ঢাকা ১২:৫৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে জমি দখল করে স্কুল নির্মানের অভিযোগ

 

২৪ ডিসেম্বর (মুরাদনগর বার্তা ডটকম ডেস্ক):

মুরাদনগর উপজেলার ছালিযাকান্দি ইউনিয়নের শোবিলারচর গ্রামে জোরপূবক জমি দখল করে শোবিলারচর পবিত্রবালা স্কুল নির্মানের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্থানী সূত্রে জানাযায়, মুরাদনগর-ঢাকা সড়কের শোবিলারচর নামক স্থানে ২০০২ সালে ঐ গ্রামের মৃত্য খগ্রেন্দ্র চন্দ্র শাহার ছেলে প্রর্বদ্যউৎ শাহা ও পিন্টু শাহা তাদের মায়ের নামে তিন শতক জমির উপর একটি স্কুল নির্মান করেন। পরে স্কুলটির পরিধি বির্ধির জন্য পার্শের জমি প্রয়োজন হলে, প্রতিষ্ঠাতারা ঐ জমির মালিক সৌলেন্দ্র শাহা, তপন শাহা, শেমল শাহা, রঞ্জিত শাহা কৃষ্ণ শাহা ও পাপন শাহার সাথে কথা বলে, এ জামির পরিবর্তে অন্য স্থানে জমি দেওয়ার শর্তে জমি দিতে রাজি হন। কিন্তু প্রতিষ্ঠানের কতিৃপক্ষ সে শর্ত নামেনে ১০ শতাংশ জমির উপর পাকা ভবন নির্মান করছে বলে অভিযোগ করে জমির মালিকরা।

এ ব্যাপারে জামির মালিক তপন শাহা অভিযোগ করে বলেন, বোরারচর মৌজার, ২৮ নং দাগে আমাদের ৯০ শতাংশ জমি রয়েছে। এ জমির সামনের অংশ ১০ শতাংশ জামি স্কুল কর্তিপক্ষ জোর করে ভবন নিমান করছে। দখল কারিরা নানান ভাবে আমাদের হুমকি দিচ্ছে। বিষয়টি স্থানীয় ভাবে ইউপি চেয়ারম্যানকে জানানো হয়েছে।

স্কুলেন প্রতিষ্ঠাতা প্রর্বদ্যউৎ শাহার মোবাইল ফোনে যোগাজোগের চেষ্টা করেও সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) বিপুল চন্দ্র বট্ট জানান, থানায় কেহ লিখিত ভাবে অভিযোগ করেনি, অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ট্যাগস

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

মুরাদনগরে জমি দখল করে স্কুল নির্মানের অভিযোগ

আপডেট সময় ০১:২২:৫১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৪

 

২৪ ডিসেম্বর (মুরাদনগর বার্তা ডটকম ডেস্ক):

মুরাদনগর উপজেলার ছালিযাকান্দি ইউনিয়নের শোবিলারচর গ্রামে জোরপূবক জমি দখল করে শোবিলারচর পবিত্রবালা স্কুল নির্মানের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্থানী সূত্রে জানাযায়, মুরাদনগর-ঢাকা সড়কের শোবিলারচর নামক স্থানে ২০০২ সালে ঐ গ্রামের মৃত্য খগ্রেন্দ্র চন্দ্র শাহার ছেলে প্রর্বদ্যউৎ শাহা ও পিন্টু শাহা তাদের মায়ের নামে তিন শতক জমির উপর একটি স্কুল নির্মান করেন। পরে স্কুলটির পরিধি বির্ধির জন্য পার্শের জমি প্রয়োজন হলে, প্রতিষ্ঠাতারা ঐ জমির মালিক সৌলেন্দ্র শাহা, তপন শাহা, শেমল শাহা, রঞ্জিত শাহা কৃষ্ণ শাহা ও পাপন শাহার সাথে কথা বলে, এ জামির পরিবর্তে অন্য স্থানে জমি দেওয়ার শর্তে জমি দিতে রাজি হন। কিন্তু প্রতিষ্ঠানের কতিৃপক্ষ সে শর্ত নামেনে ১০ শতাংশ জমির উপর পাকা ভবন নির্মান করছে বলে অভিযোগ করে জমির মালিকরা।

এ ব্যাপারে জামির মালিক তপন শাহা অভিযোগ করে বলেন, বোরারচর মৌজার, ২৮ নং দাগে আমাদের ৯০ শতাংশ জমি রয়েছে। এ জমির সামনের অংশ ১০ শতাংশ জামি স্কুল কর্তিপক্ষ জোর করে ভবন নিমান করছে। দখল কারিরা নানান ভাবে আমাদের হুমকি দিচ্ছে। বিষয়টি স্থানীয় ভাবে ইউপি চেয়ারম্যানকে জানানো হয়েছে।

স্কুলেন প্রতিষ্ঠাতা প্রর্বদ্যউৎ শাহার মোবাইল ফোনে যোগাজোগের চেষ্টা করেও সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) বিপুল চন্দ্র বট্ট জানান, থানায় কেহ লিখিত ভাবে অভিযোগ করেনি, অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।