ঢাকা ০৯:২০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

‘মোরা’ নামকরণ হলো যেভাবে

জাতীয় ডেস্কঃ
ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ চট্টগ্রাম-কক্সবাজার উপকূল অতিক্রম করছে। কক্সবাজারের টেকনাফসহ আশেপাশের এলাকায় প্রবল বেগে বইছে ঝড়। সঙ্গে রয়েছে বৃষ্টি। বাড়ছে বাতাসের গতিবেগ। বর্তমানে ঘর্ণিঝড়টি চট্টগ্রাম অতিক্রম করছে।
ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’র অর্থ কী জানেন! ‘মোরা’ শব্দটি কোথা থেকে আসলো! কোথায় কখন কোন ঘূর্ণিঝড় হয়, তা নির্ধারণের জন্য ঝড়ের আগাম নামকরণ করা হয়ে থাকে। ১৯৪৫ সাল থেকে এ নামকরণ শুরু হয়। সাধারণত আঞ্চলিক পর্যায়ের নিয়ম অনুসরণ করে এসব ঘূর্ণিঝড়ের নামকরণ করা হয়।
আবহাওয়া অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশে আঘাত হানা ঘূর্ণিঝড়টির ‘মোরা’ নামকরণ করা হয়েছে থাইল্যান্ড থেকে, তাদের প্রস্তাবে। ‘মোরা’ থাই শব্দ, ইংরেজি অর্থ হলো ‘স্টার অব দ্য সি’। যার বাংলা দাড়ায় ‘সাগরের তারা বা তারকা’।
চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে থাইল্যান্ডে এসকাপ ও ডব্লিউএমওর ঘূর্ণিঝড় বিশেষজ্ঞ প্যানেলের বৈঠকে ছয়টি ঘূর্ণিঝড়ের নাম আগাম ঠিক করে রাখা হয়। প্রথম ঘূর্ণিঝড়টি গত ১৭ এপ্রিলে ভারত উপকূলে দুর্বল অবস্থায় আঘাত হানে। এর পরের ঘূর্ণিঝড়ের নাম রাখা হয়েছিল মোরা। যা বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হেনেছে।
পর্যায়ক্রমে ঘূর্ণিঝড়গুলোর নাম রাখা হয়েছে ওচি, সাগর, ম্যাকুনু ও ডায়ে। উল্লেখ্য, ১৯৯৯ সালে ওডিশায় ঘূর্ণিঝড়ের পর ২০০০ সালে ওয়ার্ল্ড মেটিওরলজিক্যাল অর্গানাইজেশন (ডব্লিউএমও) ও এসকাপ এক বৈঠকে উত্তর ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলে ঘূর্ণিঝড়ের নামকরণে সহমত প্রকাশ করে।
ইত্তেফাক
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

‘মোরা’ নামকরণ হলো যেভাবে

আপডেট সময় ০২:৩১:০১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ মে ২০১৭
জাতীয় ডেস্কঃ
ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ চট্টগ্রাম-কক্সবাজার উপকূল অতিক্রম করছে। কক্সবাজারের টেকনাফসহ আশেপাশের এলাকায় প্রবল বেগে বইছে ঝড়। সঙ্গে রয়েছে বৃষ্টি। বাড়ছে বাতাসের গতিবেগ। বর্তমানে ঘর্ণিঝড়টি চট্টগ্রাম অতিক্রম করছে।
ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’র অর্থ কী জানেন! ‘মোরা’ শব্দটি কোথা থেকে আসলো! কোথায় কখন কোন ঘূর্ণিঝড় হয়, তা নির্ধারণের জন্য ঝড়ের আগাম নামকরণ করা হয়ে থাকে। ১৯৪৫ সাল থেকে এ নামকরণ শুরু হয়। সাধারণত আঞ্চলিক পর্যায়ের নিয়ম অনুসরণ করে এসব ঘূর্ণিঝড়ের নামকরণ করা হয়।
আবহাওয়া অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশে আঘাত হানা ঘূর্ণিঝড়টির ‘মোরা’ নামকরণ করা হয়েছে থাইল্যান্ড থেকে, তাদের প্রস্তাবে। ‘মোরা’ থাই শব্দ, ইংরেজি অর্থ হলো ‘স্টার অব দ্য সি’। যার বাংলা দাড়ায় ‘সাগরের তারা বা তারকা’।
চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে থাইল্যান্ডে এসকাপ ও ডব্লিউএমওর ঘূর্ণিঝড় বিশেষজ্ঞ প্যানেলের বৈঠকে ছয়টি ঘূর্ণিঝড়ের নাম আগাম ঠিক করে রাখা হয়। প্রথম ঘূর্ণিঝড়টি গত ১৭ এপ্রিলে ভারত উপকূলে দুর্বল অবস্থায় আঘাত হানে। এর পরের ঘূর্ণিঝড়ের নাম রাখা হয়েছিল মোরা। যা বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হেনেছে।
পর্যায়ক্রমে ঘূর্ণিঝড়গুলোর নাম রাখা হয়েছে ওচি, সাগর, ম্যাকুনু ও ডায়ে। উল্লেখ্য, ১৯৯৯ সালে ওডিশায় ঘূর্ণিঝড়ের পর ২০০০ সালে ওয়ার্ল্ড মেটিওরলজিক্যাল অর্গানাইজেশন (ডব্লিউএমও) ও এসকাপ এক বৈঠকে উত্তর ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলে ঘূর্ণিঝড়ের নামকরণে সহমত প্রকাশ করে।
ইত্তেফাক