উপজেলা নির্বাচন অফিস ও থানা পুলিশের কাছে এসে পৌছে।

জানা যায়, চলতি বছরের ৪ জুন মুরাদনগর উপজেলা সদর ইউপির নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা থাকলেও চুড়ান্ত মুহর্তে এসে ১জুন মুরাদনগর পৌরসভার সীমানা সংক্রান্ত জটিলতার উল্লেখ করে ওই ইউপির চেয়ারম্যান মোস্তাক আহাম্মেদ মাসুদ হাইকোর্টে একটি রিট পিটিশন দায়ের করেন। ওই রিট পিটিশনের প্রেক্ষিতে হাইকোর্ট মুরাদনগর সদর ইউপির নির্বাচন ৪ সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেন। পরে ২ জুন মোস্তাক আহাম্মেদ মাসুদের রিটের বিপরীতে সদর ইউপির আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী মো: ছফিউল্লাহ ভুইয়া সুপ্রিম কোর্টে আপিল করেন। ৯ জুন আপিল বিভাগ ওই ইউপির নির্বাচন অনুষ্ঠানে কোন আইগত জটিলতা নেই বলে রায় প্রদান করেন। ২৭ জুন আপিল বিভাগের রায়ের কপি নির্বাচন কমিশনে পৌছে দেয়া হয়। পরে ২৫ সেপ্টেম্বর রোববার বিকেলে নির্বাচন কমিশন মুরাদনগর সদর ইউপির নির্বাচন অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত গ্রহন করে জেলা নির্বাচন অফিসকে চিঠি দেয়। গতকাল এ চিঠি উপজেলা নির্বাচন অফিস ও থানা পুলিশের কাছে এসে পৌছায়। চিঠিতে বলা হয় চলতি বছরের ১ জুন হাইকোর্টের নির্দেশে যেখানে গিয়ে নির্বাচন স্থগিত হয়েছে সেখান থেকেই নির্বাচনী প্রক্রিয়া শুরু করতে হবে। এজন্য নতুন করে কোন তফসিল কিংবা কোন অন্যান্য কার্যক্রমের প্রয়োজন নেই।

উল্লেখ্য: মুরাদনগর সদর ইউপি নির্বাচনে আ’লীগ থেকে ছফিউল্লাহ ভুইয়া ও বিএনপি থেকে মোল্লা মজিবুল হক মনোনয়ন লাভ করে নির্বাচনের অংশ গ্রহন করেন।