ঢাকা ১১:২৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যে গণতন্ত্রের জন্য মুক্তিযুদ্ধ, তা এখন অবরুদ্ধ : ফখরুল

জাতীয় ডেস্কঃ

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, যে গণতন্ত্র রক্ষার জন্য মুক্তিযুদ্ধ হয়েছিল, তা এখন অবরুদ্ধ। মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সোমবার ৯টা ৪৫ মিনিটে সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় ফখরুল বলেন, আপনারা দেখতে পাচ্ছেন, বাংলাদেশের তিনবারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী এখন জেলখানায় আটক। মানুষের বাক স্বাধীনতা নেই। রাজনীতি করার অধিকার নেই। কোথাও গণতন্ত্র নেই।

জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পাঁচ বছর সাজা হওয়ায় তিনি এখন কারাগারে আছেন। বিএনপির মহাসচিব বলেন, আমরা গণতত্ন ফিরিয়ে আনার লড়াই করছি, গণতন্ত্র ফিরে না আসা পর্যন্ত লড়াই চলবে।

শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় মির্জা ফখরুল ইসলামের সঙ্গে দলের স্থায়ী ক‌মি‌টির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান আমান উল্লাহ আমান, ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি ডা. দেওয়ান সালাউদ্দিন বাবু উপস্থিত ছিলেন। বিএনপির অঙ্গ ও সহ‌যোগী সংগঠনের নেতারা স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

যে গণতন্ত্রের জন্য মুক্তিযুদ্ধ, তা এখন অবরুদ্ধ : ফখরুল

আপডেট সময় ০২:৩৯:২৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ মার্চ ২০১৮
জাতীয় ডেস্কঃ

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, যে গণতন্ত্র রক্ষার জন্য মুক্তিযুদ্ধ হয়েছিল, তা এখন অবরুদ্ধ। মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সোমবার ৯টা ৪৫ মিনিটে সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় ফখরুল বলেন, আপনারা দেখতে পাচ্ছেন, বাংলাদেশের তিনবারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী এখন জেলখানায় আটক। মানুষের বাক স্বাধীনতা নেই। রাজনীতি করার অধিকার নেই। কোথাও গণতন্ত্র নেই।

জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পাঁচ বছর সাজা হওয়ায় তিনি এখন কারাগারে আছেন। বিএনপির মহাসচিব বলেন, আমরা গণতত্ন ফিরিয়ে আনার লড়াই করছি, গণতন্ত্র ফিরে না আসা পর্যন্ত লড়াই চলবে।

শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় মির্জা ফখরুল ইসলামের সঙ্গে দলের স্থায়ী ক‌মি‌টির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান আমান উল্লাহ আমান, ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি ডা. দেওয়ান সালাউদ্দিন বাবু উপস্থিত ছিলেন। বিএনপির অঙ্গ ও সহ‌যোগী সংগঠনের নেতারা স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।