ঢাকা ১২:৫১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সংসদ ভেঙে নির্বাচন চায় কল্যাণপার্টি ও ইসলামিক ফ্রন্ট

জাতীয় ডেস্কঃ
আগামী নির্বাচনের আগে সংসদ ভেঙে দিয়ে তত্ত্বাবধায়ক, নিরপেক্ষ, নির্দলীয় কিংবা অন্তবর্তীকালীন বন্ধুপ্রতিম সরকার চায় বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি। এ ছাড়া সব দলের সমান সুযোগ নিশ্চিত করার জন্য  জন্য নির্বাচনের অন্তত আট দিন আগে সেনাবাহিনী মোতায়েনের পরামর্শ দিয়েছে দলটি।
বৃহস্পতিবার কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিমের (বীর প্রতীক) নেতৃত্বে ১০ সদস্যের প্রতিনিধি দল নির্বাচন কমিশন আয়োজিত সংলাপে অংশ নেয় এবং  আট দফা সুপারিশ করেছে। একইদিন ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ সংলাপে অংশ নিয়ে সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি জানায়।
আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এ সংলাপে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে অন্যান্য কমিশনার ও ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব উপস্থিত ছিলেন।
সংলাপ শেষে বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি চেয়ারম্যান সাংবাদিকদের জানান, তারা চারটি বিষয়ের উপর প্রাধান্য দিয়েছেন। এর মধ্যে রয়েছে- সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য ইসির সক্ষমতা বৃদ্ধি, প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটাধিকার, সব দলের সঙ্গে আলোচনা করে নির্বাচনী আসনের সীমানা পুনর্নির্ধারণ ও জোটভুক্ত দলগুলোকে ওই জোটের শরিক দলের যে কোনো প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করার সুযোগ দেয়া।
তিনি বলেন, জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ১৫ বা ১০ দিন আগে বা কমপক্ষে আট দিন আগে আমরা সেনা মোতায়েনের দাবি জানিয়েছি।
বিকেলের সংলাপে ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর সংসদ ভেঙে দিয়ে তিন ধাপে নির্বাচন করার প্রস্তাব রাখে। এ ছাড়া দলটির প্রস্তাব,  জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী ও ভোটারদের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ১০০ আসন করে মোট  তিন ধাপে ৩০০ আসনে নির্বাচন করতে হবে।
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

সংসদ ভেঙে নির্বাচন চায় কল্যাণপার্টি ও ইসলামিক ফ্রন্ট

আপডেট সময় ০২:৫৭:৫৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭
জাতীয় ডেস্কঃ
আগামী নির্বাচনের আগে সংসদ ভেঙে দিয়ে তত্ত্বাবধায়ক, নিরপেক্ষ, নির্দলীয় কিংবা অন্তবর্তীকালীন বন্ধুপ্রতিম সরকার চায় বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি। এ ছাড়া সব দলের সমান সুযোগ নিশ্চিত করার জন্য  জন্য নির্বাচনের অন্তত আট দিন আগে সেনাবাহিনী মোতায়েনের পরামর্শ দিয়েছে দলটি।
বৃহস্পতিবার কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিমের (বীর প্রতীক) নেতৃত্বে ১০ সদস্যের প্রতিনিধি দল নির্বাচন কমিশন আয়োজিত সংলাপে অংশ নেয় এবং  আট দফা সুপারিশ করেছে। একইদিন ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ সংলাপে অংশ নিয়ে সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি জানায়।
আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এ সংলাপে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে অন্যান্য কমিশনার ও ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব উপস্থিত ছিলেন।
সংলাপ শেষে বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি চেয়ারম্যান সাংবাদিকদের জানান, তারা চারটি বিষয়ের উপর প্রাধান্য দিয়েছেন। এর মধ্যে রয়েছে- সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য ইসির সক্ষমতা বৃদ্ধি, প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটাধিকার, সব দলের সঙ্গে আলোচনা করে নির্বাচনী আসনের সীমানা পুনর্নির্ধারণ ও জোটভুক্ত দলগুলোকে ওই জোটের শরিক দলের যে কোনো প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করার সুযোগ দেয়া।
তিনি বলেন, জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ১৫ বা ১০ দিন আগে বা কমপক্ষে আট দিন আগে আমরা সেনা মোতায়েনের দাবি জানিয়েছি।
বিকেলের সংলাপে ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর সংসদ ভেঙে দিয়ে তিন ধাপে নির্বাচন করার প্রস্তাব রাখে। এ ছাড়া দলটির প্রস্তাব,  জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী ও ভোটারদের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ১০০ আসন করে মোট  তিন ধাপে ৩০০ আসনে নির্বাচন করতে হবে।