ঢাকা ১১:৫১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মেট্রোরেলের কোচ ক্রয়ে চুক্তি সই

জাতীয় ডেস্কঃ
ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্পের রেল কোচ এবং রেল ট্র্যাক সংগ্রহে সরবরাহ প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি সই হয়েছে। চুক্তির আওতায় প্রায় চার হাজার দুইশত সাতান্ন কোটি টাকা ব্যয়ে রেল কোচ ও রেল ট্র্যাক ছাড়াও রোলিং স্টক, ট্রেন সিমুলেটর, ডিপোর যন্ত্রপাতি, খুচরা যন্ত্রাংশ এবং সংশ্লিষ্টদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে প্রশিক্ষণ অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।
রবিবার হোটেল সোনারগাঁওয়ে আয়োজিত ‘ম্যাস র‌্যাকপিড ট্রানজিট (এমআরটি) লাইন-৬ কন্ট্র্যাক্ট প্যাকেজ-০৮’ শীর্ষক এ চুক্তি সই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।
অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে মন্ত্রী বলেন, মেট্রোরেলের কোচগুলো হবে আধুনিক ও উচ্চ গুণগতমান সম্পন্ন মরিচাহীন ইস্পাত দ্বারা নির্মিত এবং শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত। কোচের আসনগুলো লম্বালম্বিভাবে সাজানো থাকবে এবং প্রতি ট্রেনে দু’টি হুইল চেয়ারের ব্যবস্থা  থাকবে। এসময় মন্ত্রী এ প্রকল্পে অর্থায়নের জন্য জাপান সরকার এবং জনগণকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানান।
চুক্তিপত্রে পক্ষে মেট্রোরেলের প্রকল্প পরিচালক ও ডিএমটিসিএল এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আফতাব উদ্দিন তালুকদার এবং কাওয়াসাকি-মিটসুবিশি কনসোটিয়ামের পক্ষে মাকোতা সই করেন। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, রেল কোচ ও ডিপো ইকুইপমেন্ট কেনার লক্ষ্যে ৪ হাজার ২৫৭ কোটি ৩৪ লাখ ৫৫ হাজার ৪৫৬ টাকার ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী কাওয়াসাকি-মিতসুবিনিশি কনসোর্টিয়াম ২০২০ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে ৫ সেট ট্রেন সরবরাহ করবে। আর ২০২১ সালের মধ্যে আরও ১৯ সেট ট্রেন এবং ডিপো ইকুইপমেন্ট সরবরাহ করবে।
মেট্রোরেলের জন্য যে কোচগুলো আনা হবে, তা হবে আধুনিক ও উচ্চ গুণগত মানসম্পন্ন স্টেইনলেস স্টিলের তৈরি এবং শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত। কোচের আসনগুলো লম্বালম্বিভাবে সাজানো থাকবে এবং প্রতিটি ট্রেনে দুটি হুইল চেয়ারের ব্যবস্থা থাকবে। এছাড়া থাকবে স্মার্টকাড টিকিটিং পদ্ধতি।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যর মাঝে বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের মান্যবর রাষ্ট্রদূত মাসাতো ওয়াতানাবে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য নাজমুল হক প্রধান, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এমএএন ছিদ্দিক, জাইকার চিফ রিপ্রেজেন্টেটিভ তাকাতোশি নিশিকাতা বক্তব্য রাখেন।
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মেট্রোরেলের কোচ ক্রয়ে চুক্তি সই

আপডেট সময় ০২:১৬:০৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ৬ অগাস্ট ২০১৭
জাতীয় ডেস্কঃ
ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্পের রেল কোচ এবং রেল ট্র্যাক সংগ্রহে সরবরাহ প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি সই হয়েছে। চুক্তির আওতায় প্রায় চার হাজার দুইশত সাতান্ন কোটি টাকা ব্যয়ে রেল কোচ ও রেল ট্র্যাক ছাড়াও রোলিং স্টক, ট্রেন সিমুলেটর, ডিপোর যন্ত্রপাতি, খুচরা যন্ত্রাংশ এবং সংশ্লিষ্টদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে প্রশিক্ষণ অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।
রবিবার হোটেল সোনারগাঁওয়ে আয়োজিত ‘ম্যাস র‌্যাকপিড ট্রানজিট (এমআরটি) লাইন-৬ কন্ট্র্যাক্ট প্যাকেজ-০৮’ শীর্ষক এ চুক্তি সই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।
অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে মন্ত্রী বলেন, মেট্রোরেলের কোচগুলো হবে আধুনিক ও উচ্চ গুণগতমান সম্পন্ন মরিচাহীন ইস্পাত দ্বারা নির্মিত এবং শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত। কোচের আসনগুলো লম্বালম্বিভাবে সাজানো থাকবে এবং প্রতি ট্রেনে দু’টি হুইল চেয়ারের ব্যবস্থা  থাকবে। এসময় মন্ত্রী এ প্রকল্পে অর্থায়নের জন্য জাপান সরকার এবং জনগণকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানান।
চুক্তিপত্রে পক্ষে মেট্রোরেলের প্রকল্প পরিচালক ও ডিএমটিসিএল এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আফতাব উদ্দিন তালুকদার এবং কাওয়াসাকি-মিটসুবিশি কনসোটিয়ামের পক্ষে মাকোতা সই করেন। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, রেল কোচ ও ডিপো ইকুইপমেন্ট কেনার লক্ষ্যে ৪ হাজার ২৫৭ কোটি ৩৪ লাখ ৫৫ হাজার ৪৫৬ টাকার ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী কাওয়াসাকি-মিতসুবিনিশি কনসোর্টিয়াম ২০২০ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে ৫ সেট ট্রেন সরবরাহ করবে। আর ২০২১ সালের মধ্যে আরও ১৯ সেট ট্রেন এবং ডিপো ইকুইপমেন্ট সরবরাহ করবে।
মেট্রোরেলের জন্য যে কোচগুলো আনা হবে, তা হবে আধুনিক ও উচ্চ গুণগত মানসম্পন্ন স্টেইনলেস স্টিলের তৈরি এবং শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত। কোচের আসনগুলো লম্বালম্বিভাবে সাজানো থাকবে এবং প্রতিটি ট্রেনে দুটি হুইল চেয়ারের ব্যবস্থা থাকবে। এছাড়া থাকবে স্মার্টকাড টিকিটিং পদ্ধতি।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যর মাঝে বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের মান্যবর রাষ্ট্রদূত মাসাতো ওয়াতানাবে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য নাজমুল হক প্রধান, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এমএএন ছিদ্দিক, জাইকার চিফ রিপ্রেজেন্টেটিভ তাকাতোশি নিশিকাতা বক্তব্য রাখেন।