ঢাকা ০৬:১৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্রেই ইউক্রেনে বিমান ভূপাতিত হয়েছিল’

প্রবাস ডেস্কঃ
মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট এমএইচ ১৭ রাশিয়ায় তৈরি ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপণযোগ্য (স্যাম) ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে বিধ্বস্ত হয়েছিল বলে নেদারল্যান্ডসের তদন্তকারীরা দাবি করেছেন।
বুধবার তদন্তকারীরা বলেন, বাক ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতেই যে বিমানটি ভূপাতিত হয়েছিল এব্যাপারে তাদের কাছে শক্ত প্রমাণ আছে। ক্ষেপণাস্ত্রগুলো রাশিয়া থেকে পূর্ব ইউক্রেনে আনা হয়েছিল।
তদন্তকারী দলের প্রধান উইলবার্ট পলিসেন বলেন, মস্কোপন্থী বিদ্রোহীরা ভ্রাম্যমাণ স্যাম ক্ষেপণাস্ত্র চেয়ে রাশিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল। পূর্ব ইউক্রেনে বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এলাকায় এই অস্ত্র এসে পৌঁছানোর কথাও তারা জানিয়েছিল।
সংবাদ সম্মেলনে তারা বলেন, যৌথ তদন্ত দলের কাছে এই প্রমাণসহ অন্যান্য যেসব উপাত্ত রয়েছে তা থেকে প্রমাণ করা যায় যে বাক মিসাইল দিয়েই এমএইচ১৭ ফ্লাইটটিকে ভূপাতিত করে হয়েছিল। এই ঘটনার পর ক্ষেপণাস্ত্রগুলো রাশিয়াকে ফেরত দিয়ে দেয় বিদ্রোহীরা।
নেদারল্যান্ডসের পৃথক একটি তদন্তেও বিমান ভূপাতিত হওয়ার জন্য বিদ্রোহীদের দায়ী করা হয়েছিল। তখন অবশ্য রাশিয়া এই অভিযোগ অস্বীকার করে ইউক্রেনকেই দায়ী করেছিল।
আমস্টারডাম থেকে কুয়ালালামপুরগামী বিমানটি ইউক্রেনের ওপর দিয়ে যাওয়ার সময় বিধ্বস্ত হয়। এতে বিমানে থাকা ২৯৮ জনের সবাই নিহত হয়। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস/এমএএস
ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

মুরাদনগর বাবুটিপাড়া ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতির ইন্তেকাল

‘রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্রেই ইউক্রেনে বিমান ভূপাতিত হয়েছিল’

আপডেট সময় ০২:২৭:৪৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬
প্রবাস ডেস্কঃ
মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট এমএইচ ১৭ রাশিয়ায় তৈরি ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপণযোগ্য (স্যাম) ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে বিধ্বস্ত হয়েছিল বলে নেদারল্যান্ডসের তদন্তকারীরা দাবি করেছেন।
বুধবার তদন্তকারীরা বলেন, বাক ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতেই যে বিমানটি ভূপাতিত হয়েছিল এব্যাপারে তাদের কাছে শক্ত প্রমাণ আছে। ক্ষেপণাস্ত্রগুলো রাশিয়া থেকে পূর্ব ইউক্রেনে আনা হয়েছিল।
তদন্তকারী দলের প্রধান উইলবার্ট পলিসেন বলেন, মস্কোপন্থী বিদ্রোহীরা ভ্রাম্যমাণ স্যাম ক্ষেপণাস্ত্র চেয়ে রাশিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল। পূর্ব ইউক্রেনে বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এলাকায় এই অস্ত্র এসে পৌঁছানোর কথাও তারা জানিয়েছিল।
সংবাদ সম্মেলনে তারা বলেন, যৌথ তদন্ত দলের কাছে এই প্রমাণসহ অন্যান্য যেসব উপাত্ত রয়েছে তা থেকে প্রমাণ করা যায় যে বাক মিসাইল দিয়েই এমএইচ১৭ ফ্লাইটটিকে ভূপাতিত করে হয়েছিল। এই ঘটনার পর ক্ষেপণাস্ত্রগুলো রাশিয়াকে ফেরত দিয়ে দেয় বিদ্রোহীরা।
নেদারল্যান্ডসের পৃথক একটি তদন্তেও বিমান ভূপাতিত হওয়ার জন্য বিদ্রোহীদের দায়ী করা হয়েছিল। তখন অবশ্য রাশিয়া এই অভিযোগ অস্বীকার করে ইউক্রেনকেই দায়ী করেছিল।
আমস্টারডাম থেকে কুয়ালালামপুরগামী বিমানটি ইউক্রেনের ওপর দিয়ে যাওয়ার সময় বিধ্বস্ত হয়। এতে বিমানে থাকা ২৯৮ জনের সবাই নিহত হয়। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস/এমএএস