ঢাকা ১১:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সারাদেশে বজ্রপাতে ৯ জনের মৃত্যু

জাতীয় ডেস্ক, মুরাদনগর বার্তা ডেস্কঃ

সারাদেশে বজ্রপাতে ৯ জনের মৃত্যু শীর্ষ নিউজ, ঢাকা: বজ্রপাতে দেশের বিভিন্ন জেলায় এক রহিঙ্গাসহ পাঁচ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

শনিবার সংঘটিত এ বজ্রপাতে কক্সবাজারে ২, বাগেরহাটে ২, মাদারীপুর ২, বরিশালে ১, নারায়ণগঞ্জে ১ ও টাঙ্গাইলে ১ জনের মৃত্যু হয়।

সারাদেশ থেকে আমাদের প্রতিনিধিদের তথ্য অনুযায়ী বজ্রপাতে মৃত্যু-

কক্সবাজার: জেলায় বজ্রপাতে নিহত ২ তারা হলেন, শামলাপুর এলাকার আমির হোসেনের ছেলে কামাল হোসেন (২৫) এবং রহমতের বিল এলাকার কামাল উদ্দিনের ছেলে মোহাম্মদ সিরাজদ্দৌল্লাহ (৩২)।

শনিবার সকালে টেকনাফের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর ও উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়নের রহমতের বিল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বাহারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই এম এ গোফরান জানান, বজ্রপাতে একজন মারা হওয়ার খবর শুনেছেন।

বাগেরহাট: বাগেরহাটের মোল্লাহাট ও মোরেলগঞ্জ উপজেলায় বজ্রপাতে দিনমজুরসহ দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন আরো দুইজন।

মৃতরা হলেন-বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার মানিকনগর গ্রামের আজম শেখ (৪৮) ও মোরেলগঞ্জের চিংড়াখালী ইউনিয়নের পূর্ব চন্ডিপুর গ্রামের আল আমীন খান (৩৫)। শনিবার দুপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ফকিরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) রফিকুল ইসলাম গাজী জানান, ‘দুপুরে বজ্রপাতে আহত আজম ও খান জাহান আলী (৫০) নামে দুই দিনমজুরকে হাসপাতালে আনা হয়। এদের মধ্যে আজম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনার আগেই মারা যান। আহত খান জাহান আলীকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।’

অন্যদিকে, দুপুরে মোরেলগঞ্জের পূর্ব চন্ডিপুর গ্রামে বজ্রপাত হলে আল আমীন খান নামে এক কৃষক ঘটনাস্থলেই মারা যান।

মোরেলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রাশেদুল আলম জানান, ‘দুপুরে কৃষি কাজ করার সময় বজ্রপাতে এ ঘটনা ঘটে।’

বরিশাল: বরিশালের হিজলা উপজেলায় বজ্রপাতে আ. ছোবাহান (৫০) নামে এক কাপড় ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। শনিবার বিকেল ৩টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

আ. ছোবাহান উপজেলা সদরের খুন্না গোবিন্দপুরের বাসিন্দা। তিনি কাপড় ফেরি করে বিক্রি করতেন।

স্থানীয় বাসিন্দা নূরুল আলম রাজু জানান, ‘দুপুরে বৃষ্টির মধ্যে আ. সোবাহান আফতর আলী দরবেশ মক্তবে আশ্রয় নেন। এসময় বজ্রপাতে তিনি গুরুতর আহত হন ও মক্তবে আগুন ধরে যায়। পরে স্থানীয়রা সোবহানকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।’

টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলায় বজ্রপাতে মো. নজরুল ইসলাম (৮০) নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার সহবতপুর ইউনিয়নের চেতুয়াজানি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

সহবতপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান তোফায়েল আহম্মেদ জানান, ‘দুপুরে সারাংপুর এলাকায় যাওয়ার উদ্দেশে নিজ বাড়ি থেকে বের হন নজরুল। এসময় বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।’

মাদারীপুর: আজ শনিবার দুপুরে মাদারীপুর শিবচরে কাওড়াকান্দি ঘাটে বজ্রপাতে লঞ্চে ফয়সাল সরদার নামে এক যাত্রী নিহত হয়েছেন। এছাড়াও জেলার রাজৈর উপজেলার কদমবাড়ি এলাকায় অজ্ঞাত এক শিশু নিহত হয়েছে। এ সময় আরও ২ জন যাত্রী আহত হন।

বিআইডব্লিউটি সূত্রে জানা যায়, ‘এমভি মকবুল’ নামের লঞ্চটি মাওয়া থেকে ছেড়ে কাওড়াকান্দি ঘাটে এসে পৌঁছলে হালকা বৃষ্টি বর্ষণের সময় বজ্রপাতের সময় এর দু’জন যাত্রী গুরুতর আহত হয়। স্থানীয় লোকজন আহত ২ জনকে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার ফয়সাল সরদার (১৮) নামের একজনকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত ফয়সাল সরদার শিবচর উপজেলার চরশ্যামাইল গ্রামের নয়ন সরদারের ছেলে।

নারায়ণগঞ্জ: জেলার সোনারগাঁয়ের মেঘনা নদীর বৈদ্যেরবাজার ট্রলার ঘাট এলাকায় বজ্রপাতে এক ট্রলার চালক নিহত হয়েছেন। নিহত ট্রলার চালকের নাম মো. আনোয়ার হোসেন।

শনিবার মেঘনা নদীতে এ ঘটনা ঘটে।

আনোয়ার হোসেন মেঘনা উপজেলার নলচর গ্রামের সাব মিয়ার ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মেঘনা উপজেলার নলচর এলাকা থেকে যাত্রী নিয়ে বৈদ্যোরবাজার ঘাটে শনিবার দুপুরে এসে পৌছায়। পরে যাত্রী নামানো শেষে তিনি ট্রলারে বসে ছিলেন। এসময় হঠাৎ বজ্রপাত তার ট্রলারে পড়লে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়। পরে পরিবারের লোকজন লাশটি তার বাড়ি উপজেলার নলচরে নিয়ে যায়।

নলচর গ্রামের ট্রলার চালক সাইদুল ইসলাম জানান, আনোয়ার হোসেন দীর্ঘদিন প্রবাসে ছিলেন। পরে দেশে এসে ইঞ্জিন চালিত ট্রলার ক্রয় করে মেঘনা নদীতে নিজেই যাত্রী পারাপারের কাজ করে।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

মুরাদনগর বাবুটিপাড়া ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতির ইন্তেকাল

সারাদেশে বজ্রপাতে ৯ জনের মৃত্যু

আপডেট সময় ০২:৪৯:২৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ জুন ২০১৬

জাতীয় ডেস্ক, মুরাদনগর বার্তা ডেস্কঃ

সারাদেশে বজ্রপাতে ৯ জনের মৃত্যু শীর্ষ নিউজ, ঢাকা: বজ্রপাতে দেশের বিভিন্ন জেলায় এক রহিঙ্গাসহ পাঁচ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

শনিবার সংঘটিত এ বজ্রপাতে কক্সবাজারে ২, বাগেরহাটে ২, মাদারীপুর ২, বরিশালে ১, নারায়ণগঞ্জে ১ ও টাঙ্গাইলে ১ জনের মৃত্যু হয়।

সারাদেশ থেকে আমাদের প্রতিনিধিদের তথ্য অনুযায়ী বজ্রপাতে মৃত্যু-

কক্সবাজার: জেলায় বজ্রপাতে নিহত ২ তারা হলেন, শামলাপুর এলাকার আমির হোসেনের ছেলে কামাল হোসেন (২৫) এবং রহমতের বিল এলাকার কামাল উদ্দিনের ছেলে মোহাম্মদ সিরাজদ্দৌল্লাহ (৩২)।

শনিবার সকালে টেকনাফের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর ও উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়নের রহমতের বিল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বাহারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই এম এ গোফরান জানান, বজ্রপাতে একজন মারা হওয়ার খবর শুনেছেন।

বাগেরহাট: বাগেরহাটের মোল্লাহাট ও মোরেলগঞ্জ উপজেলায় বজ্রপাতে দিনমজুরসহ দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন আরো দুইজন।

মৃতরা হলেন-বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার মানিকনগর গ্রামের আজম শেখ (৪৮) ও মোরেলগঞ্জের চিংড়াখালী ইউনিয়নের পূর্ব চন্ডিপুর গ্রামের আল আমীন খান (৩৫)। শনিবার দুপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ফকিরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) রফিকুল ইসলাম গাজী জানান, ‘দুপুরে বজ্রপাতে আহত আজম ও খান জাহান আলী (৫০) নামে দুই দিনমজুরকে হাসপাতালে আনা হয়। এদের মধ্যে আজম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনার আগেই মারা যান। আহত খান জাহান আলীকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।’

অন্যদিকে, দুপুরে মোরেলগঞ্জের পূর্ব চন্ডিপুর গ্রামে বজ্রপাত হলে আল আমীন খান নামে এক কৃষক ঘটনাস্থলেই মারা যান।

মোরেলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রাশেদুল আলম জানান, ‘দুপুরে কৃষি কাজ করার সময় বজ্রপাতে এ ঘটনা ঘটে।’

বরিশাল: বরিশালের হিজলা উপজেলায় বজ্রপাতে আ. ছোবাহান (৫০) নামে এক কাপড় ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। শনিবার বিকেল ৩টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

আ. ছোবাহান উপজেলা সদরের খুন্না গোবিন্দপুরের বাসিন্দা। তিনি কাপড় ফেরি করে বিক্রি করতেন।

স্থানীয় বাসিন্দা নূরুল আলম রাজু জানান, ‘দুপুরে বৃষ্টির মধ্যে আ. সোবাহান আফতর আলী দরবেশ মক্তবে আশ্রয় নেন। এসময় বজ্রপাতে তিনি গুরুতর আহত হন ও মক্তবে আগুন ধরে যায়। পরে স্থানীয়রা সোবহানকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।’

টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলায় বজ্রপাতে মো. নজরুল ইসলাম (৮০) নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার সহবতপুর ইউনিয়নের চেতুয়াজানি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

সহবতপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান তোফায়েল আহম্মেদ জানান, ‘দুপুরে সারাংপুর এলাকায় যাওয়ার উদ্দেশে নিজ বাড়ি থেকে বের হন নজরুল। এসময় বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।’

মাদারীপুর: আজ শনিবার দুপুরে মাদারীপুর শিবচরে কাওড়াকান্দি ঘাটে বজ্রপাতে লঞ্চে ফয়সাল সরদার নামে এক যাত্রী নিহত হয়েছেন। এছাড়াও জেলার রাজৈর উপজেলার কদমবাড়ি এলাকায় অজ্ঞাত এক শিশু নিহত হয়েছে। এ সময় আরও ২ জন যাত্রী আহত হন।

বিআইডব্লিউটি সূত্রে জানা যায়, ‘এমভি মকবুল’ নামের লঞ্চটি মাওয়া থেকে ছেড়ে কাওড়াকান্দি ঘাটে এসে পৌঁছলে হালকা বৃষ্টি বর্ষণের সময় বজ্রপাতের সময় এর দু’জন যাত্রী গুরুতর আহত হয়। স্থানীয় লোকজন আহত ২ জনকে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার ফয়সাল সরদার (১৮) নামের একজনকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত ফয়সাল সরদার শিবচর উপজেলার চরশ্যামাইল গ্রামের নয়ন সরদারের ছেলে।

নারায়ণগঞ্জ: জেলার সোনারগাঁয়ের মেঘনা নদীর বৈদ্যেরবাজার ট্রলার ঘাট এলাকায় বজ্রপাতে এক ট্রলার চালক নিহত হয়েছেন। নিহত ট্রলার চালকের নাম মো. আনোয়ার হোসেন।

শনিবার মেঘনা নদীতে এ ঘটনা ঘটে।

আনোয়ার হোসেন মেঘনা উপজেলার নলচর গ্রামের সাব মিয়ার ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মেঘনা উপজেলার নলচর এলাকা থেকে যাত্রী নিয়ে বৈদ্যোরবাজার ঘাটে শনিবার দুপুরে এসে পৌছায়। পরে যাত্রী নামানো শেষে তিনি ট্রলারে বসে ছিলেন। এসময় হঠাৎ বজ্রপাত তার ট্রলারে পড়লে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়। পরে পরিবারের লোকজন লাশটি তার বাড়ি উপজেলার নলচরে নিয়ে যায়।

নলচর গ্রামের ট্রলার চালক সাইদুল ইসলাম জানান, আনোয়ার হোসেন দীর্ঘদিন প্রবাসে ছিলেন। পরে দেশে এসে ইঞ্জিন চালিত ট্রলার ক্রয় করে মেঘনা নদীতে নিজেই যাত্রী পারাপারের কাজ করে।