ঢাকা ০৬:০৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মেহেদীর অলরাউন্ড নৈপুণ্যে ঢাকার জয়

খেলাধূলা ডেস্ক:

মেহেদী হাসানের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সকে ৫ উইকেটে হারাল ঢাকা প্লাটুন। বিপিএলে সোমবার দিনের প্রথম ম্যাচে কুমিল্লার দেয়া ১৬১ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে ১৯.৫ ওভারে ৫ উইকেট হাতে রেখে জয় পায় ঢাকা।

বল হাতে ৪ ওভারে ৯ রানে ২ উইকেট নেয়ার পর ব্যাট হাতে ২৯ বলে ৫৯ রান করেন মেহেদী হাসান। যার ফলে ম্যাচসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারও উঠেছে তার হাতে। ঢাকার অন্য ব্যাটসম্যানদের মধ্যে শহীদ আফ্রিদি ১৬ বলে ২৬ রান করে অপরাজিত থাকেন। ২৮ রান করে অপরাজিত থাকেন মুমিনুল হক। কুমিল্লার বোলারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ২টি উইকেট নেন মুজিব উর রহমান।

পাঁচ ম্যাচ খেলে ঢাকার এটি ‍তৃতীয় জয়। ৬ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলে তারা এখন তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে। অন্যদিকে, ৫ ম্যাচ খেলে ৪ পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম অবস্থানে আছে কুমিল্লা।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ঢাকা প্লাটুন ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংসের প্রথম ওভারেই ওপেনার এনামুল হক বিজয়কে হারায়। দুই বলে ০ রান করে ফিরে যান তিনি। এরপর ক্রিজে আসেন মেহেদী হাসান। নেমেই ঝড় তোলেন তিনি। ২২ বলে পূরণ করেন ব্যক্তিগত অর্ধশত। যেকোনো ধরনের টি-টোয়েন্টিতে এটি তার প্রথম অর্ধশত।

দলীয় ৮৪ রানে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ হন মেহেদী। ২৯ বলে ২টি চার ও ৭টি ছক্কার সাহায্যে ৫৯ রান করেন এই তরুণ ব্যাটসম্যান। মেহেদী আউট হওয়ার পর আসিফ আলী এবং জাকের আলী দুজনই ব্যক্তিগত শূন্য রানে আউট হন। ১৬তম ওভারে সৌম্যর বলে মালানের হাতে ধরা পড়েন তামিম। এরপর মুমিনুল ও আফ্রিদি জুটি বেঁধে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেটে ১৬০ রান সংগ্রহ করে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স। দলের ওপেনার ভানুকা রাজাপক্ষে ৪ রানের জন্য সেঞ্চুরি করতে পারেননি। ৬৫ বলে চারটি চার ও ৭টি ছক্কার সাহায্যে ৯৬ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি।

এছাড়া ২৭ বলে ৩০ রান করে অপরাজিত থাকেন ইয়াসির আলী। ঢাকা প্লাটুনের স্পিনার মেহেদী হাসান ৪ ওভারে ৯ রান দিয়ে ২টি উইকেট নেন। এছাড়া শাদব খান নেন ১টি উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ফল: ৫ উইকটে জয়ী ঢাকা প্লাটুন।

কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স ইনিংস: ১৬০/৩ (২০ ওভার)

(ভানুকা ৯৬*, সৌম্য ১০, সাব্বির ০, মালান ৯, ইয়াসির ৩০*; মাশরাফি ০/২১, মেহেদী হাসান ২/৯, হাসান মাহমুদ ০/৩৪, ওয়াহাব রিয়াজ ০/৩২, শাদব খান ১/৩২, শহীদ আফ্রিদি ০/২৩)।

ঢাকা প্লাটুন ইনিংস: ১৬১/৫ (১৯.৫ ওভার)

(তামিম ৩৪, এনামুল ০, মেহেদী হাসান ৫৯, আসিফ আলী ০, জাকের আলী ০, মুমিনুল হক ২৮*, শহীদ আফ্রিদি ২৬*; রবি ১/৪৪, মুজিব উর রহমান ২/২২, সুমন খান ০/৩৪, আল-আমিন হোসেন ১/২৯, সৌম্য ১/২৯)।

ম্যাচসেরা: মেহেদী হাসান (ঢাকা প্লাটুন)।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগরে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

মেহেদীর অলরাউন্ড নৈপুণ্যে ঢাকার জয়

আপডেট সময় ১১:৫৪:৩২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০১৯

খেলাধূলা ডেস্ক:

মেহেদী হাসানের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সকে ৫ উইকেটে হারাল ঢাকা প্লাটুন। বিপিএলে সোমবার দিনের প্রথম ম্যাচে কুমিল্লার দেয়া ১৬১ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে ১৯.৫ ওভারে ৫ উইকেট হাতে রেখে জয় পায় ঢাকা।

বল হাতে ৪ ওভারে ৯ রানে ২ উইকেট নেয়ার পর ব্যাট হাতে ২৯ বলে ৫৯ রান করেন মেহেদী হাসান। যার ফলে ম্যাচসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারও উঠেছে তার হাতে। ঢাকার অন্য ব্যাটসম্যানদের মধ্যে শহীদ আফ্রিদি ১৬ বলে ২৬ রান করে অপরাজিত থাকেন। ২৮ রান করে অপরাজিত থাকেন মুমিনুল হক। কুমিল্লার বোলারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ২টি উইকেট নেন মুজিব উর রহমান।

পাঁচ ম্যাচ খেলে ঢাকার এটি ‍তৃতীয় জয়। ৬ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলে তারা এখন তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে। অন্যদিকে, ৫ ম্যাচ খেলে ৪ পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম অবস্থানে আছে কুমিল্লা।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ঢাকা প্লাটুন ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংসের প্রথম ওভারেই ওপেনার এনামুল হক বিজয়কে হারায়। দুই বলে ০ রান করে ফিরে যান তিনি। এরপর ক্রিজে আসেন মেহেদী হাসান। নেমেই ঝড় তোলেন তিনি। ২২ বলে পূরণ করেন ব্যক্তিগত অর্ধশত। যেকোনো ধরনের টি-টোয়েন্টিতে এটি তার প্রথম অর্ধশত।

দলীয় ৮৪ রানে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ হন মেহেদী। ২৯ বলে ২টি চার ও ৭টি ছক্কার সাহায্যে ৫৯ রান করেন এই তরুণ ব্যাটসম্যান। মেহেদী আউট হওয়ার পর আসিফ আলী এবং জাকের আলী দুজনই ব্যক্তিগত শূন্য রানে আউট হন। ১৬তম ওভারে সৌম্যর বলে মালানের হাতে ধরা পড়েন তামিম। এরপর মুমিনুল ও আফ্রিদি জুটি বেঁধে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেটে ১৬০ রান সংগ্রহ করে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স। দলের ওপেনার ভানুকা রাজাপক্ষে ৪ রানের জন্য সেঞ্চুরি করতে পারেননি। ৬৫ বলে চারটি চার ও ৭টি ছক্কার সাহায্যে ৯৬ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি।

এছাড়া ২৭ বলে ৩০ রান করে অপরাজিত থাকেন ইয়াসির আলী। ঢাকা প্লাটুনের স্পিনার মেহেদী হাসান ৪ ওভারে ৯ রান দিয়ে ২টি উইকেট নেন। এছাড়া শাদব খান নেন ১টি উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ফল: ৫ উইকটে জয়ী ঢাকা প্লাটুন।

কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স ইনিংস: ১৬০/৩ (২০ ওভার)

(ভানুকা ৯৬*, সৌম্য ১০, সাব্বির ০, মালান ৯, ইয়াসির ৩০*; মাশরাফি ০/২১, মেহেদী হাসান ২/৯, হাসান মাহমুদ ০/৩৪, ওয়াহাব রিয়াজ ০/৩২, শাদব খান ১/৩২, শহীদ আফ্রিদি ০/২৩)।

ঢাকা প্লাটুন ইনিংস: ১৬১/৫ (১৯.৫ ওভার)

(তামিম ৩৪, এনামুল ০, মেহেদী হাসান ৫৯, আসিফ আলী ০, জাকের আলী ০, মুমিনুল হক ২৮*, শহীদ আফ্রিদি ২৬*; রবি ১/৪৪, মুজিব উর রহমান ২/২২, সুমন খান ০/৩৪, আল-আমিন হোসেন ১/২৯, সৌম্য ১/২৯)।

ম্যাচসেরা: মেহেদী হাসান (ঢাকা প্লাটুন)।