ঢাকা ০৯:২২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লন্ডনে প্রবাসী ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য মনিপুর সরকারের ঘোষণা!

আন্তর্জাতিক

ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য মনিপুরের স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছেন লন্ডনে নির্বাসিত দুই বিদ্রোহী নেতা। গতকাল মঙ্গলবার যুক্তরাজ্যে এ ঘোষণা দেয়ার পাশাপাশি তারা প্রবাসী সরকার গঠনের ঘোষণা দেন। পাশাপাশি এ ঘোষণা মনিপুরের রাজা লেইশেম্বা সানাজাওবার পক্ষ থেকে দেয়া হয়েছে বলেও দাবি করেছেন ওই দুই নেতা।

আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, লন্ডনে বসবাসরত দুই মনিপুরী নেতা ইয়ামবিন বিরেন ও নরেংবাম সমরজিৎ সংবাদ সম্মেলন করে ‘প্রবাসী মনিপুর সরকার’ গঠনের ঘোষণা দেন। বিরেন নিজেকে মনিপুর স্টেট কাউন্সিলের মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেন। আর সমরজিৎ দাবি করেছেন তিনি নবগঠিত সরকারের পররাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী।

তবে এ বিষয়ে যুক্তরাজ্যে ভারতীয় হাইকমিশন থেকে কিংবা ভারত সরকারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। আর মুনপুরী রাজাও মুখ খোলেননি।

সংবাদ সম্মেলনে নরেংবাম সমরজিৎ বলেন, ‘আমরা জাতিসংঘে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতির জন্য চেষ্টা চালাবো। আমরা বিভিন্ন দেশের কাছে স্বাধীনতার স্বীকৃতি চাইব… জাতিসংঘের সদস্য হওয়ার জন্য। আমরা আশা করছি, অনেক দেশ আমাদের স্বাধীনতাকে স্বীকৃতি দেবে।’

উল্লেখ্য, ভারতের সবচেয়ে ছোট রাজ্যগুলোর একটি মনিপুর। এর জনসংখ্যা প্রায় ২৮ লাখ। তাদের সংখ্যাগরিষ্টই মনিপুরি জনগৌষ্ঠীর।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগরে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

লন্ডনে প্রবাসী ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য মনিপুর সরকারের ঘোষণা!

আপডেট সময় ০৩:৩৭:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩০ অক্টোবর ২০১৯

আন্তর্জাতিক

ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য মনিপুরের স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছেন লন্ডনে নির্বাসিত দুই বিদ্রোহী নেতা। গতকাল মঙ্গলবার যুক্তরাজ্যে এ ঘোষণা দেয়ার পাশাপাশি তারা প্রবাসী সরকার গঠনের ঘোষণা দেন। পাশাপাশি এ ঘোষণা মনিপুরের রাজা লেইশেম্বা সানাজাওবার পক্ষ থেকে দেয়া হয়েছে বলেও দাবি করেছেন ওই দুই নেতা।

আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, লন্ডনে বসবাসরত দুই মনিপুরী নেতা ইয়ামবিন বিরেন ও নরেংবাম সমরজিৎ সংবাদ সম্মেলন করে ‘প্রবাসী মনিপুর সরকার’ গঠনের ঘোষণা দেন। বিরেন নিজেকে মনিপুর স্টেট কাউন্সিলের মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেন। আর সমরজিৎ দাবি করেছেন তিনি নবগঠিত সরকারের পররাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী।

তবে এ বিষয়ে যুক্তরাজ্যে ভারতীয় হাইকমিশন থেকে কিংবা ভারত সরকারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। আর মুনপুরী রাজাও মুখ খোলেননি।

সংবাদ সম্মেলনে নরেংবাম সমরজিৎ বলেন, ‘আমরা জাতিসংঘে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতির জন্য চেষ্টা চালাবো। আমরা বিভিন্ন দেশের কাছে স্বাধীনতার স্বীকৃতি চাইব… জাতিসংঘের সদস্য হওয়ার জন্য। আমরা আশা করছি, অনেক দেশ আমাদের স্বাধীনতাকে স্বীকৃতি দেবে।’

উল্লেখ্য, ভারতের সবচেয়ে ছোট রাজ্যগুলোর একটি মনিপুর। এর জনসংখ্যা প্রায় ২৮ লাখ। তাদের সংখ্যাগরিষ্টই মনিপুরি জনগৌষ্ঠীর।