ঢাকা ১২:৫০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লেবাননে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ, আহত ৫৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে সরকার বিরোধী বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ কমপক্ষে ৫৪ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে বিবিসি। বিক্ষোভকারীরা ব্যারিকেড ভেঙ্গে পার্লামেন্টগামী সড়ক ধরে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ টিয়ার গ্যাস ছুঁড়ে তাদের প্রতিরোধ করে। এদিকে বিক্ষোভকারীরা জানান, মুখোশধারী কিছু মানুষ তাদের ওপর আক্রমণ করায় পার্লামেন্ট ভবনের দিকে যেত বাধ্য হন তারা।

লেবাননে নতুন প্রধানমন্ত্রী নিয়োগের জন্যে আগামী সপ্তাহে আলোচনার দিনক্ষণ ঠিক করা হয়েছে। গত ১৭ অক্টোবর থেকে নজিরবিহীন বিক্ষোভ চলছে দেশটিতে। সেখানকার সার্বিক রাজনৈতিক সংস্কারের দাবিতে এ বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। গত ২৯ অক্টোবর বিক্ষোভের মুখে সরকার পদত্যাগ করলেও রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে তীব্র বিভক্তির কারণে নতুন প্রধানমন্ত্রীর বিষয়ে এখনো কোন সিদ্ধান্ত আসেনি। সোমবার নতুন করে আলোচনার দিন ঠিক করা হয়েছে।

শনিবারের বিক্ষোভ শুরু হয়েছে পার্লামেন্টে ঢোকার সড়কের মুখে যেখানে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা ব্যারিকেড দিয়ে রেখেছিল।

স্থানীয় টিভি চ্যানেল এলবিসি’র খবরে দেখানো হয়েছে, সরকার বিরোধীরা পুলিশ ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা করছে। আর পুলিশ টিয়ার গ্যাস ছুঁড়ছে ও বিক্ষোভকারীদের পেটাচ্ছে। দেশটিতে প্রথমদিকে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ চললেও সম্প্রতি তা সহিংসতায় রূপ নিয়েছে। নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা বিক্ষোভ দমনে শক্তি প্রয়োগ শুরু করেছে।

এদিকে, লেবাননে এমন এক সময়ে নতুন সরকার গঠিত হতে যাচ্ছে যখন দেশটির আর্থিক সংকট চরমে। বিক্ষোভকারীরা গতানুগতিক রাজনৈতিক দলগুলোর বাইরে বিশেষজ্ঞদের মধ্য থেকে সরকার গঠনের দাবি জানিয়েছে। কিন্তু বিশ্লেষকরা মনে করছেন এটি খুব একটা সহজ হবে না। বাসস ও বিবিসি।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগরে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

লেবাননে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ, আহত ৫৪

আপডেট সময় ০২:১৬:০৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে সরকার বিরোধী বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ কমপক্ষে ৫৪ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে বিবিসি। বিক্ষোভকারীরা ব্যারিকেড ভেঙ্গে পার্লামেন্টগামী সড়ক ধরে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ টিয়ার গ্যাস ছুঁড়ে তাদের প্রতিরোধ করে। এদিকে বিক্ষোভকারীরা জানান, মুখোশধারী কিছু মানুষ তাদের ওপর আক্রমণ করায় পার্লামেন্ট ভবনের দিকে যেত বাধ্য হন তারা।

লেবাননে নতুন প্রধানমন্ত্রী নিয়োগের জন্যে আগামী সপ্তাহে আলোচনার দিনক্ষণ ঠিক করা হয়েছে। গত ১৭ অক্টোবর থেকে নজিরবিহীন বিক্ষোভ চলছে দেশটিতে। সেখানকার সার্বিক রাজনৈতিক সংস্কারের দাবিতে এ বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। গত ২৯ অক্টোবর বিক্ষোভের মুখে সরকার পদত্যাগ করলেও রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে তীব্র বিভক্তির কারণে নতুন প্রধানমন্ত্রীর বিষয়ে এখনো কোন সিদ্ধান্ত আসেনি। সোমবার নতুন করে আলোচনার দিন ঠিক করা হয়েছে।

শনিবারের বিক্ষোভ শুরু হয়েছে পার্লামেন্টে ঢোকার সড়কের মুখে যেখানে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা ব্যারিকেড দিয়ে রেখেছিল।

স্থানীয় টিভি চ্যানেল এলবিসি’র খবরে দেখানো হয়েছে, সরকার বিরোধীরা পুলিশ ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা করছে। আর পুলিশ টিয়ার গ্যাস ছুঁড়ছে ও বিক্ষোভকারীদের পেটাচ্ছে। দেশটিতে প্রথমদিকে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ চললেও সম্প্রতি তা সহিংসতায় রূপ নিয়েছে। নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা বিক্ষোভ দমনে শক্তি প্রয়োগ শুরু করেছে।

এদিকে, লেবাননে এমন এক সময়ে নতুন সরকার গঠিত হতে যাচ্ছে যখন দেশটির আর্থিক সংকট চরমে। বিক্ষোভকারীরা গতানুগতিক রাজনৈতিক দলগুলোর বাইরে বিশেষজ্ঞদের মধ্য থেকে সরকার গঠনের দাবি জানিয়েছে। কিন্তু বিশ্লেষকরা মনে করছেন এটি খুব একটা সহজ হবে না। বাসস ও বিবিসি।