ঢাকা ০৮:৪৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লাকসাম বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড : ৩শ কোটি টাকার ক্ষতি

বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার লাকসাম উপজেলা সদরের দৌলতগঞ্জ বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে আড়াই শতাধিক দোকান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে প্রায় ৩শ কোটির টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ব্যবসায়ীরা দাবি করেছেন।

শুক্রবার রাত ১১টার দিকে বাজারের মনোহরপট্টিতে আগুনের সূত্রপাত হলে পরে তা পুরো বাজারে ছড়িয়ে পড়ে। রাত আড়াইটার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।
পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও ব্যবসায়ীরা জানান, রাত ১১টার দিকে যখন অধিকাংশ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানই বন্ধ তখন দৌলতগঞ্জ বাজারের মনোহরপট্টির একটি দোকান থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়ে পরে তা পুরো বাজারে ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে লাকসাম, সদর দক্ষিণ ও কুমিল্লা থেকে ফায়ার সার্ভিসের ৬টি ইউনিট চেষ্টার পর রাত আড়াইটার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়।

বাজারের ব্যবসায়ী মুজাহিদুল ইসলাম, সেলিম মিয়া ও আক্তার হোসেন জানান, আগুনে স্টেশনারি, কাপড় ও স্বর্ণ দোকানসহ আড়াই শতাধিক দোকান পুড়ে গেছে। এতে অন্তত ৩শ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

লাকসাম থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল মাহফুজ জানান, আগুনে মনোহরপট্টি, কাপড়িয়াপট্টি, বিছানাপট্টি এবং স্বর্ণ পট্টিতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তবে এখনো আগুন লাগার কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

লাকসাম বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড : ৩শ কোটি টাকার ক্ষতি

আপডেট সময় ০২:০৬:৫০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২১ জানুয়ারী ২০১৭
বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার লাকসাম উপজেলা সদরের দৌলতগঞ্জ বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে আড়াই শতাধিক দোকান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে প্রায় ৩শ কোটির টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ব্যবসায়ীরা দাবি করেছেন।

শুক্রবার রাত ১১টার দিকে বাজারের মনোহরপট্টিতে আগুনের সূত্রপাত হলে পরে তা পুরো বাজারে ছড়িয়ে পড়ে। রাত আড়াইটার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।
পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও ব্যবসায়ীরা জানান, রাত ১১টার দিকে যখন অধিকাংশ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানই বন্ধ তখন দৌলতগঞ্জ বাজারের মনোহরপট্টির একটি দোকান থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়ে পরে তা পুরো বাজারে ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে লাকসাম, সদর দক্ষিণ ও কুমিল্লা থেকে ফায়ার সার্ভিসের ৬টি ইউনিট চেষ্টার পর রাত আড়াইটার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়।

বাজারের ব্যবসায়ী মুজাহিদুল ইসলাম, সেলিম মিয়া ও আক্তার হোসেন জানান, আগুনে স্টেশনারি, কাপড় ও স্বর্ণ দোকানসহ আড়াই শতাধিক দোকান পুড়ে গেছে। এতে অন্তত ৩শ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

লাকসাম থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল মাহফুজ জানান, আগুনে মনোহরপট্টি, কাপড়িয়াপট্টি, বিছানাপট্টি এবং স্বর্ণ পট্টিতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তবে এখনো আগুন লাগার কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।