ঢাকা ০৪:১৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শততম টেস্টে টাইগারদের ঐতিহাসিক জয়

খেলাধুলা ডেস্কঃ
শততম ওয়ানডের পর শততম টেস্টটা জয় দিয়ে স্মরণীয় করে রাখল বাংলাদেশ। কলম্বোর পি সারা ওভালে শ্রীলঙ্কাকে উইকেট হারালো টাইগাররা।
চতুর্থ ইনিংসে শ্রীলঙ্কার ১৯১ রানের জবাবে ৪ উইকেট হাতে রেখেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায়। জয়সূচক রানটি আসে মেহেদি হাসান মিরাজের ব্যাট থেকে। তার সঙ্গে ২২ রান করে অপরাজিত ছিলেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। ইতিহাসের চতুর্থ দল হিসেবে শততম টেস্ট জিতল বাংলাদেশ। এই জয়ে দুই ম্যাচের সিরিজেও সমতায় শেষ করল মুশফিকুর রহিমের দল।
শততম টেস্টে টাইগারদের ঐতিহাসিক জয়
প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ১২৯ রানের লিড টপকে সবক’টি উইকেট হারিয়ে শ্রীলঙ্কার লিড হয় ১৯০ রান। আর দলীয় সংগ্রহ ৩১৯। ১৯১ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ২২ রানে একই সাথে সৌম্য ও ইমরুল কায়েসকে হারায় বাংলাদেশ। সেখান থেকে সাব্বিরকে সঙ্গে নিয়ে তামিম ইকবাল ১০৯ রানের জুটি গড়ে তোলেন। পেরেরার বলে চান্ডিমালের হাতে ধরা পড়ার আগে ১২৫ বলে ৮২ রান করেন তামিম। দলীয় রান তখন ১৩১। দলীয় ১৪৩ রানে আউট হয়ে যান সাব্বির রহমানও। আউট হওয়ার আগে ৪২ রান করেছিলেন তিনি।
পেরেরার বলে পঞ্চম উইকেট হিসেবে সাকিবের পতনের পরে আশঙ্কা জেগে ওঠে। দলের তখন প্রয়োজন আরো ২৯ রান। মোসাদ্দেকের সঙ্গে ২৭ রানের এক লড়াকু জুটি গড়ে সেই আশঙ্কা দূর করেন মুশফিক। ১৮৯ রানে মোসাদ্দেক হেরাথের শিকার হয়ে ফেরত যাওয়ার পরে সুইপ করে দুই রান তুলে নিয়ে শততম টেস্ট জয় নিশ্চিত করেন মিরাজ।
ভক্তদের জয় উৎসর্গ করলেন মুশফিক
এর আগে কলম্বো টেস্টে প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কা করেছিলো ৩৩৮ রান। জবাবে সাকিব আল হাসানের দারুণ সেঞ্চুরি এবং মোসাদ্দেক, মুশফিক, সৌম্যদের ফিফটিতে ৪৬৭ রান করে বাংলাদেশ; লিড ১২৯ রানের। সেই লিডের জবাবে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং ধসের পরেও করুনারত্নের সেঞ্চুরি ও লোয়ার অর্ডারে দিলরুয়ান পেরেরার অর্ধশত রানে ১৯১ রানের লিড দিতে সক্ষম হয় শ্রীলংকা। কিন্তু শততম টেস্টটি স্মরণীয় করে রাখতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ বাংলাদেশ ৪ উইকেট হারিয়েই পৌছে যায় সেই লক্ষ্যে।
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

শততম টেস্টে টাইগারদের ঐতিহাসিক জয়

আপডেট সময় ০৩:১৯:০৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মার্চ ২০১৭
খেলাধুলা ডেস্কঃ
শততম ওয়ানডের পর শততম টেস্টটা জয় দিয়ে স্মরণীয় করে রাখল বাংলাদেশ। কলম্বোর পি সারা ওভালে শ্রীলঙ্কাকে উইকেট হারালো টাইগাররা।
চতুর্থ ইনিংসে শ্রীলঙ্কার ১৯১ রানের জবাবে ৪ উইকেট হাতে রেখেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায়। জয়সূচক রানটি আসে মেহেদি হাসান মিরাজের ব্যাট থেকে। তার সঙ্গে ২২ রান করে অপরাজিত ছিলেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। ইতিহাসের চতুর্থ দল হিসেবে শততম টেস্ট জিতল বাংলাদেশ। এই জয়ে দুই ম্যাচের সিরিজেও সমতায় শেষ করল মুশফিকুর রহিমের দল।
শততম টেস্টে টাইগারদের ঐতিহাসিক জয়
প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ১২৯ রানের লিড টপকে সবক’টি উইকেট হারিয়ে শ্রীলঙ্কার লিড হয় ১৯০ রান। আর দলীয় সংগ্রহ ৩১৯। ১৯১ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ২২ রানে একই সাথে সৌম্য ও ইমরুল কায়েসকে হারায় বাংলাদেশ। সেখান থেকে সাব্বিরকে সঙ্গে নিয়ে তামিম ইকবাল ১০৯ রানের জুটি গড়ে তোলেন। পেরেরার বলে চান্ডিমালের হাতে ধরা পড়ার আগে ১২৫ বলে ৮২ রান করেন তামিম। দলীয় রান তখন ১৩১। দলীয় ১৪৩ রানে আউট হয়ে যান সাব্বির রহমানও। আউট হওয়ার আগে ৪২ রান করেছিলেন তিনি।
পেরেরার বলে পঞ্চম উইকেট হিসেবে সাকিবের পতনের পরে আশঙ্কা জেগে ওঠে। দলের তখন প্রয়োজন আরো ২৯ রান। মোসাদ্দেকের সঙ্গে ২৭ রানের এক লড়াকু জুটি গড়ে সেই আশঙ্কা দূর করেন মুশফিক। ১৮৯ রানে মোসাদ্দেক হেরাথের শিকার হয়ে ফেরত যাওয়ার পরে সুইপ করে দুই রান তুলে নিয়ে শততম টেস্ট জয় নিশ্চিত করেন মিরাজ।
ভক্তদের জয় উৎসর্গ করলেন মুশফিক
এর আগে কলম্বো টেস্টে প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কা করেছিলো ৩৩৮ রান। জবাবে সাকিব আল হাসানের দারুণ সেঞ্চুরি এবং মোসাদ্দেক, মুশফিক, সৌম্যদের ফিফটিতে ৪৬৭ রান করে বাংলাদেশ; লিড ১২৯ রানের। সেই লিডের জবাবে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং ধসের পরেও করুনারত্নের সেঞ্চুরি ও লোয়ার অর্ডারে দিলরুয়ান পেরেরার অর্ধশত রানে ১৯১ রানের লিড দিতে সক্ষম হয় শ্রীলংকা। কিন্তু শততম টেস্টটি স্মরণীয় করে রাখতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ বাংলাদেশ ৪ উইকেট হারিয়েই পৌছে যায় সেই লক্ষ্যে।