ঢাকা ০৮:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সরকার জঙ্গিবাদ নিয়ে জনগণকে অন্ধকারে রেখেছে: রিজভী

জাতীয় ডেস্কঃ
বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, জঙ্গিবাদ মোকাবেলায় সরকার কী ব্যবস্থা নিয়েছে তা আমরা জানি না। কেউ কেউ বলছে এসব ঘটনার সঙ্গে আইএস জড়িত। সরকার এ বিষয়ে জনগণকে অন্ধকারে রেখেছে। তাদের পরিস্কার করা উচিত। সমন্বিত উদ্যোগ না নিলে দেশে জঙ্গিবাদ নির্মূল হবে না।
শনিবার সকালে গুলশানে হলি আর্টিজান বেকারির ঘটনাস্থলে নিহতের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের পর উপস্থিত সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি। রিজভীর নেতৃত্ব ৬ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল গুলশানের ৭৯নং সড়কের হলি আর্টিজান বেকারির প্রাঙ্গণে নিহতের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে পুস্পমাল্য অর্পন করেন।

রিজভী বলেন, এই দেশ ও জাতির জন্য আজকের দিনটি একটি কালো অধ্যায়। দেশ-বিদেশের এতগুলো মানুষ উগ্রবাদী জঙ্গিদের হাতে নির্মমভাবে নিহত হওয়া এটি নিঃসন্দেহে আমাদের আবহমান বাংলার যে সংস্কৃতি, সামপ্রদায়িক সমপ্রীতি এবং দেশের যে এগিয়ে চলা, আমরা যে সমপ্রীতির পক্ষে, প্রগতির পক্ষে, অগ্রগতির পক্ষে সেখানে কলঙ্ক তিলক তারা এঁকে দিয়েছিলো। আমরা আশা করেছিলাম এ ব্যাপারে একটা সামগ্রিক ও সমন্বিত পদক্ষেপের মধ্য দিয়ে দেশের মধ্যে বিভিন্নভাবে যে উগ্রবাদী নেটওয়ার্ক চেপে বসেছে, সেটিকে উত্খাত করা হবে। কিন্তু ক্ষমতাসীনদের দিকে থেকে এই ধরনের কোনো সমন্বিত উদ্যোগ আমরা দেখিনি।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

সরকার জঙ্গিবাদ নিয়ে জনগণকে অন্ধকারে রেখেছে: রিজভী

আপডেট সময় ০২:৪৭:০৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১ জুলাই ২০১৭
জাতীয় ডেস্কঃ
বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, জঙ্গিবাদ মোকাবেলায় সরকার কী ব্যবস্থা নিয়েছে তা আমরা জানি না। কেউ কেউ বলছে এসব ঘটনার সঙ্গে আইএস জড়িত। সরকার এ বিষয়ে জনগণকে অন্ধকারে রেখেছে। তাদের পরিস্কার করা উচিত। সমন্বিত উদ্যোগ না নিলে দেশে জঙ্গিবাদ নির্মূল হবে না।
শনিবার সকালে গুলশানে হলি আর্টিজান বেকারির ঘটনাস্থলে নিহতের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের পর উপস্থিত সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি। রিজভীর নেতৃত্ব ৬ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল গুলশানের ৭৯নং সড়কের হলি আর্টিজান বেকারির প্রাঙ্গণে নিহতের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে পুস্পমাল্য অর্পন করেন।

রিজভী বলেন, এই দেশ ও জাতির জন্য আজকের দিনটি একটি কালো অধ্যায়। দেশ-বিদেশের এতগুলো মানুষ উগ্রবাদী জঙ্গিদের হাতে নির্মমভাবে নিহত হওয়া এটি নিঃসন্দেহে আমাদের আবহমান বাংলার যে সংস্কৃতি, সামপ্রদায়িক সমপ্রীতি এবং দেশের যে এগিয়ে চলা, আমরা যে সমপ্রীতির পক্ষে, প্রগতির পক্ষে, অগ্রগতির পক্ষে সেখানে কলঙ্ক তিলক তারা এঁকে দিয়েছিলো। আমরা আশা করেছিলাম এ ব্যাপারে একটা সামগ্রিক ও সমন্বিত পদক্ষেপের মধ্য দিয়ে দেশের মধ্যে বিভিন্নভাবে যে উগ্রবাদী নেটওয়ার্ক চেপে বসেছে, সেটিকে উত্খাত করা হবে। কিন্তু ক্ষমতাসীনদের দিকে থেকে এই ধরনের কোনো সমন্বিত উদ্যোগ আমরা দেখিনি।